বোঁজুর ইন্ডিয়া: কলকাতা বইমেলায় ফরাসিয়ানা | বিশ্ব | DW | 01.02.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ভারত

বোঁজুর ইন্ডিয়া: কলকাতা বইমেলায় ফরাসিয়ানা

৩১ জানুয়ারি থেকে ১১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চলবে ৪২তম কলকাতা আন্তর্জাতিক বইমেলা৷ গত মঙ্গলবার এই মেলার উদ্বোধন করেন অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, যাঁকে দেশের সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় খেতাব দিয়ে সম্মানিত করবে ফ্রান্স৷

৪২তম কলকাতা আন্তর্জাতিক বইমেলা এবার পঠন-পাঠনের বাইরে সম্পূর্ণ অন্যতর এক কারণে বিশিষ্টতা অর্জন করেছে৷ এবারের  কলকাতা বইমেলার‘‌থিম'‌ দেশ ফ্রান্স৷ শুধু বইমেলা নয়, এর আগে কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের সময়ও ‘‌ফোকাল থিম'‌ হিসেবে দর্শক-নজরের কেন্দ্রে ছিল ফরাসি চলচ্চিত্র৷ আর এ সবই ছিল ভারত-ফ্রান্স সম্পর্কের ৭০ বছর পূর্তি উৎসব ‘‌বোঁজুর ইন্ডিয়া'‌ উদযাপনের অঙ্গ৷ কলকাতা বইমেলায় এই উৎসবের আনুষ্ঠানিক সমাপ্তি ঘটবে৷ তার সঙ্গে সঙ্গতি রেখেই এবার বইমেলার বৃহত্তম প্যাভিলিয়নটি করেছে ফ্রান্স এবং এই মেলা চলাকালীন ফরাসি সরকার তাদের দেশের সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় খেতাব ‘‌লিজিয়ন অফ অনার'‌ দেবে বর্ষীয়ান অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে৷ কোনো বাঙালি, এমনকি কোনো ভারতীয়ের পক্ষেও বিরলতম এই সম্মান শেষবার পেয়েছিলেন চিত্র পরিচালক সত্যজিৎ রায়৷ সৌমিত্র তাঁরই প্রিয়তম অভিনেতা ছিলেন৷ আন্তর্জাতিক স্তরে পুরস্কৃত সত্যজিতের একাধিক ছবিতে কাজ করেছেন৷

অডিও শুনুন 01:36
এখন লাইভ
01:36 মিনিট

‘বইকে পাহারা দিন আপনারা যাতে কেউ বই বিকৃত করতে না পারে'

তাঁর এই সম্মান প্রাপ্তি কলকাতা তথা পশ্চিমবঙ্গকেও গর্বিত করেছে৷ মঙ্গলবার বইমেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি৷ এবং বিশেষ সম্মান হিসেবে ভারতে ফরাসি রাষ্ট্রদূত আলেকজান্ডার সিগলার-এর উপস্থিতিতে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ই এ দিন প্রথামাফিক কাঠের হাতুড়ি ঠুকে বইমেলার সূচনা ঘোষিত করেন৷ তার আগে তাঁকে রাজ্য সরকারের তরফেও সম্মাননা জানানো হয়৷ মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি এবারের বইমেলায় ফরাসি প্রতিনিধিত্বের প্রশংসা করতে গিয়ে বলেন, ফ্রান্সকে যেমন সারা বিশ্বের সাংস্কৃতিক রাজধানী বলে মনে করা হয়, তেমনই কলকাতা হলো ভারতের সাংস্কৃতিক রাজধানী৷

এদিন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী তাঁর ভাষণে ইতিহাস ও তথ্যের বিকৃতির যে অপচেষ্টা চলছে দেশজুড়ে, তার বিপদ সম্পর্কে সতর্ক করেন৷ বলেন লেখক-সাহিত্যিকদের এক্ষেত্রে দায়িত্ব অনেক৷ তাঁদের সচেতন হতে হবে, অন্যদের সচেতন করতে হবে৷ লেখক-পাঠক, সবার উদ্দেশেই মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘বইকে পাহারা দিন আপনারা৷ যাতে কেউ বই বিকৃত করতে না পারে৷ রাজনীতি, সাহিত্য, সমাজ, সব ধরনের বইয়ের ক্ষেত্রেই সজাগ থাকতে হবে৷''

৪২তম কলকাতা আন্তর্জাতিক বইমেলা এবার ফের জায়গা বদলে হচ্ছে সল্টলেকের সেন্ট্রাল পার্ক লাগোয়া মেলা প্রাঙ্গনে৷ ১২ দিনের এই মেলায় জায়গা পেয়েছে ৫৮০টি স্টল এবং ২০০টির মতো লিটল ম্যাগাজিন৷ ফরাসি লেখকরা ছাড়াও মেলায় অংশ নিচ্ছেন রাশিয়া, কলম্বিয়া, স্পেন, স্কটল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, অ্যামেরিকা, গুয়াতেমালা এবং বাংলাদেশের লেখক ও প্রকাশকরা৷ এবার ৩ ফেব্রুয়ারি দিনটি পালিত হবে বাংলাদেশ দিবস হিসেবে৷ বাংলাদেশের কবি-সাহিত্যিকরা উপস্থিত থাকবেন দিনভর নানা অনুষ্ঠানে৷ পরদিন, অর্থাৎ ৪ ফেব্রুয়ারি পালিত হবে শিশু সাহিত্য দিবস হিসেবে৷  

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

বিজ্ঞাপন