বাড়ছে সফল করোনা প্রতিষেধকের আশা | বিশ্ব | DW | 16.11.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

করোনার টিকা

বাড়ছে সফল করোনা প্রতিষেধকের আশা

করোনা প্রতিষেধকের দৌড়ে আরো একধাপ এগুলো গবেষণা৷ এবারে শিরোনামে মার্কিন সংস্থা মডার্না ইনকর্পোরেটেডের প্রতিষেধক৷

মার্কিন সংস্থা মডার্না ইনকর্পোরেটেডের প্রতিষেধক এখন পর্যন্ত ৯৪ দশমিক ৫ শতাংশ ক্ষেত্রে সফলভাবে করোনা ভাইরাস ঠেকাচ্ছে, বলে জানাচ্ছে সংবাদসংস্থা রয়টার্স৷ এই প্রতিষেধকটি বর্তমানে শেষ পর্যায়ের পরীক্ষা-নিরীক্ষার মধ্য দিয়ে যাচ্ছে৷

এই মুহূর্তে, প্রতিষেধক তৈরির বিশ্বব্যাপী দৌড়ে এটি দ্বিতীয় আশা জাগানো খবর৷ এর আগে বায়োনটেক ও ফাইজারের প্রতিষেধকের ৯০ শতাংশ সাফল্যের খবর পাওয়া গিয়েছিল৷

সব পরীক্ষা পেরোতে পারলে বায়োনটেক-ফাইজার ও মডার্নার দু'টি প্রতিষেধকের ছয় কোটি ডোজ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে জরুরি পরিস্থিতিতে ব্যবহারের জন্য ডিসেম্বর মাসেই পাওয়া যেতে পারে৷ এই সংখ্যাই আগামী বছরে গিয়ে দাঁড়াবে ১০০ কোটি ডোজে, যা অ্যামেরিকার ৩৩ কোটি জনসংখ্যার প্রয়োজনের চেয়ে অনেকটাই বেশি৷

সংবাদসংস্থা রয়টার্সকে একটি টেলিফোন সাক্ষাৎকারে মডার্নার প্রেসিডেন্ট স্টিফেন হজ জানান, ‘‘কোভিড-১৯ থামাতে পারে এমন প্রতিষেধক আমরা পেতে চলেছি৷’’

মডার্নার এই ঘোষণা যে পরীক্ষার ফসল, সেই পরীক্ষায় মোট ৯৫জন করোনা ভাইরাসের সংস্পর্শে আসা ব্যক্তির ওপর প্রতিষেধকটি ব্যবহৃত হয়৷ দেখা যায়, এর মধ্যে মাত্র পাঁচজনের মধ্যে সংক্রমণ লক্ষ্য করা যায়৷

মডার্নার প্রতিষেধক বায়োনটেক-ফাইজারের প্রতিষেধকের তুলনায় বেশি তাপমাত্রায় রাখা যেতে পারে, ফলে এই প্রতিষেধককে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দেওয়াটা আরো সহজ হবে বলে মনে করছেন অনেকে৷

এডিনবরা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ইলিয়ানর রাইলি বলেন, ‘‘একটার বেশি কার্যকর প্রতিষেধকের সম্ভাবনা যেহেতু রয়েছে, তাতে করে ২০২১ সালে এখনের চেয়ে কিছুটা স্বাভাবিক জীবনের দিকে যেতে পারব আমরা, এমনটা আশা করা যাচ্ছে৷''

জার্মানিতে যেভাবে প্রতিষেধক দেওয়া হবে

জার্মান পত্রিকা বিল্ড আম জনটাগ জানিয়েছে যে ডিসেম্বর মাস থেকে দেশজুড়ে কয়েকশ' করোনা প্রতিষেধক প্রদান সেন্টার তৈরির কাজ শুরু করবে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়৷ বায়োনটেক-ফাইজারের প্রতিষেধক তৈরির কাজে প্রাথমিক সাফল্যের খবর প্রকাশ হবার পরই এই কাজের ঘোষণা দিয়েছে জার্মান সরকার৷

২০২১ সালে সেই প্রতিষেধক প্রদানের কাজ শুরু হবে এই আশায় ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন ইতিমধ্যে ৩০ কোটি প্রতিষেধক ডোজ কিনতে বায়োনটেক-ফাইজারের সাথে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে৷

এসএস/কেএম (রয়টার্স, বিল্ড আম জনটাগ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন