ব্রুক বন্ডের বিজ্ঞাপনে সাম্প্রদায়িকতার অভিযোগ | বিশ্ব | DW | 02.09.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ভারত

ব্রুক বন্ডের বিজ্ঞাপনে সাম্প্রদায়িকতার অভিযোগ

গত বছর গণেশ দেবতা নিয়ে একটি বিজ্ঞাপন ছাড়ে চায়ের ব্র্যান্ড ব্রুক বন্ড৷ সেখানে এক মুসলিম বিক্রি করছেন হিন্দু দেবদেবীর মূর্তি৷ তা নিয়ে রীতিমত ঝড় উঠেছে নেটিজেনদের মাঝে৷

বিজ্ঞাপনটিতে দেখা যায়, এক ব্যক্তি দেবতা গণেশের মূর্তি কিনতে একটি দোকানে এসেছেন৷ সেখানে বিক্রেতা তাকে নানান মূর্তি দেখাচ্ছেন৷ দেবতা সম্পর্কে বিক্রেতার জ্ঞান দেখে মুগ্ধ হচ্ছেন ক্রেতা৷ এক পর্যায়ে ক্রেতার জন্য চা আনতে পাঠান বিক্রেতা৷ এমন সময় আযান পড়ে৷ আযান শুনে  বিক্রেতাকে মাথায় টুপি দিতে দেখে থমকে যান ক্রেতা৷ তিনি সংশয় নিয়ে বলেন যে, আজ তিনি মূর্তিটি কিনছেন না৷ এমন সময় চা চলে এলে বিক্রেতা চা খেয়ে যাবার অনুরোধ করেন৷ চা খেতে খেতে ক্রেতা জিজ্ঞেস করেন, কেন তিনি মুসলিম হয়ে মূর্তি তৈরি এবং ব্রিক্রি করছেন৷ তখন বিক্রেতা উত্তর দেন, এটিও ইবাদত৷ পরে ক্রেতা মূর্তি কিনতে রাজি হয়ে যান৷

গত বছর সেপ্টেম্বরে এই বিজ্ঞাপনটি ব্রুক বন্ড তাদের ইউটিউব চ্যানেলে ছাড়ে৷ তবে ভিডিওটি হঠাৎই এবারের গণেশ পূজার মৌসুমে ভাইরাল হয়ে গেছে৷ অনেকেই কথা বলছেন বিজ্ঞাপনটি নিয়ে৷

ভিডিওটির নীচে কমেন্টের জায়গায় কেউ কেউ অভিযোগ করেছেন যে, মুসলিমরা কখনো মূর্তিপূজা করতে পারেন না৷ এটা শিরক৷ তাই মুসলিমদের সম্পর্কে দেখানো এই মানসিকতা মোটেও ঠিক নয়৷ অন্যদিকে, অনেক মুসলিমই আবার কমেন্ট করে বলেছেন, এখানে মূর্তিপূজা করার কথা বলা হয়নি৷ ইবাদত বলতে এখানে কাজকে বোঝানো হয়েছে৷ মানুষ আয়ের জন্য যে কাজ করে তা ইবাদত৷

আবার অনেক হিন্দুও বিষয়টি মেনে নেননি৷ তারা বলছেন, একজন হিন্দুকে ‘সেকুলার' হিসেবে দেখানো হয়েছে৷ আসলে ভিন্নভাবে এখানে ‘ইসলামোফোবিয়া' প্রকাশ পেয়েছে৷ অনেকে বলেন, প্রায়ই উৎসবের সময় হিন্দু দেবতাদের আঘাত করা হয়৷ তারা এই ব্র্যান্ডকে বয়কটের ডাক দিয়েছেন৷

এ বিষয়ে ভারতের দৈনিক আনন্দবাজার পত্রিকা খবর প্রকাশ করেছে৷ তারা বলেছে, এ বিষয়ে ব্র্যান্ডটির মালিক হিন্দুস্তান ইউনিলিভারের তরফ থেকে কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি৷

জেডএ/কেএম

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক

বিজ্ঞাপন