বিশেষ জিনের কারণেই অত উঁচুতে তিব্বতীরা | বিজ্ঞান পরিবেশ | DW | 05.07.2010
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

বিশেষ জিনের কারণেই অত উঁচুতে তিব্বতীরা

অনেক উচ্চতায় বসবাস করার জন্য এক বিশেষ ধরণের জিন-এর মালিক তিব্বতীরা৷ গবেষণায় জানা গেল, বিশেষ এই জিন না থাকলে অত অল্পমাত্রায় অক্সিজেনের সাহায্যে বাঁচা সম্ভব নয়৷ তিব্বতীদের শরীরে রয়েছে সেই বিরল জিন৷

default

ফাইল ছবি

ব্যাপারটা জানা গেল এই তো হালে৷ তিব্বতীরা যে বহু উঁচুতে, সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে তেরো হাজার ফুট ওপরে অত্যন্ত কম অক্সিজেনের সাহায্যে কী করে অবলীলায় থাকে, তা নিয়ে গবেষণা চলছিল বহুদিন থেকেই৷ সম্প্রতি ‘দ্য সায়েন্স ম্যাগাজিন'-এ প্রকাশিত একটি নিবন্ধ বেশ চমক দিল এ বিষয়ে বিশদ জানিয়ে৷

নিবন্ধটি প্রকাশ করেছেন ‘ইউনিভার্সিটি অফ ক্যালিফোর্নিয়া বার্কলে বায়োলজি' অধ্যাপক রাসমুস নিয়েলসেন৷ সংবাদসংস্থা এএফপিকে নিয়েলসেন জানাচ্ছেন, তিব্বতীদের জিনের রূপান্তর ঘটেছে অবিশ্বাস্য দ্রুতগতিতে৷

আজ থেকে ২৭৫০ বছর আগে তিব্বতী আর হান চীনা জনগোষ্ঠী দুটি ভাগে ভাগ হয়ে হিমালয়ে বসবাস করতে শুরু করে৷এদের মধ্যে হান চীনারা চলে যায় নীচু এলাকায় আর তিব্বতীরা চলে যায় হিমালয়ের ওপরের দিকে৷ তিব্বতীদের ক্ষেত্রে দেখা যায় অতি দ্রুত ওই বিপুল উচ্চতায় বসবাস করার জন্য জিনগত প্রস্তুতি সম্পূর্ণ হয়ে যায় তাদের৷ এবং বিজ্ঞানের কাছে সেটাই বেশ বিস্ময়ের ব্যাপার৷

বিস্ময় জিনের রূপান্তরে৷ অধ্যাপক নিয়েলসেনের মতে, সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে প্রায় চার হাজার মিটার বা ১৩ হাজার ফিট ওপরে যেখানে তিব্বতীরা বসবাস করে, সেখানে সাধারণ জায়গার অনুপাতে অক্সিজেনের মাত্রা শতকরা ৪০ ভাগ কম৷ এত কম অক্সিজেনে মানুষের পক্ষে জীবনধারণ শুধু কষ্টকরই নয়, ক্ষেত্রবিশেষে নানান রোগের কারণ হয়ে ওঠে৷ এই রোগগুলি হল স্কিৎজোফ্রেনিয়া, মৃগী, গর্ভস্থ ভ্রূণের সমস্যা ইত্যাদি৷ কিন্তু, তিব্বতীদের জিনের মধ্যে তিরিশটি এমন বিশেষত্বের সন্ধান পাওয়া গেছে, যার সাহায্যে এত অল্প অক্সিজেনেও সুস্থ হয়ে বেঁচে থাকা সম্ভব৷ সেটাই তাদের বৈশিষ্ট্য৷

সদ্য আবিষ্কৃত এই জিনকে ইপিএএসওয়ান নামের অন্য একটি জিনের সঙ্গে তুলনা করেছেন নিয়েলসেন৷ ইপিএএসওয়ান আসলে ‘সুপার অ্যাথলেটিক জিন'৷ বেশ কয়েক বছর আগে সেটা আবিস্কার হয়েছিল৷ ইপিএএসওয়ান নামের ওই সুপার অ্যাথলেটিক জিনের কাজ হল বাতাসে পাওয়া অল্পমাত্রার অক্সিজেন থেকেই শরীরের প্রয়োজনীয় কাজকর্ম চালিয়ে নেওয়া৷ সাধারণ মানুষজনের যেখানে মাথা ধরবে বা সহজে দমবন্ধ হয়ে আসবে, সেখানে এই বিশেষ জিনের মালিকরা তাতে মোটেই কোন সমস্যা বোধ করবে না৷

নিয়েলসেন জানিয়েছেন, তিব্বতীদের মধ্যে শতকরা হিসেবে নব্বইজনের শরীরে এই বিশেষ জিন রয়েছে৷ সুতরাং তারা যে উচ্চতার কারণে ঘাবড়াবে না, তাতে আর সন্দেহ কী?

প্রতিবেদন: সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়

সম্পাদনা : আবদুল্লাহ আল ফারূক

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন