ব্লগিং জগতে বুনন শিল্পের প্রয়োগে ব্যাপক সাড়া | বিজ্ঞান পরিবেশ | DW | 21.11.2011
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞান পরিবেশ

ব্লগিং জগতে বুনন শিল্পের প্রয়োগে ব্যাপক সাড়া

বিজ্ঞানের নব আবিষ্কার এবং মানুষের সৃষ্টিশীলতার ফলে পাল্টে যাচ্ছে গণমাধ্যমের চেহারা৷ বর্তমানে গণমাধ্যমের অন্যতম অংশ হয়ে দাঁড়িয়েছে ব্লগিং৷ এবার ব্লগিং এর সাথে যোগ করা হলো সুঁই-সুতার বুনন৷

Die bosnische Agentur für Verbraucherschutz hat eine Liste über gefährliche Spielzeuge auf ihrer Internetseite veröffentlicht, um Kinder vor giftigen Inhaltsstoffen beim Spielen zu schützen. Es besteht die Gefahr, dass die Kinder Krankheiten erleiden oder Allergien entwickeln. Hier sind Kuchscheltiere und Puppen abgebildet. Bilder vom 27.9.2011. zum Thema Gefährliche Spielzeuge vom unseren Korrespondenten Sanel Kajan. Copyright: Sanel Kajan/DW

এমনি পুতুল তৈরি করে ব্লগিং এর কাজে লাগাচ্ছেন অ্যানা

ব্লগিং জগতে এই নতুন কৌশলের প্রয়োগ ঘটিয়েছেন এক ফরাসি ব্লগার৷ যা দ্বারা বেশ সহজেই ফোঁড়ন দেওয়া যায় বিশ্বের প্রতাপশালী ও ধনাঢ্য ব্যক্তিবর্গকেও৷ তিনি নিজের পরিচয় গোপন রাখার জন্য শুধু অ্যানা নামে পরিচিত হতে চান৷ আর নিজের ব্লগ সাইটের নাম রেখেছেন ‘ডেলিট মেইলে'৷ নামটি শুনলে মনে হয় যেন ব্রিটিশ ট্যাবলয়েড ‘ডেলি মেইল' এর সাথে মিল রয়েছে৷ তবে ফরাসি এই শব্দগুচ্ছের অর্থ দাঁড়ায় ‘কর্ম ধারায় বুনন'৷ আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল আইএমএফ-এর সাবেক প্রধান দোমিনিক স্ট্রাউস কান থেকে শুরু করে, ইটালীয় নেতা ব্যার্লুসকোনি, লিবীয় নেতা মুয়াম্মার গাদ্দাফি এবং ফরাসি প্রেসিডেন্ট নিকোলা সার্কোজি পর্যন্ত বিশ্বের বিভিন্ন প্রভাবশালী নেতাদের তিনি তাঁর ব্লগে সমালোচনার সূক্ষ্ণ হুল ফোটান৷

গত মে মাসে স্ট্রাউস কানের যৌন কেলেঙ্কারির ঘটনা নিয়ে যখন বিশ্বজুড়ে তোলপাড় শুরু হয় তখনই এই অভিনব কৌশলে ব্লগিং শুরু করেন অ্যানা৷ তাঁর এই কৌশল লক্ষাধিক ইন্টারনেট ব্যবহারকারীকে আকর্ষণ করতে সক্ষম হয়৷ ডেলিটমেইল ডট ব্লগস্পট ডট কম (delitmail.blogspot.com) ঠিকানার এই ব্লগটিতে এখন পর্যন্ত দর্শক-পাঠকের সংখ্যা এক লাখ বিশ হাজারেরও বেশি৷ প্রায় প্রত্যেক সপ্তাহেই অ্যানা চলমান ঘটনা প্রবাহের আকর্ষণীয় ঘটনা নিয়ে কাপড়, উল, সুঁই, সুতা দিয়ে নানা আকৃতির পুতুল বানিয়ে সেগুলোকে নানা ভঙ্গিমায় সাজিয়ে রাখেন৷ এরপর সেগুলোর ছবি তুলে তা নিজের ব্লগে প্রকাশ করেন৷

তাঁর এই কর্মকৌশল সম্পর্কে অ্যানা বলেন, ‘‘খুব বেশি আঘাত না দিয়ে যে কোন বিষয় নিয়ে মজা করার উপায় এটি৷ দেখুন না, উল কেমন আলতো নরম জিনিস৷ বেশ মজার, তাই না? আপনি যা চান তাই বলতে পারেন অথচ তাতে কেউ খুব বেশি আহত হবে না যতক্ষণ তা উল দিয়ে আবৃত করা থাকছে৷'' অ্যানা প্রথম এমন ব্লগ প্রকাশ করেন ২৪ মে৷ নিউইয়র্কে হোটেল পরিচারিকার সাথে যৌন কেলেঙ্কারির ঘটনায় স্ট্রাউস কান আটক হওয়ার পরপরই তিনি কান'কে নিয়ে প্রথম ব্লগটি প্রকাশ করেছিলেন৷ অবশ্য কান পরবর্তীতে সেই অভিযোগ থেকে মুক্তি পান৷

তবে অ্যানা তাঁর বুনন দক্ষতা কাজে লাগিয়ে তৈরি করেন স্ট্রাউস কান এবং সেই হোটেল পরিচারিকা নাফিসাতু দিয়ালুর আদলে পুতুল৷ একটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে, স্ট্রাউস কান গায়ে শুধু একটি তোয়ালে জড়িয়ে রয়েছেন আর পরিচারিকা দিয়ালু ভয়ে কাঁপছেন৷ এমনকি এই দুই পুতুল দিয়ে চমৎকার ঘটনা প্রবাহ সাজানোর জন্য একটি কৃত্রিম বিলাসবহুল হোটেল কামরাও তৈরি করেছিলেন অ্যানা৷ অন্য একটি ব্লগে দেখা যাচ্ছে মুয়াম্মার গাদ্দাফি আর নিকোলা সার্কোজির আদলে তৈরি পুতুল৷ আইফেল টাওয়ারের সামনে তাঁদের সাক্ষাতের দৃশ্য তুলে ধরা হয়েছে৷ ফুটিয়ে তোলা হয়েছে গাদ্দাফির ফ্রান্স সফরের সময় সার্কোজি ও গাদ্দাফির ভোজন, রসন, কথনের নানা ভঙ্গিমা৷

যাহোক, অ্যানা জানিয়েছেন, তাঁর এই কৌশলের ব্যাপারে তিনি প্রেরণা পেয়েছিলেন মূলত একটি ব্রিটিশ বই-এর শিরোনাম থেকে৷ বইটির নাম ছিল ‘নিট ইয়োর ওন রয়াল ওয়েডিং' অর্থাৎ ‘আপনি নিজেই নিজের রাজকীয় বিয়ের ফোঁড় তুলুন'৷ চলতি বছরের শুরুতে যুক্তরাজ্যের রাজকুমার উইলিয়াম এবং কেট মিডলটনের রাজকীয় বিয়ে উপলক্ষ্যে বইটি প্রকাশিত হয়েছিল৷

প্রতিবেদন: হোসাইন আব্দুল হাই

সম্পাদনা: রিয়াজুল ইসলাম

বিজ্ঞাপন