‘ভাগ্য সূচক′ও তামিমের কথাই বলছে | বিশ্ব | DW | 03.07.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিশ্বকাপ ক্রিকেট

‘ভাগ্য সূচক'ও তামিমের কথাই বলছে

বার্মিংহামে ভারতের কাছে হারের কারণে বাংলাদেশ বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গেছে৷ ঐ ম্যাচে শতক করা রোহিত শর্মার ক্যাচটি ধরতে পারেননি তামিম৷ সামাজিক মাধ্যমে তা নিয়ে চলছে বিস্তর আলোচনা৷

তামিম যখন ক্যাচটি মিস করেন তখন রোহিত শর্মার রান ছিল নয়৷ এভাবে জীবন পেয়ে তিনি করেন ১০৪ রান৷ তামিম যদি ক্যাচটি নিতে পারতেন তাহলে কি বাংলাদেশ জিতে যেতো? ক্যাচ মিস না করলে ভারতের সংগ্রহ কত হতে পারতো? এসব নিয়ে একেকজন একেক অনুমান করছেন৷

তবে ক্রিকেট বিষয়ক ওয়েবসাইট ইএসপিএনক্রিকইনফো সংখ্যা দিয়ে এসব প্রশ্নের উত্তর জানার চেষ্টা করেছে৷ তারা বলছে, ক্যাচ মিস হওয়ার পর রোহিত ৮১ বলে ৯৫ রান যোগ করেন৷ কিন্তু তিনি যদি আউট হয়ে যেতেন তাহলে ভারত ৮১ বলে ৯৫ নয়, মাত্র ৪৭ রান করতে পারতো৷ সেক্ষেত্রে ভারতের সংগ্রহ হতো ২৬৭৷ অর্থাৎ বাংলাদেশের সংগ্রহ করা ২৮৬ রানের চেয়ে কম৷

কীভাবে বিশ্লেষণ?

প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ইন্টেলের সঙ্গে যৌথভাবে লাক ইনডেক্স বা ভাগ্য সূচক তৈরি শুরু করেছে ইএসপিএন৷ ইংল্যান্ডের বাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সহায়তায় ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে দল, খেলোয়াড় ও কোচদের ভাগ্য বিশ্লেষণের চেষ্টা করে তারা৷

গত আইপিএল থেকে ক্রিকেট নিয়েও এমন কাজ শুরু করেছে ইএসপিএনক্রিকইনফো৷ তারা বলছে, ৪.৩ ওভারের সময় রোহিত শর্মা আউট হতেন ধরে নিয়ে তারপর থেকে ম্যাচ যেভাবে এগিয়েছে সেই তথ্য সিমুলেট করে একটি অনুমানের চেষ্টা করা হয়েছে৷

শুধু তামিমের বিষয় নয়, ইএসপিএনক্রিকইনফো জানাচ্ছে, চলতি বিশ্বকাপে চার শতক করা রোহিত শর্মা চার দলের বিপক্ষে পাঁচবার জীবন পেয়েছেন, অর্থাৎ পাঁচবার তাঁর ক্যাচ নিতে ব্যর্থ হন ফিল্ডাররা৷ বাংলাদেশ ছাড়াও দক্ষিণ আফ্রিকা (দু'বার), অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রাণ ফিরে পেয়েছিলেন তিনি৷ এই সুযোগ পেয়ে তিনি ব্যক্তিগত হিসেবে মোট ৩৬৯ রান যোগ করতে পেরেছেন৷ অর্থাৎ এখন পর্যন্ত বিশ্বকাপে রোহিত শর্মার করা ৫৪৪ রানের মধ্যে ৩৬৯ রানই এসেছে জীবন ফিরে পাবার পর! এছাড়া চার শতকের তিনটিই সম্ভব হয়েছে এ কারণে৷

জীবন পেয়ে রান যোগ করা ক্রিকেটারদের মধ্যে রোহিত শর্মার পরেই আছেন ডেভিড ওয়ার্নার৷ তিনি দুবার প্রাণ পেয়ে ১৫৬ রান যোগ করতে পেরেছেন৷

জেডএইচ/এসিবি (ইএসপিএনক্রিকইনফো)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন