ভারতে ই-সিগারেট নিষিদ্ধ | বিশ্ব | DW | 18.09.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ভারত

ভারতে ই-সিগারেট নিষিদ্ধ

ভারতে ই-সিগারেট বিক্রি, উৎপাদন, আমদানি এবং বিতরণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে৷ এই সিগারেট তামাকের থেকে কম ক্ষতিকারক বলে প্রচার থাকলেও এটি সেবনে স্বাস্থ্যহানির আশঙ্কা থাকায় তা নিষিদ্ধ করা হয়েছে৷

এদিকে নিউ ইয়র্কে সুগন্ধিযুক্ত ই-সিগারেট নিষিদ্ধের একদিন পর ভারতে ই-সিগারেট নিষিদ্ধ করা হলো৷

ভারতের অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন বুধবার নয়াদিল্লিতে সাংবাদিকদের বলেন, "ই-সিগারেটের প্রভাব আজকের যুব সমাজের উপর কীভাবে পড়েছে তা মাথায় রেখেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে৷''

এক প্রতিবেদনে এনডিটিভি জানিয়েছে, সম্প্রতি মন্ত্রিসভার কয়েকজন সদস্য ই-সিগারেট নিষিদ্ধকরণ অধ্যাদেশ পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে এটা নিষিদ্ধের সুপারিশ করেন৷

অধ্যাদেশের খসড়ায় বলা হয়েছে, সরকারের এই সিদ্ধান্ত অমান্য করলে কোনো ব্যক্তিকে সর্বোচ্চ ১০ বছর কারাদণ্ডের পাশাপাশি পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করা হবে৷ দ্বিতীয়বার এটা অমান্য করলে তখন যদি জেল না-ও দেওয়া হয় তবে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হবে৷

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি নেতৃত্বাধীন ভারতের বিজেপি জোট সরকারের দ্বিতীয় মেয়াদের প্রথম একশ দিনের কর্মসূচির অগ্রাধিকারগুলোর মধ্যে ছিল ই-সিগারেট, হিট-নট-বার্ন স্মোকিং ডিভাইস, ভেপ এবং ই-নিকোটিন স্বাদযুক্ত হুকাগুলোর মতো বিকল্প ধূমপানযন্ত্র নিষিদ্ধ করা৷

কিশোর-কিশোরীদের মধ্যে দিন দিন ব্যবহারের হার ব্যাপকভাবে বেড়ে যাওয়া এবং স্বাস্থ্যহানির ঝুঁকি থাকায় গত মঙ্গলবার নিউ ইয়র্কে সুগন্ধিযুক্ত ই-সিগারেট নিষিদ্ধ করা হয়৷

যুক্তরাষ্ট্রে ই-সিগারেট পানে শ্বাসযন্ত্রে গুরুতর জটিল রোগে আক্রান্ত হয়ে সম্প্রতি এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে৷ যুক্তরাষ্ট্রের ইলিনয় অঙ্গরাজ্যের ওই বাসিন্দার বয়স ১৭ থেকে ৩৮'র মধ্যে ছিল বলে জানালেও কর্তৃপক্ষ তার নাম-পরিচয় প্রকাশ করেনি৷

যুক্তরাষ্ট্রে জুড়ে সম্প্রতি ফুসফুসজনিত নানা রোগে ভোগা মানুষের সংখ্যা বাড়ার সঙ্গে ই-সিগারেট পানের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক আছে বলে স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা অভিমত দিয়েছিলেন৷

ইলেকট্রিক সিগারেট, ই-সিগ, ভেপ ইত্যাদি পরিচিত এই সিগারেট ব্যবহারের হার আশঙ্কাজনকভাবে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কিশোর, তরুণদের মধ্যে বাড়ছে৷

যন্ত্রটিকে ধূমপায়ীরা ধূমপান ছাড়ার উপায় হিসেবে দেখলেও বর্তমানে এটি নতুন ধরনের নেশা হয়ে দাঁড়িয়েছে৷ কানাডার ইউনিভার্সিটি অব ওয়াটারলুর এক গবেষণায় দেখা যায়, কম বয়সে ভেপ ব্যবহার করা ছেলেমেয়েদের অধিকাংশই প্রাপ্তবয়স্ক হয়ে সিগারেট মুখে তুলে নিচ্ছে৷

এসআই/কেএম (এফপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন