বুসান চলচ্চিত্র উৎসব শেষ হবে বাংলাদেশি ছবি দিয়ে | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 11.09.2012
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

বুসান চলচ্চিত্র উৎসব শেষ হবে বাংলাদেশি ছবি দিয়ে

আগামী মাসে এশিয়ার শীর্ষ চলচ্চিত্র উৎসব অনুষ্ঠিত হচ্ছে৷ হংকং’এর অ্যাকশন থ্রিলার দিয়ে যার শুরু, সেই উৎসব শেষ হবে বাংলাদেশের গ্রামাঞ্চলের নাটক ‘টেলিভিশন’ দিয়ে, যার নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী৷

People watch the opening movie Under the Hawthorn Tree by Chinese director Zhang Yimou during the opening ceremony of the 15th Pusan International Film Festival in Busan, South Korea, Thursday, Oct. 7, 2010. (AP Photo/Yonhap, Jo Jung-hoi) **KOREA OUT**

বুসানে ছবি দেখানো হচ্ছে

অতীতে বুসান ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভাল বা বিফ সাধারণত শেষ হতো কোনো কোরীয় ছবি দিয়ে৷ কিন্তু এবার উদ্যোক্তারা বলেছেন, তারা অঞ্চলের অন্যান্য এলাকার ছবিকেও গুরুত্ব দিতে চান৷ ফেস্টিভাল চলবে ৪ থেকে ১৩ই অক্টোবর৷ ৭৫টি দেশ থেকে আগত ৩০৪টি ছবি দেখানো হবে, যার মধ্যে থাকবে পুরোপুরি উত্তর কোরিয়ায় তোলা রোম্যান্টিক কমেডি ‘‘কমরেড কিম গোজ ফ্লাইং''৷

১৯৯৬ সালে দক্ষিণ কোরিয়ার বুসান শহরে এই চলচ্চিত্র উৎসব শুরু হয়৷ এবার সেখানে ৯০টি ছবির আন্তর্জাতিক মোহরত হচ্ছে৷ যেমন হংকং'এর পুলিশ অ্যাকশন মুভি ‘‘কোল্ড ওয়ার'' দিয়ে ফেস্টিভাল শুরু হচ্ছে৷ এটা কিন্তু আবার একটি মনঃস্তাত্ত্বিক থ্রিলারও বটে, যাতে মানুষের কামনা এবং বিবেকের মধ্যে সংঘাতকে তুলে ধরা হয়েছে৷ ছবিটি এশিয়ার চলচ্চিত্র শিল্পে একটি নতুন অধ্যায়ের সূচনা করবে, বলেছেন ফেস্টিভালের ডাইরেক্টর লি ইয়ং-কোয়ান৷

Japanese director Koji Wakamatsu poses with the Silver Bear award for Best Actress he received on behalf of actress Shinobu Terajima for her role in the film 'Caterpillar' during the press conference after the closing ceremony of the 60th Berlinale International Film Festival in Berlin, Germany, Saturday, 20 February 2010. Up to 400 films are shown every year as part of the Berlinale's public programme. The Berlinale is divided into different sections, each with its own unique profile. Photo: Soeren Stache dpa/lbn

জাপানি পরিচালক কোজি ওয়াকামাতসু

ফারুকী'র ‘‘টেলিভিশন''

বাংলাদেশের নিউ ওয়েভ চিত্রপরিচালকদের মধ্যে অবশ্যই মোস্তফা সরয়ার ফারুকী'র নাম করতে হয়৷ টেলিভিশনের জন্য ভিডিও, টিভি কমার্শিয়াল, ফিচার ফিল্ম, সবই করেছেন৷ রটারডাম, বুসান, আবু ধাবি ইত্যাদি ফিল্ম ফেস্টিভালে তাঁর ছবি দেখিয়েছেন৷ ‘‘ব্যাচেলর'', ‘‘মেড ইন বাংলাদেশ'', ‘‘থার্ড পার্সন সিঙ্গুলার নাম্বার'', এই তিনটি ছবির পর তাঁর চতুর্থ ছবি হল ‘‘টেলিভিশন''৷

ফারুকী পেশাগতভাবে ফিল্ম তৈরীর কাজ শেখেননি, তাঁর সবই নিজে করা, নিজে শেখা৷ আভঁ গার্দ ফিল্ম নির্মাতাদের সংগঠন ‘ছবিয়াল'-এর প্রতিষ্ঠাতা৷ ‘‘টেলিভিশন'' তৈরীর জন্য ফরাসি এবং জার্মান অর্থসাহায্য পেয়েছেন, পেয়েছেন অপরাপর ইউরোপীয় সহকারী৷

‘এশিয়ান ফিল্মমেকার অফ দ্য ইয়ার'

বুসান ফেস্টিভালের সবচেয়ে বড় সম্মানটি এবার পাচ্ছেন প্রবীণ জাপানি চিত্রপরিচালক কোজি ওয়াকামাৎসু৷ ফেস্টিভালের অবকাশে তাঁর তিনটি ছবি দেখানো হবে: ‘‘মিশিমা'', ‘‘দ্য মিলেনিয়াল ব়্যাপচার'' এবং ‘‘পেট্রেল হোটেল ব্লু''৷

উৎসবের শুরুতে এবং শেষে যেমন বিদেশি ছবি, তেমনই এ'বছর ফেস্টিভালের হোস্ট হচ্ছেন - এই প্রথমবার - একজন অ-কোরীয়, চীনা অভিনেত্রী তাং ওয়েই, যিনি আং লি'র রগরগে যুদ্ধকালীন কাহিনি ‘‘কামনা, সাবধানতা''র নায়িকা ছিলেন৷

এসি / এসবি (এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন