বিদ্রুপের মুখে ইন্দোশিয়ার গারুদা এয়ারলাইনস | বিশ্ব | DW | 19.07.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিশ্ব

বিদ্রুপের মুখে ইন্দোশিয়ার গারুদা এয়ারলাইনস

যাত্রীদের হাতে লেখা খাবারের মেনু দিয়েছিলেন বিমানের কেবিন ক্রুরা৷ বিজনেস ক্লাসে উপস্থিত এক ভ্লগারের চোখ এড়ায়নি বিষয়টি৷ নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে হাতে লেখা মেন্যুর একটি ছবি পোস্ট করেন তিনি৷

হাতে লেখা খাবারের সেই মেনু

হাতে লেখা খাবারের সেই মেনু

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারকারীদের হাসির খোরাক হয়ে উঠে এ ছবি৷

সিডনি থেকে ইন্দোনেশিয়া ফিরছিল বিমানটি৷ নিয়ম অনুযায়ী যাত্রীদের খাবার মেনু বিতরণ করছিলেন অ্যাটেন্ডেন্টরা৷ তবে এ খাবারের মেন্যুটি ছিল নোটবুকের কাগজে হাতে লেখা অক্ষরে৷ বিষয়টি নজরে আসে বিমানে থাকা রিউস ভেরনান্দেস নামে এক সোশ্যাল মিডিয়া একটিভিস্টের৷ হাতে লেখা মেনুর একটি ছবি তুলে তিনি আপলোড করেন ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে৷ রিউস ভেরনান্দেসের রয়েছে প্রায় এক লাখ ফলোয়ার৷ মুহূর্তের মধ্যেই মেন্যুর ছবি ছড়িয়ে পড়ে বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে৷ আর শুরু হয় গারুদা এয়ারলাইন্স নিয়ে কে হাস্যকর সব মন্তব্যের৷

তবে বিষয়টি মানতে পারেননি বিমান কর্তৃপক্ষ৷ নিজেদের টুইটার অ্যাকাউন্টে তারা দাবি করেন, হাতে লেখা এ মেন্যু যাত্রীদের জন্য নয় বরং ফ্লাইটকর্মীদের জন্য লেখা হয়েছিল৷ পাশাপাশি এ ঘটনার জন্য রিউস ভেরনান্দেসের বিরুদ্ধে একটি মানহানির মামলাও করেন তারা৷ শুধু কি তাই! বিমানের ভেতরে যাত্রীরা যেন ছবি তুলতে না পারে সে বিষয়ক নির্দেশনা দেয়া হয়৷

গারুদা কর্তৃপক্ষের এমন পদক্ষেপের প্রতিবাদ জানায় অনেকেই৷ নিজেদের ব্যর্থতা লুকাতেই নাকি এমন পদক্ষেপ নিয়েছে বিমান কর্তৃপক্ষ, দাবি তাদের৷ প্রতিবাদের মুখে পিছু হটেছেছে কর্তৃপক্ষ৷ তবে বিমানের ভেতরে ছবি উঠানোর সময় অন্যদের ব্যক্তিগত গোপনীয়তা বিষয়টিকে বিবেচনায় নিতে অনুরোধ জানায় যাত্রীদের৷

আরআর/কেএম (রয়টার্স, ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন