বায়ু দূষণ: দিল্লিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ স্কুল | NRS-Import | DW | 03.12.2021
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ভারত

বায়ু দূষণ: দিল্লিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ স্কুল

বায়ু দূষণের মাত্রা এখনো বিপদসীমার উপরে। শুক্রবার থেকে ফের স্কুল বন্ধের সিদ্ধান্ত সরকারের।

দীপাবলির পর দিল্লির বায়ু দূষণ এতটাই ভয়াবহ পর্যায়ে পৌঁছে গিয়েছিল যে সাময়িক সময়ের জন্য স্কুল-কলেজ বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল সরকার। গত সোমবার থেকে ফের তা চালু হয়েছিল। কিন্তু বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্ট দিল্লি সরকারের কাছে স্কুল খোলার কারণ জানতে চায়। দূষণের মাত্রা না কমা সত্ত্বেও কেন স্কুল খোলা হয়েছে, সে বিষয়ে প্রশ্ন করা হয়। এরপরেই শুক্রবার থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য স্কুল বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয় দিল্লি প্রশাসন।

আদালতে দিল্লি সরকার জানিয়েছে, আবহাওয়া দফতর জানিয়েছিল, চলতি সপ্তাহে দূষণের পরিমাণ কমার সম্ভাবনা আছে। সে কথা মাথায় রেখেই স্কুল খোলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু দূষণের মাত্রা যেহেতু এখনো কমেনি, তাই ফের স্কুল বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। পরবর্তী নোটিস না বের হওয়া পর্যন্ত স্কুল বন্ধ থাকবে। তবে অনলাইন ক্লাস চলবে।

কোভিডকালে গোটা দেশেই দীর্ঘ সময়ের জন্য স্কুল কলেজ বন্ধ ছিল। প্রায় ১৮ মাস পরে নভেম্বর মাসে একে একে বিভিন্ন রাজ্য স্কুল খুলতে শুরু করে। দিল্লিতেও একইভাবে স্কুল শুরু হয়েছিল। কিন্তু প্রতি বছরের মতো এবারেও দীপাবলির সময়ে দিল্লিতে বায়ু দূষণের মাত্রা ছাড়িয়ে যায়। শত নিষেধ সত্ত্বেও লাগামছাড়া বাজি ফাটিয়েছে সাধারণ মানুষ। এরপরেই তড়িঘড়ি স্কুল বন্ধের সিদ্ধান্ত নিতে হয়। আদালতও জানিয়ে দেয়, এই পরিস্থিতিতে স্কুল-কলেজ বন্ধ রাখতে হবে। সরকারি এবং বেসরকারি অফিসগুলিকেও ওয়ার্ক ফ্রম হোমের পরামর্শ দেওয়া হয়।

স্কুলের শিক্ষক এবং ছাত্রদের একাংশের বক্তব্য, করোনার জন্য এমনিতেই পড়াশোনা ঠিকমতো হয়নি। অনলাইনে ক্লাসে কাজ চালাতে হয়েছে। এখন যখন স্কুল খোলার সুযোগ তৈরি হয়েছিল, তখন গোদের উপর বিষফোঁড়ার মতো দূষণ এসে জুটেছে। এর ফলে পড়াশোনার ক্ষতি হচ্ছে। দূষণের জন্য যারা দায়ী কেন তাদের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করা হচ্ছে না, পড়ুয়াদের মধ্যে এই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

এসজি/জিএইচ (পিটিআই, এনডিটিভি)