ভারতকে টি-টোয়েন্টিতে হারালো বাংলাদেশ | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 03.11.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

লাইভ আপডেট

ভারতকে টি-টোয়েন্টিতে হারালো বাংলাদেশ

সিরিজের প্রথম টি-টোয়ন্টিতে ভারতের বিপক্ষে সাত উইকেটের জয় পেয়েছে বাংলাদেশ৷ এর মধ্য দিয়ে প্রথমবারের মত ভারতকে টি-টোয়েন্টিতে হারালো টাইগাররা৷

Cricket ICC Champions Trophy Australien - Bangladesch (picture-alliance/empics/A. Davy)

ছবি প্রতীকী

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ভারত ২০ ওভারে  ১৪৮/৬, (ধাওয়ান ৪১, পান্ট ২৭, শ্রেয়াস ২২, শফিউল ৪-০-৩৬-২, আমিনুল ৩-০-২২-২, আফিফ ২-০-১১-১ )

বাংলাদেশ ১৯.৩ ওভারে ১৫৪/৩ (মুশফিক ৬০*, সৌম্য ৩৯, নাঈম ২৬, মাহমুদউল্লাহ ১৫* চাহার ৩-০-২৪-১, চেহেল ৪-০-২৪-১)

ম্যান অব দ্যা প্লেয়ার: মুশফিকুর রহিম

মাহমুদউল্লাহর ছক্কায় তিন বল হাতে রেখে ভারতের বিপক্ষে ঐতিহাসিক জয় পেল বাংলাদেশ৷ এর আগে ১৯ তম ওভারে পরপর চারটি বাউন্ডারি মেরে কাজটি অনেকটাই সহজ করে দেন মুশফিক৷ শেষ ওভারে দরকার ছিল ৪ রান৷ প্রথম বলে রান পাননি মাহমুদউল্লাহ৷ দ্বিতীয় বলে দুই রান, তৃৃতীয় বলে ওয়াইড থেকে আসে এক রান৷ তিন বলে এক রান দরকার থাকলেও ছক্কা পিটিয়ে ঐতিহাসিক জয় নিশ্চিত করেন মাহমুদউল্লাহ৷ 

জয়ের জন্য ১২ বলে  ২২ রান

জয়ের জন্য বাংলাদেশের শেষ দুই ওভারে লাগবে ২২ রান৷ ব্যাটিংয়ে আছেন মুশফিক ও মাহমুদউল্লাহ৷ এর আগে আউট হয়েছেন সৌম্য সরকার৷

শেষ চার ওভারে দরকার ৪৪

জিততে হলে শেষ চার ওভারে বাংলাদেশের প্রয়োজন ৪৪ রান৷ গড়ে ওভার প্রতি লাগবে ১১ করে৷ উইকেটে আছেন সৌম্য ও মুশফিক৷

৩৬ বলে ৫৫

বাংলাদেশের জয়ের জন্য দরকার ৩৬ বলে ৫৫ রান৷ হাতে আছে আট উইকেট৷ ২৮ বলে ৩৪ করে অপরাজিত আছেন সৌম্য৷ মুশফিক আছেন ২৫ বলে ২৬ রানে৷ 

মোহাম্মদ নাঈম আউট

আউট হয়ে গেলেন দুর্দান্ত খেলতে থাকা মোহাম্মদ নাঈম৷ অষ্টম ওভারে বল করতে আসা চাহালের প্রথম দুইটি বল না লাগাতে পেরে তৃতীয়টি উড়িয়ে মারতে যান৷ তাতে শিখর ধাওয়ানের হাতে ধরা পড়েন৷ ২৮ বলে ২৬ রান করেছেন অভিষেক হওয়া নাঈম দুইটি চার ও একটি ছয় এর সাহায্যে৷

বাংলাদেশের অর্ধশত

৬ দশমিক ৩ ওভারের অর্ধশত রান পূর্ণ করল বাংলাদেশ৷ দ্রুত প্রথম উইকেট হারালেও মোহাম্মদ নাঈম আর সৌম্য সরকার এগিয়ে নিচ্ছেন দলকে৷ লিটনের সাথে ওপেনিংয়ে নেমে নাঈম ২৩ বলে ২৫ রানে আর সৌম্য অপরাজিত আছেন ১৪ বলে ১৮ রানে৷

প্রথম ওভারেই লিটন আউট

প্রথম উইকেট হারালো বাংলাদেশ৷ শুরুর ওভারের পঞ্চম বলে ক্যাচ তুলে দেন লিটন৷ সেটি তালুবন্দী করতে সমস্যা হয়নি রাহুলের৷ ব্যক্তিগত সাত রানে সাঝঘরে ফেরেন লিটন৷ তার সঙ্গে ওপেনিংয়ে নেমেছেন মোহাম্মদ নাঈম৷   

ভারতকে ১৪৮ রানে বেধে রাখল বাংলাদেশ

শেষ পর্যন্ত ভারতের রানের খাতা থেমেছে ১৪৮ রানে৷ বাংলাদেশ তুলে নিয়েছে ছয় উইকেট৷ দুই উইকেট করে পেয়েছেন শফিউল ইসলাম ও আমিনুল ইসলাম৷ আফিফ তিন ওভারে ১১ রান দিয়ে তুলে নিয়েছেন একটি উইকেট৷ নিজেসহ মোট আটজনকে দিয়ে বোলিং করিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ৷ ভারতের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪১ রান করেছেন ধাওয়ান৷

শফিউলের দ্বিতীয় শিকার পান্ট

শেষ ওভার করতে এসে পান্টকে আউট করলেন শফিউল৷ ১৮ তম ওভারের দ্বিতীয় বলে উড়িয়ে মারতে গিয়ে পান্ট ধরা পড়েন বাউন্ডারির কাছে মোহাম্মদ নাঈমের হাতে৷

আফিফ নিলেন ভারতের পঞ্চম উইকেট

দুর্দান্ত এক ক্যাচে নিজের বলেই শভাম দুবেকে আউট করেছেন আফিফ হোসেন৷ পতন ঘটান ভারতের পঞ্চম উইকেটের৷

ধাওয়ান আউট

এক প্রান্তে উইকেট আগলে রেখে রান তুলে নিচ্ছিলেন শিখর ধাওয়ান৷ ক্রমশ বিপদজনক হয়ে ওঠা এই ব্যাটসম্যান প্যাভিলিয়নে ফিরে গেছেনর রান আউট হয়ে৷ মাহমুদউল্লাহর ওভারে এসময় ব্যাট করছিলেন ঋসভ পান্ট৷ মিডউইকটে বল ঠেলে দিয়ে দুই রান নিতে চেয়েছেন তিনি৷ মাহমুদউল্লাহ দৌড়ে বল ফেরৎ পাঠালে মুশফিক উইকেট ভাঙ্গেন৷ ধাওয়ান ৪২ বলে করেছেন ৪১ রান৷

আমিনুলের দ্বিতীয় শিকার আইয়ার

নিজের তৃতীয় ওভারে এসএস আইয়ারকে ফেরালেন আমিনুল৷ বড় শট খেলতে গিয়েছিলেন আইয়ার৷ সীমানার কাছে দাড়িয়ে থাকা ফিল্ডার মোহাম্মদ নাঈমের হাতে তালুবন্দী হন তিনি৷ আইয়ার ১৩ বলে করেছেন ২২ রান৷

১০ ওভারে ভারতের রান ৬৯

প্রথম দশ ওভারে প্রায় সাত গড়ে রান তুলে নিয়েছে ভারত৷ আর বাংলাদেশ তুলে নিয়েছে দুই উইকেট৷ এর মধ্যেই ৫ বোলারকে ব্যবহার করেছেন মাহমুদউল্লাহ৷ উইকেট ফেলতে সফল হয়েছেন শফিউল এবং আমিনুল৷

রোহিত শর্মার পর আউট কে এল রাহুলও

ষষ্ঠ ওভারে আমিনুল ইসলামের হাতে বল তুলে দেন মাহমুদউল্লাহ৷ ওভারের তৃতীয় বলেই ক্যাচ তুলে দেন রাহুল৷ মাহমুদউল্লাহর হাতেই ধরা পড়েন তিনি৷ আউট হয়েছেন ১৭ বলে ১৫ রান করে৷

প্রথম ওভারেই রোহিতকে ফেরালেন শফিউল

টসে জিতে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন৷ ওভারের প্রথম বল তুলে দেন শফিউল ইসলামের হাতে৷ প্রথম বলেই রোহিত শর্মা লেগ সাইড দিয়ে চার তুলে নেন৷ পঞ্চম বলে আবারও বাউন্ডারি হাঁকান রোহিত৷ কিন্ত ওভারের শেষ বলে তাকে এলবিডব্লুর ফাদে ফেলেন শফিউল৷ আম্পায়ারের সিদ্ধান্তের বিপক্ষে রিভিউ রিভিউ নিয়েও কাজ হয়নি৷ বিপদজনক হওয়ার আগেই ব্যক্তিগত নয় রানে বিদায় নেন রোহিত শর্মা৷ 

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন