ব্রেক্সিট সংকটের সমাধানে ইইউ ও ব্রিটেনের উদ্যোগ | বিশ্ব | DW | 13.10.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ব্রেক্সিট

ব্রেক্সিট সংকটের সমাধানে ইইউ ও ব্রিটেনের উদ্যোগ

উত্তর আয়ারল্যান্ডকে ঘিরে সংঘাত মেটাতে ব্রিটেন ও ইইউ কূটনৈতিক উদ্যোগ চালাচ্ছে৷ তবে দুই পক্ষের মধ্যে মৌলিক মতপার্থক্য দূর হবার সম্ভাবনা অত্যন্ত ক্ষীণ৷ বুধবার ইইউ কিছু প্রস্তাব পেশ করছে৷

ব্রেক্সিটের পরেও উত্তর আয়ারল্যান্ডকে কেন্দ্র করে চরম সংঘাত এড়াতে শেষ চেষ্টা চালাচ্ছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও ব্রিটেন৷ ব্রেক্সিট চুক্তির অন্তর্গত নর্দার্ন আয়ারল্যান্ড প্রোটোকল  অনুযায়ী আইরিশ প্রজাতন্ত্র ও ব্রিটেনের এই প্রদেশের মধ্যে স্থলসীমানায় নিয়ন্ত্রণ এড়াতে যে ব্যবস্থা চালু হয়েছে, তার ফলে উত্তর আয়ারল্যান্ডের সঙ্গে ব্রিটেনের বাকি অংশের মধ্যে পণ্য চলাচলে সমস্যা দেখা দিচ্ছে৷ কারণ বিচ্ছেদের পরেও সেই প্রদেশ কার্যত ইউরোপীয় ইউনিয়নের একক বাজার ও শুল্কমুক্ত এলাকার মধ্যেই থেকে গেছে৷ ঘুরপথে ব্রিটেন থেকে ইউরোপীয় ইউনিয়নে শুল্কমুক্ত পণ্য সরবরাহ প্রতিরোধ করতেই এমন ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছিল৷

ব্রিটেনের সরকার ও সংসদ সেই ব্যবস্থা মেনে নিলেও এখন নিয়ম পরিবর্তনের দাবি জানাচ্ছে৷ এমনকি জরুরি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে একতরফাভাবে চুক্তির অংশবিশেষ লঙ্ঘন করার হুমকিও দিচ্ছে বরিস জনসনের সরকার৷ এমনটা ঘটলে ইইউ ব্রিটেনের উপর শাস্তিমূলক শুল্ক চাপিয়ে পালটা পদক্ষেপ নিতে পারে৷

এমনই প্রেক্ষাপটে ব্রিটেন মঙ্গলবার ব্রাসেলসের কাছে নতুন এক আইনি খসড়া পাঠিয়েছে৷ তাতে উত্তর আয়ারল্যান্ডে বাণিজ্য সংক্রান্ত নিয়ম পরিবর্তনের প্রস্তাব রাখা হয়েছে৷ ব্রিটেনের ব্রেক্সিট মন্ত্রী ডেভিড ফ্রস্ট পর্তুগালের রাজধানী লিসবনে এক ভাষণে দাবি করেন, যে তার দেশ নর্দার্ন আয়ারল্যান্ড প্রোটোকলের ভিত্তিতেই নতুন প্রস্তাব পেশ করেছে৷ ইইউ সেই পরিবর্তন মেনে নিলে গোটা ব্যবস্থার স্থায়িত্ব মজবুত হবে৷

ব্রিটেনের প্রস্তাব অনুযায়ী উত্তর আয়ারল্যান্ড ও ব্রিটেনের বাকি অংশের মধ্যে আবার পণ্যের অবাধ চলাচল সম্ভব করতে হবে এবং সেখানে বাণিজ্য সংক্রান্ত বিরোধ মেটাতে ইউরোপীয় আদালতের এক্তিয়ার বাতিল করতে হবে৷ ইইউ-র পক্ষে এমন প্রস্তাব মেনে নেওয়া অসম্ভব বলে মনে করছেন ব্রাসেলসের কূটনীতিক মহল৷ ইইউ কমিশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও ব্রেক্সিটের দায়িত্বপ্রাপ্ত দূত মারোস সেফকোভিচ বুধবারই একটি সমাধানসূত্র পেশ করতে চলেছেন৷ এর আওতায় বর্তমান কাঠামো অটুট রেখেই ব্রিটেনের মধ্যে পণ্য চলাচল আরও সহজ করতে নির্দিষ্ট কিছু পদক্ষেপের প্রস্তাব রাখা হবে বলে শোনা যাচ্ছে৷ বিশেষ করে খাদ্য ও ওষুধপত্রের ক্ষেত্রে এমনকি আরও ছাড় দিতে পারে ব্রাসেলস৷

সংঘাত এড়াতে দুই পক্ষের প্রস্তাব নিয়েই সংশয় রয়েছে৷ ইইউ ব্রেক্সিট চুক্তির কোনো অংশের মৌলিক পরিবর্তন করতে প্রস্তুত নয়৷ অন্যদিকে ব্রিটেন অবাধ অভ্যন্তরীণ বাণিজ্যের দাবিতে অটল৷ তারা নর্দার্ন আয়ারল্যান্ড প্রোটোকলের আমূল সংস্কারের জন্য চাপ বাড়িয়ে চলেছে৷

এসবি/কেএম (ডিপিএ, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়