ভারতীয় জঙ্গি: জাতিসংঘে পাক প্রস্তাব খারিজ | বিশ্ব | DW | 04.09.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিশ্ব

ভারতীয় জঙ্গি: জাতিসংঘে পাক প্রস্তাব খারিজ

জাতিসংঘের জঙ্গি তালিকায় দুই ভারতীয়র নাম তুলতে চেয়ে প্রস্তাব এনেছিল পাকিস্তান। কিন্তু প্রমাণ না থাকায় সেই প্রস্তাব খারিজ হয়ে গেল।

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

কিছুদিন আগেই জৈশ-ই-মোহাম্মদের প্রধান মাসুদ আজহারকে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদী বলে ঘোষণা করেছিল জাতিসংঘ। দীর্ঘদিনের চেষ্টা সফল হয়েছিল বলে দাবি করে ভারত। এ বার পাকিস্তানও পাল্টা প্রস্তাব এনে ভারতকে প্রত্যাঘাত করতে চেয়েছিল। দুই ভারতীয়কে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদী বলে ঘোষণার দাবি জানিয়েছিল পাকিস্তান। এঁরা হলেন অন্ধ্রের আঙ্গারা আপ্পাজি এবং ওড়িশার গোবিন্দ পট্টনায়েক। কাজের সূত্রে দুজনেই আফগানিস্তানে ছিলেন।

কিন্তু পাকিস্তানের প্রস্তাব অ্যামেরিকা, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, জার্মানি, বেলজিয়াম মিলে খারিজ করে দিয়েছে। এই দেশগুলি জানিয়েছে, এই দুই ভারতীয়ের সন্ত্রাসবাদে জড়িত থাকার কোনো প্রমাণই দিতে পারেনি পাকিস্তান।জাতিসংঘে নিরাপত্তা পরিষদের সন্ত্রাস বিষয়ক কমিটি  ঠিক করে কার নাম জঙ্গি তালিকায় তোলা হবে। এর আগে দুই ভারতীয় অজয় মিস্ত্রি ও বেনুমাধব ডোঙ্গরার নামও সন্ত্রাসবাদী তালিকায় তুলতে চেয়েছিল পাকিস্তান। কিন্তু তাদের সেই প্রস্তাবও গত মার্চে খারিজ হয়ে যায়। এই দুই ভারতীয়ও আফগানিস্তানে কাজ করতেন।

জাতিসংঘে ভারতের স্থায়ী প্রতিনিধি টি এস তিরুমূর্তি টুইট করে বলেছেন, ''সন্ত্রাস বিষয়ক কমিটিকে রাজনৈতিক রং দিয়ে পাকিস্তান নির্লজ্জভাবে ব্যবহার করতে চেয়েছিল। নিরাপত্তা পরিষদের যে সদস্যরা পাকিস্তানের এই চেষ্টা বানচাল করে দিয়েছেন, তাঁদের ধন্যবাদ।'' 

আপ্পাজি আফগানিস্তানের একটি বেসরকারি ব্যাঙ্কে কাজ করতেন। আর পট্টনায়েক একটি সংস্থার উঁচু পদে ছিলেন। পাকিস্তানের অভিযোগ ছিল, তাঁরা ভিতরে ভিতরে তেহরিক-ই-তালিবানকে অর্থ সাহায্য করতেন। পেশোয়ারের স্কুলে জঙ্গি হামলার ঘটনার সঙ্গেও তাঁদের নাম জড়িয়েছিল পাকিস্তান। কিন্তু ইসলামাবাদ শুধু অভিযোগই করেছে. কোনো প্রমাণ দিতে পারেনি। তাই জাতিসংঘের কমিটি দুই ভারতীয়ের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি খারিজ করে দিয়েছে। পাকিস্তানকে উপযুক্ত প্রমাণ দিতে বলা হয়েছে।

জিএইচ/এসজি(এএনআই)

বিজ্ঞাপন