বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধে আপত্তি নেই ছাত্রকল্যাণ পরিচালকের | বিশ্ব | DW | 10.10.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ

বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধে আপত্তি নেই ছাত্রকল্যাণ পরিচালকের

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধে শিক্ষার্থীরা যে দাবি তুলেছেন তা মেনে নেয়া যায় বলে মত দিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির ছাত্রকল্যাণ পরিচালক মিজানুর রহমান৷

বৃহস্পতিবার ডয়চে ভেলেকে তিনি বলেন, ''ছাত্ররা যেসব দাবি জানিয়েছেন তা মানা কঠিন কিছু না৷ কিছু আছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে, কিছু সরকারের হাতে, সেগুলো সরকার করছে৷ কিন্তু অভিযুক্তদের ছাত্রত্ব বাতিল, ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ করা এগুলো মেনে নেয়া যায়৷ প্রধানমন্ত্রীওতো বলেছেন বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ গলে তাঁর আপত্তি নেই৷''

বুয়েটে ২০০২ সালে একবার ছাত্র রজনীতি নিষিদ্ধ করা হয়েছিল বলেও তথ্য দেন তিনি৷

মিজানুর রহমান বলেন, ‘‘ভিসি মহোদয় সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ছাত্রদের সঙ্গে কাউন্সিল ভবনে মিট করার কথা বলেছেন৷ তবে সেটা হবে কিনা সেটা আমি বলতে পারি না৷ ভিসি স্যার কেন এড়িয়ে চলছেন আমি ঠিক বুঝতে পরছি না৷''

‘‘আসলে ছাত্ররা ভিসি স্যারের সাথে প্রাণ খুলে কথা বলতে চান। তাদের কথা তুলে ধরতে চান, এটা হলেই সংকট কেটে যাবে৷''

আবরার ফাহাদ হত্যাকান্ডের পর বুয়েটের শিক্ষার্থীরা ১০ দফা দাবি আদায়ে লাগাতার আন্দোলন করছেন৷ শিক্ষার্থীদের এসব দাবি পূরণে উপাচার্যের কাছ থেকে এখনো কোনো আশ্বাস পাওয়া যায়নি৷

অডিও শুনুন 01:29

‘অভিযুক্তদের ছাত্রত্ব বাতিল, ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ করা এগুলো মেনে নেয়া যায়’

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের একজন শাকিল আনোয়ার ডয়চে ভেলেকে বলেন, ‘‘আমাদের দাবিগুলোর কয়েকটি আছে যা আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও সরকারের কাছে৷ কিন্তু অধিককাংশ দাবিই পুরণের জন্য ভিসি স্যারকে প্রয়োজন৷ কিন্তু তিনি সরাসরি আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করছেন না৷ ছাত্রকল্যাণ পরিচালকের মাধ্যমে যোগাযোগ করছেন৷

‘‘আজ (বৃহস্পতিবার) সন্ধ্যার মধ্যে তিনি আমাদের সঙ্গে বসবেন বলে খবর দিয়েছিলেন কিন্তু এখানো আসেননি৷ আমাদের দাবি পুরণে তার কোনো আশ্বাসও আমরা পাইনি৷ আমরা শুক্রবার পর্যন্ত সময় দিয়েছি। এরমধ্যে আমাদের দাবি পুরণ না হলে অনির্দিষ্টকালের জন্য বুয়েট বন্ধ করে দেব৷''

শাকিল আনোয়ার বলেন, ‘‘সিসি ক্যামেরার ফুটেজ ধরে যে ১৯ জনকে আসামি করা হয়েছে তাদের মধ্যে ১৩ জন গ্রেপ্তার হলেও বাকিদের গ্রেপ্তার করা হয়নি৷ যথাসময়ে ব্যবস্থা নিলে তারা হয়তো পালাতে পারতেন না৷ আমরা এখনো বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করছি৷ দেখা যাক গ্রেপ্তার, চার্জশিট ও বিচার প্রক্রিয়া কী হয়৷''

অডিও শুনুন 02:26

‘ভিসি স্যার সরাসরি আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করছেন না’

বুয়েটের শেরে বাংলা হল থেকে রোববার রাতে আবরারের লাশ উদ্ধার করা হয়৷ আবরার হত্যাকান্ডের ঘটনার ৩৮ ঘণ্টা পর মঙ্গলবার বিকেলে বুয়েটের উপাচার্য অধ্যাপক সাইফুল ইসলাম শিক্ষার্থীদের সামনে এসে তোপের মুখে পড়েন৷ বুধবার আবরারের গ্রামের বাড়ি কুষ্টিয়ায় গিয়েও বাধার মুখে পড়েন তিনি৷

আবরারের হত্যাকারীদের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আজীবনের জন্য বহিস্কার, বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধসহ ১০ দফা দাবি আদায়ে আন্দোলন করছেন শিক্ষার্থীরা৷

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা শুক্রবারের মধ্যে তাদের ১০ দফা দাবি মেনে নেয়ার সময় বেঁধে দিয়েছেন৷ অন্যথায় প্রশাসনিক এবং অ্যাকাডেমিক ভবনে তালা লাগিয়ে ১৪ অক্টোবর বুয়েটের ভর্তি পরীক্ষাও বানচালের হুকমি দিয়েছেন তারা৷

আন্দোলনরত শিক্ষাথীরা জানান, সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার পর বুয়েটের উপাচার্য সংবাদ মাধ্যমকে বাইরে রেখে তাদের সঙ্গে বৈঠকের প্রস্তাব পাঠান৷ কিন্তু শিক্ষার্থীরা সংবাদ মাধ্যমের উপস্থিতি ছাড়া সেই প্রস্তাব প্রত্যাখান করেছেন৷

এসব বিষয়ে কথা বলতে বিভিন্ন মাধ্যমে বেশ কয়েকবার চেষ্টা করেও বুয়েট উপাচার্যের বক্তব্য পাওয়া যায়িন৷ 

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন