1. কন্টেন্টে যান
  2. মূল মেন্যুতে যান
  3. আরো ডয়চে ভেলে সাইটে যান

বিশ্ব সাঁতার চ্যাম্পিয়নশিপে এবার রেকর্ডের ছড়াছড়ি নেই

২৯ জুলাই ২০১১

বিশ্ব সাঁতার চ্যাম্পিয়নশিপের প্রায় শেষ পর্যায় চলছে এখন৷ কিন্তু গতবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে যেমন ছিল রেকর্ডের ছড়াছড়ি, এবার পরিস্থিতি পুরো ভিন্ন৷ কারণ হিসেবে আলোচনায় আবারও ফিরে এসেছে নিষিদ্ধ হওয়া হাইটেক সুইমস্যুট প্রসঙ্গ৷

https://p.dw.com/p/12648
মাইকেল ফেল্পসের সুইমস্যুট নিষিদ্ধ হওয়ায় রেকর্ড কমে গেছেছবি: AP

বিগত ২০০৮ সালের বেইজিং অলিম্পিক এবং পরের বছর রোমে বিশ্ব সাঁতার চ্যাম্পিয়নশিপে যে সুইমস্যুটটি দেখা গিয়েছে এবার সেটি অনুপস্থিত৷ অনেকেরই মনে আছে, বেইজিং অলিম্পিকে মাইকেল ফেল্পসের পরণের সুইমস্যুটটির কথা৷ গা ঢাকা সেই হাইটেক পলিউরিথেন সুইমস্যুটটি আরও অনেককে ব্যবহার করতে দেখা গিয়েছিল৷ একের পর এক বিশ্ব রেকর্ডের কারণ খুজতে দেখা গেল এই হাইটেক সুইমস্যুট পানিতে দ্রুত সাঁতার কাটতে সহায়তা করে৷ বেইজিং অলিম্পিকের পর রোমে প্রায় সবার পরণেই ছিল এই হাইটেক সুইমস্যুট৷ আর সেবার সাঁতারে বিশ্ব রেকর্ডের তোড়ে ভেসে গিয়েছিল রোম৷ মোট ৪৩টি বিশ্ব রেকর্ড হয়ে সেবারের বিশ্ব সাঁতার চ্যাম্পিয়নশিপে৷ আর তাতে টনক নড়ে আন্তর্জাতিক সাঁতার সংস্থা ফিনার৷ ২০১০ সালের জানুয়ারি মাসে এই হাইটেক সুইমস্যুট নিষিদ্ধ করে তারা৷ আর তাতে কপাল পোড়ে অনেক সাঁতারুর৷ যার প্রমাণ এবারের শাংহাই প্রতিযোগিতা৷ কারণ বেইজিং অলিম্পিকের সোনাজয়ী অনেক সাঁতারু এবার হিটে বাদ পড়েছেন, এমন ঘটনাও ঘটেছে৷

তবে যে বিষয়টি নিয়ে শঙ্কার তৈরি হয়েছিল সেটি হচ্ছে, বিশ্ব রেকর্ড নিয়ে৷ হাইটেক এই সুইমস্যুটের সহায়তা নিয়ে সাঁতারুরা যেসব বিশ্ব রেকর্ড করেছেন, সাধারণ সুইমস্যুট পরে সেগুলো আদৌ ভাঙা সম্ভব হবে কিনা তা নিয়ে অনেকের মনে সন্দেহ রয়েছে৷ কিন্তু শেষ পর্যন্ত আশার বাণী নিয়ে এসেছেন মার্কিন তারকা রায়ান লখটে৷ বর্তমান বিশ্বের সেরা সাঁতারু হিসেবে পরিচিত মাইকেল ফেল্পসকে একবার নয়, দুই-দুই বার পেছনে ফেলে দিয়েছেন এই সাঁতারু৷ গত সোমবার প্রথম ২০০ মিটার ফ্রিস্টাইল এবং বৃহস্পতিবার ২০০ মিটার মেডলেতে তিনি ফেল্পসকে পেছনে ফেলে সোনা জিতেছেন৷ তবে তার চেয়েও বড় খবর হলো, বৃহস্পতিবার নিজের গড়া বিশ্বরেকর্ডটি নিজেই ভেঙেছেন৷ আর হাইটেক সুইমস্যুট ছাড়াও যে আরও দ্রুত সাঁতার কাটা যায় সেটি প্রমাণ করে ছেড়েছেন৷

প্রতিবেদন: রিয়াজুল ইসলাম

সম্পাদনা: আবদুল্লাহ আল-ফারূক