বড় পরিসরে রোহিঙ্গা নির্যাতনের তদন্ত করছে মিয়ানমার সেনাবাহিনী | বিশ্ব | DW | 16.09.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

রোহিঙ্গা সংকট

বড় পরিসরে রোহিঙ্গা নির্যাতনের তদন্ত করছে মিয়ানমার সেনাবাহিনী

রোহিঙ্গাদের উপর বড় পরিসরের নির্যাতনের বিষয়ে তদন্ত করছে মিয়ানমার সেনাবাহিনী৷ সরকারের একটি প্রতিবেদনকে ভিত্তি করে এ তদন্ত শুরু করেছে তারা৷

রাখাইনে সেনাবাহিনীর নির্যাতনের মুখে ২০১৭ সালে প্রায় আট লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়৷ নির্যাতনের সেই ঘটনাকে রোহিঙ্গাদের উপর ‘গণহত্যা’ বলে জাতিসংঘ মন্তব্য করলেও, অভিযোগ অস্বীকার করে দেশটির সেনবাহিনী৷ রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গা জঙ্গিগোষ্ঠীর তৎপরতা ঠেকাতে এমন অভিযান চালিয়েছে বলে দাবি করে তারা৷

তবে মঙ্গলবার দেশটির সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে সেনাবাহিনী জানায়, ‘‘রাখাইনে বড় আকারের নির্যাতনের ঘটনা ঘটে থাকতে পারে৷’’

সরকারের প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনের কথা উল্লেখ করে বিবৃতিতে বলা হয়, ‘‘২০১৬-১৭ সালের এ সময়টিতে নির্যাতনের ঘটনার তদন্ত করা হচ্ছে৷’’

তার আগে মিয়ানমার সরকারের একটি তদন্ত কমিশন এক প্রতিবেদনে দেশটির কিছু সেনাসদস্যকে মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে অভিযুক্ত করে৷

সেনাবিহিনীর পক্ষ থেকে বলা হয়, ‘‘মংগদু এলাকার বেশ কয়েকটি গ্রামে নির্যাতনের অভিযোগের বিষয়টি এ তদন্তে যুক্ত করা হয়েছে৷’’

তবে তদন্তের বিষয়ে বিস্তারিত জানায়নি তারা৷

গত সপ্তাহে মিয়ানমারের দুই সেনাসদস্যকে নেদারল্যান্ডসের দ্য হেগে হাজির করা হয়৷ গত জুলাই মাসে এ দুই সেনা এক ভিডিওতে রাখাইনে সেনাবাহিনীর অভিযানের সময় গ্রামবাসীকে হত্যার সাথে যুক্ত থাকার কথা স্বীকার করেন৷ ঐ দুই সেনাসদস্যকে রোহিঙ্গাদের উপর নির্যাতনের সাক্ষী হিসেবে দ্য হেগের আন্তর্জাতিক আদালতে হাজির করা হতে পারে৷ 

আরআর/এসিবি (রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন