ভবিষ্যতে মফস্বলেও ইন্টারনেট বন্ধের মহড়া হবে | বিশ্ব | DW | 04.08.2016
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ভবিষ্যতে মফস্বলেও ইন্টারনেট বন্ধের মহড়া হবে

নিরাপত্তার প্রয়োজনে ভবিষ্যতে যেন কোনো নির্দিষ্ট অঞ্চলে ইন্টারনেট ও মোবাইল যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ করা যায় সেই সক্ষমতা অর্জনে এখন থেকে নিয়মিতভাবে মহড়ার আয়োজন করা হবে বলে জানিয়েছে বিটিআরসি৷

বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন বা বিটিআরসির সচিব সরওয়ার আলম ডয়চে ভেলেকে জানান, ভবিষ্যতে মফস্বল এলাকা সহ দেশের অন্যান্য অঞ্চলেও মহড়া হবে৷ উল্লেখ্য, গত সোমবার মধ্যরাতের পর প্রথমবারের মতো ঢাকার শাহবাগ, বাংলামোটর, কারওয়ানবাজার, কলাবাগান, পরিবাগসহ আশেপাশের এলাকায় অল্প সময়ের জন্য ইন্টারনেট ও টেলিকম সেবা বাধাগ্রস্ত হয়৷

মহড়ার শুরুতে ইউআরএল ও ওয়েবসাইট ফিল্টারিং করা হয়৷ রাত একটার পরে ঢাকার নির্দিষ্ট কিছু এলাকায় ইন্টারনেট সংযোগ বন্ধ করে দেওয়া হয়৷ আর রাত আড়াইটার পরে রাজধানীর শাহবাগ এলাকায় মোবাইল সংযোগও বন্ধ করে দেওয়া হয়৷ সবকিছুই বন্ধ করা হয় কিছু সময়ের জন্য৷

অডিও শুনুন 02:09
এখন লাইভ
02:09 মিনিট

বিটিআরসির সচিব সরওয়ার আলম

জানা গেছে, ইন্টারনেট নেটওয়ার্ক দ্রুত বন্ধ করা গেলেও মোবাইল নেটওয়ার্ক বন্ধে বেশি সময় লাগে৷ কারণ শাহবাগ এলাকায় মোবাইল অপারেটরগুলোর ৬০টি বিটিএস তথা টাওয়ার রয়েছে৷ সেগুলো বন্ধে কারিগরি দুর্বলতার চেয়ে প্রশাসনিক জটিলতা বেশি চোখে পড়েছে৷

মহড়া শুরু হওয়ার আগে বিটিআরসি আইন-শৃঙ্খলাবাহিনী, বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা, বিভিন্ন নেটওয়ার্ক অপারেটরের প্রতিনিধিদের নিয়ে বৈঠক করে৷ এরপরই শুরু হয় মহড়া৷

গত ১ জুলাই রাতে ঢাকার গুলশানে জঙ্গি হামলা চলার সময় আইন-শৃঙ্খলাবাহিনী নির্দেশ দিলেও তাৎক্ষণিকভাবে ইন্টারনেট ও টেলিকম নেটওয়ার্ক সেবা বন্ধ করা সম্ভব হয়নি৷ কেন্দ্রীয়ভাবে রিয়েল টাইমে টেলিকম নেটওয়ার্ক বন্ধ করার প্রযুক্তি না থাকায় এ সমস্যা হয়েছিল বলে জানিয়েছেন ইন্টারনেট ও টেলিকম সেবাদাতা একাধিক প্রতিষ্ঠানের শীর্ষ কর্মকর্তারা৷

বিটিআরসির মুখপাত্র সরওয়ার আলম জানান, ‘‘আমরা নিয়মিতভাবে এই ড্রিল করব৷ এটি আমাদের রুটিন ওয়ার্ক৷ তবে এটি কোনো বিশেষ অভিযানের মতো নয়৷ আমরা একটি ড্রিল করেছি৷ পরেরটা কবে করব তা আমরা এখনো ঠিক করিনি৷ তবে আমরা বছর ধরেই এটা করব৷ যাতে সরকার নিরপাত্তার প্রয়োজনে চাইলে ব্যবস্থা নেয়া যায়৷''

তিনি আরো জানান, ‘‘আমরা একটি জিআইএস (জিওগ্রাফিক্যাল ইন্টারনেট সিস্টেম) ম্যাপ করেছি, যা দিয়ে আমরা সঠিকভাবে ইন্টারনেট-এর লাইন চিহ্নিত করতে পারব৷ এর আগে কোথায় কোন জিএসপি, কোথায় ফাইবার, ওয়াইম্যাক্স এগুলো শনাক্ত করা যেতনা৷''

বিটিআরসির সচিব বলেন, ‘‘নিরাপত্তার জন্য এই ড্রিল খুবই জরুরি৷ এর মাধ্যমে আমাদের সক্ষমতা যাচাই ও অর্জনের কাজও চলছে৷''

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন