বিমানে এখন যেমন দেশ তেমন নিয়ম | বিশ্ব | DW | 19.05.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিমানযাত্রা

বিমানে এখন যেমন দেশ তেমন নিয়ম

করোনা ভাইরাস সবার জন্য সমান৷ কিন্তু করোনা থেকে যাত্রীদের দূরে রাখতে একেক দেশের বিমান চলছে একেক নিয়মে৷

করোনাভাইরাস এখনো কোনো দেশ থেকে একেবারে নিশ্চিহ্ন হয়ে যায়নি৷ সংক্রমণ আর মৃত্যু কোথাও কোথাও কমলেও স্বাস্থ্যবিধি সবার জন্য একই আছে৷ কিন্তু সব দেশের বিমানে সব নিয়ম সমানভাবে মানা হচ্ছে না৷

বিভিন্ন দেশে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট চালু হয়েছে৷ বেশিরভাগ দেশে বিমানে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক৷ তবে মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়ার মতো কিছু দেশে দু'জন যাত্রীর মাঝের একটি আসন ফাঁকা রেখে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা হয়৷ সামাজিক দূরত্ব বজায় থাকলে বিমানে মাস্ক ব্যবহার করার দরকার পড়ে না৷ অবশ্য যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপের দেশগুলো এখনো বিমানের ভেতরে কোনো আসন ফাঁকা রাখা বাধ্যতামূলক করেনি৷

চীনের অভ্যন্তরীণ বিমান চলাচলও চলছে একই নিয়মে৷ বিমানে প্রবেশের আগে এবং বিমান থেকে নামার সময় তাপমাত্রা মেপে দেখাসহ অনেক সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেয়া হলেও বিমানে কোনো আসন ফাঁকা রাখতে হয় না৷

কম যাত্রী নিলে টিকিটের দাম না বাড়িয়ে ক্ষতি এড়ানো সম্ভব নয়৷  করোনার কারণে সারা বিশ্বে অর্থনৈতিক সংকট দেখা দিয়েছে৷ এই পরিস্থিতিতে টিকিটের দাম বাড়াতে পারছে না বিমান সংস্থাগুলো৷ ফলে খরচ কমাতে গিয়ে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটে খাবার পরিবেশন বন্ধ করেছে অনেক সংস্থা ‌৷ থাইল্যান্ডে বিমানের ভিতরে এখন আর খাবার বা পানি দেয়া আপাতত বন্ধ৷ অন্যান্য দেশে খাবারের খরচ কমাতে নেয়া হয়েছে অন্য রকম উদ্যোগ৷ এমিরেটস, এয়ার ক্যানাডা এবং ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের মতো বিমান সংস্থাও ইতিমধ্যে বিজনেস ক্লাসের যাত্রীদের প্যাকেটে নির্দিষ্ট কয়েকটি আইটেম দিতে শুরু করেছে৷

এসিবি/কেএম (রয়টার্স)

১০ মে’র ছবিঘরটি দেখুন...

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন