বিদেশি বিনিয়োগ ইস্যুতে উৎরে গেল সরকার | বিশ্ব | DW | 05.12.2012
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বিশ্ব

বিদেশি বিনিয়োগ ইস্যুতে উৎরে গেল সরকার

খুচরো ব্যবসায় বিদেশি বিনিয়োগ নিয়ে সংসদের নিম্নকক্ষ লোকসভাতে দু’দিন ধরে বিতর্ক চলার পর বুধবার ভোটাভুটিতে সরকারপক্ষ জিতে যায়৷ এফডিআই সমর্থনে ভোট পড়ে ২৫৩, আর বিপক্ষে ২১৮৷ এসপি ও বিএসপি ভোটদানে বিরত ছিল৷

খুচরো ব্যবসায় প্রত্যক্ষ বিদেশি লগ্নি নিয়ে সরকার ও বিপক্ষ দলের মধ্যে দু'দিন ধরে চলা বিতর্ক শেষে বুধবার ঐ প্রস্তাবের ওপর ভোটাভুটি হয়৷ এফডিআই-এর পক্ষে ভোট পড়ে ২৫৩ এবং বিপক্ষে ২১৮টি৷ পক্ষে ভোট দেয় কংগ্রেস ছাড়া শরিক দল ডিএমকে, এনসিপি, আরজেডি ও জেডি-এস৷ বিপক্ষে ছিল বিজেপি ছাড়া বাম, তৃণমূল, এআইএডিএমকে ও বিজেডি৷ ভোটদানে বিরত থেকে মুলায়েম সিং-এর এসপি এবং মায়াবতীর বিএসপি, যারা কার্যত সরকারকে জিতিয়ে দেয়৷ এসপি ও বিএসপি ভোট না দেয়ায় লোকসভার সদস্য সংখ্যা দাঁড়ায় ৪০৭৷ এফডিআই-এর পাশাপাশি বিদেশি মুদ্রা নিয়ন্ত্রণ আইন ‘ফেমার' একটি ধারা সংশোধনও ভোটাভুটিতে পাশ হয়ে যায়৷

এর আগে সরকার ও বিরোধী শিবিরের সাংসদরা এফডিআই-এর পক্ষে ও বিপক্ষে নিজেদের বক্তব্য রাখেন৷ সিপিএম সাংসদ বাসুদেব আচার্য মনে করেন, উৎপাদন মূল্য ও গ্রাহক মূল্যের মধ্যে বিস্তর ফারাক৷ এর জন্য দায়ী সরকারের নীতি৷ এ জন্য না কৃষকরা, না গ্রাহকরা উচিত দাম পাবে৷

সরকারের বাণিজ্য ও শিল্পমন্ত্রী তাঁর বক্তব্যে বলেন, ২১টি রাজ্য সরকারকে এফডিআই সম্পর্কে চিঠি দেয়া হয়েছিল, তারমধ্যে ১১টি রাজ্য তা সমর্থন করে এবং ৭টি রাজ্য বিরোধীতা করে এবং ৩টি রাজ্য নিরুত্তর থাকে৷ তার মানে সংখ্যাগরিষ্ঠ রাজ্য এর পক্ষে৷ এছাড়া কৃষি ও গ্রাহক সংগঠনের সঙ্গে মত বিনিময় হয়৷ তারাও এর পক্ষে মত প্রকাশ করে৷

এনসিপি নেতা বলেন, আজকের পরবর্তিত পরিস্থিতিতে এফডিআই নীতির কথা মাথায় রাখতে হবে৷ শিবসেনা সাংসদের মতে, ৫১ শতাংশ বিদেশি বিনিযোগ এলে ২৫ কোটি ছোট ব্যবসায়ী এবং কৃষিজীবী মার খাবে৷

আসলে সংসদে এফডিআই ইস্যুতে ভোটাভুটির দাবি তুলে সরকারকে অপদস্থ করতে চেয়েছিল বিজেপি ও বামদল৷ কিন্তু সেটা বুমেরাং হয়ে মনমোহন সিং-এর সুযোগ করে দিল৷ সরকারকে আত্মবিশ্বাস এনে দিল৷ তবে কাঁটা একটা রয়ে গেছে৷ উচ্চকক্ষ রাজ্যসভাতে সরকারের সংখ্যাগরিষ্ঠতা নেই৷ সেটার মোকাবিলা করতে কোমর কষে নেমে পড়েছে সরকার বন্ধুদলগুলিকে পাশে পেতে৷

খুচরো ব্যবসায় বিদেশি লগ্নির শর্তগুলির মধ্যে কমপক্ষে ১০কোটি মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করতে হবে৷ এবং তার ৫০ শতাংশ করতে হবে গ্রামাঞ্চলে৷ কমপক্ষে ৩০ শতাংশ মালপত্র কিনতে হবে স্থানীয় স্তরে৷ কোনো রাজ্য চাইলে অবশ্য বিদেশি বিনিয়োগের অনুমতি নাও দিতে পারে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন