বৈরুতে সংস্কার চায় জার্মানি | বিশ্ব | DW | 10.08.2020

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

লেবানন

বৈরুতে সংস্কার চায় জার্মানি

লেবাননকে ২০ মিলিয়ন ইউরো অর্থ সহায়তা দেবে জার্মানি৷ এ তথ্য জানানোর পাশাপাশি রাজনৈতিক সংস্কারে ভূমিকা রাখতে লেবানন সফরের ঘোষণাও দিয়েছেন হাইকো মাস৷

রবিবার ১৫টি দাতা দেশের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত ভিডিও কনফারেন্সে লেবাননকে ২৫০ মিলিয়ন ইউরো অর্থ সহায়তা দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়৷ ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাক্রোঁর উদ্যোগে জাতিসংঘ আয়োজিত এ জরুরি সভায় মধ্যপ্রাচ্যের দেশটিকে ২০ মিলিয়ন ইউরো দেয়ার অঙ্গীকার করে জার্মানি৷

টুইটারে জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এ অর্থ ‘‘মানবিক সহায়তা থেকে শুরু করে উন্নয়ন সহযোগিতার তহবিল গঠনের জন্য দেয়া হবে৷ বৈরুতের মানুষ আমাদের সহায়তা চায় এবং আশাবাদী হতে চায়৷’’

গত কিছুদিন ধরে বিক্ষোভ চলছে লেবাননে৷ বৈরুতের বিস্ফোরণের পর দুর্নীতি মুক্ত দেশ এবং সরকারের পদত্যাগের দাবিতে বিক্ষোভ আরো জোরদার হয়েছে৷ এ পরিস্থিতিতেই গত বৃহস্পতিবার বৈরুত সফর করেন মাক্রোঁ৷ সফরের সময় লেবাননে রাজনৈতিক সংস্কারে ভূমিকার রাখার আশ্বাসও দেন তিনি৷ 

জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাইকো মাসও বুধবার বৈরুতে যাবেন৷ সফরের উদ্দেশ্য সম্পর্কে ডয়েচলান্ডফুঙ্ককে তিনি বলেন, ‘‘আমরা যে সহায়তা করতে প্রস্তুত তা স্পষ্ট করবো৷ তাছাড়া আমরা বিশ্বাস করি দেশটিতে (লেবানন) সংস্কার হতেই হবে৷’’

বৈরুতের বিস্ফোরণে অন্তত ১৫৮ জন মারা যান৷ আহত হন ছয় হাজারেরও বেশি মানুষ৷ তিন লাখের মতো মানুষকে গৃহহীন করা এ বিস্ফোরণের আগের দিন পদত্যাগ করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী নাসিফ হিতিতি৷ রবিবার সরকারের ব্যর্থতার দায় স্বীকার করে তথ্য মন্ত্রী মানাল আব্দেল সামাদও দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়ান৷

এসিবি/কেএম (রয়টার্স, ডিপিএ)

সংশ্লিষ্ট বিষয়