ব্রিটিশদের ভরসা রুনি, শঙ্কাও | খেলাধুলা | DW | 08.06.2010
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

ব্রিটিশদের ভরসা রুনি, শঙ্কাও

৪৪ বছর পর আবার বিশ্বকাপ এনে দেবেন ওয়েন রুনি - এমনটাই আশা করছেন ব্রিটিশরা৷ কিন্তু যার ওপর এতো আস্থা, ভয়টা আবার তাঁকে নিয়েই৷ কারণ মেজাজ হারিয়ে কখন কী করে বসেন এ তারকা খেলোয়াড়৷

default

ওয়েন রুনি

বিশ্বকাপ শুরুর আর তিন দিন বাকি৷ দক্ষিণ আফ্রিকায় সোমবার একটি প্রীতি ম্যাচে নেমেছিলো ইংল্যান্ড দল৷ খেলায় রুনি গোল করেছেন, দলও জয় পেয়েছে৷ কিন্তু রেফারির সঙ্গে তিনি যেভাবে বাক-বিতণ্ডায় জড়ালেন, ব্রিটিশদের শঙ্কা সেখানেই৷

রেফারি জেফ সেলোগিলবি তো বলছেন, রুনি তাকে অশ্লীল গালি দিয়েছেন৷ আর এমনটা বিশ্বকাপের খেলায় করলে এ তারকাকে যে বাক্স পেঁটরা গুছিয়ে বাড়ি ফিরতে হবে, তা আগে থেকেই বলে রেখেছেন তিনি৷ রুনি অবশ্য ক্ষমা চেয়ে এ দফা পার পেয়েছেন৷ সাদা পতাকা দেখিয়ে নিজের জার্সিটাও উপহার দিয়েছেন রেফারিকে৷

তবুও ২৪ বছর বয়সি রুনির প্রতি জেফের সতর্কবার্তা, ‘মেজাজটাকে নিয়ন্ত্রণে রেখো বাবা'৷ একইসঙ্গে জানাতে ভুললেন না, রুনির খেলার তিনিও একজন ভক্ত৷ তবে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড তারকার আচরণ তাঁকে হতাশ করেছে৷ অথচ এ খেলার কিছু আগেই ইংলিশ সহঅধিনায়ক ফ্রাঙ্ক ল্যাম্পার্ড শৃঙ্খলা নিয়ে সতীর্থদের বিভিন্ন উপদেশ দিয়েছেন৷ তবে সে সব কথা রুনি যে কানেই তোলেননি, মাঠের ঘটনায় তা স্পষ্ট৷

Flash-Galerie WM-Stars Wayne Rooney

‘‘রুনির মেজাজ যতক্ষণ ঠিক আছে, ততক্ষণই ইংল্যান্ডের আশা থাকবে’’ : ফিল ম্যাকনালটি

এ ধরনের ঘটনা রুনির জন্য অবশ্য নতুন নয়, গত বিশ্বকাপেও পর্তুগালের রিকার্দো কারভালহোকে লাথি মেরে লাল কার্ড দেখেছিলেন তিনি৷ শুধু তাই নয়, সমালোচকরা বলেন, ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে রেফারির সঙ্গে অসদাচরণ করেও রুনি পার পেয়ে যান শুধু তারকা খ্যাতির কল্যাণে৷

তবে বিশ্বকাপে যে তা হবে না, সেটা ল্যাম্পার্ডও ভালোভাবে জানেন৷ তিনি আশা করছেন, মাঠে অন্তত এ ধরনের ঘটনা আর ঘটবে না৷ আগামী শুক্রবারই বিশ্বকাপ ফুটবল মাঠে গড়াচ্ছে৷ ইংল্যান্ডের প্রথম খেলা পরদিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে৷ সি গ্রুপে তাদের সঙ্গে আরও রয়েছে আলজেরিয়া ও স্লোভেনিয়া৷

ইংল্যান্ডের ইতালীয় কোচ ফ্যাবিও কাপেলোর বাজির ঘোড়া হলেন রুনি৷ রুনির আচরণ যে তাঁর কপালের ভাঁজ যে আরও বাড়িয়ে তুলছে, তা ভাবা ভুল হবে না৷ কারণটা জানালেন ব্রিটিশ ক্রীড়ালেখক ফিল ম্যাকনালটি৷ তাঁর ভাষায়, ‘রুনির মেজাজ যতক্ষণ ঠিক আছে, ততক্ষণই ইংল্যান্ডের আশা থাকবে৷ তার এদিক-সেদিক হলে রুনি ডুববে, ডোবাবে দলকেও৷'

প্রতিবেদন: মনিরুল ইসলাম

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন