বাস্তবের সুপারহিরো যখন ‘স্পাইডার ম্যান’ | বিশ্ব | DW | 29.05.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ভাইরাল ভিডিও

বাস্তবের সুপারহিরো যখন ‘স্পাইডার ম্যান’

প্যারিসের একটি বহুতল বাড়ি থেকে ঝুলন্ত এক শিশুকে উদ্ধার করে সারা শহরের নজর কেড়েছেন জনৈক অভিবাসী যুবক৷ শহরে তিনি হয়ে উঠেছেন সত্যিকারের ‘স্পাইডার ম্যান’৷ স্বয়ং প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাক্রোঁ তাঁকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন৷

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাক্রোঁর সঙ্গে মামুদু গাসামা

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাক্রোঁর সঙ্গে মামুদু গাসামা

সুপারহিরোরা কমিক্সে বা রূপকথায় নয়, তাঁরা থাকেন বাস্তবেই৷ চারপাশের চেনা-অচেনা মানুষেরাই অদম্য সাহস আর ইচ্ছের জোরে কখনও কখনও আমাদের চোখে হয়ে ওঠেন সুপারহিরো৷ সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিওর কারণে জনগণ এমনই এক সুপারহিরোর সন্ধান পেলেন৷ প্যারিসের মেয়র এবং মন্ত্রী সহ খোদ প্রেসিডেন্টও তাঁকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন৷   

শনিবার প্যারিসের এক বহুতল বাড়িতে চার বছরের একটি শিশু কোনোভাবে পা পিছলে ঝুলন্ত অবস্থায় আটকে ছিল৷ সে সময় শিশুটির বাবা-মা বাড়িতে ছিলেন না৷ তাকে উদ্ধার করার জন্য দমকল কর্মীদের খবর দেওয়া হয়৷ দমকল আসতে দেরি হওয়ায় নীচে উত্তেজিত জনতার মধ্যে থেকে তরুণ মামুদু গাসামা দেরি না করে বহুতল বাড়ি বেয়েই উপরে উঠতে শুরু করে৷ অনেকটা স্পাইডার ম্যানের কায়দাতেই তিনি রেলিং বেয়ে উপরে উঠতে থাকেন৷ তাঁর ঐকান্তিক চেষ্টায় শেষ পর্যন্ত শিশুটিকে সুরক্ষিতভাবে উদ্ধার করা হয়৷ বলা বাহুল্য, এতে সারা শহরবাসী খুব খুশি যুবকটির ওপর৷

নিজের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে শিশুটিকে উদ্ধার করতে তৎপর হয়েছিলেন মালির অভিবাসী ২২ এই বছরের যুবক৷ ভাইরাল ভিডিওতে সেটা দেখে ফরাসি মন্ত্রী ক্রিস্টোফ কাস্টান্যার সোশ্যাল মিডিয়ায় গাসামার প্রশংসা করেন৷ গাসামার বীরত্ব প্যারিসের মেয়র অ্যান হিডালগোকেও মুগ্ধ করে৷ তিনি জানান, গাসামা যাতে পাকাপাকিভাবে প্যারিসে থাকতে পারেন, সে দিকটা দেখা হবে৷ তাঁর স্বপ্নপূরণ করার জন্য শহরবাসী সাহায্য করবে৷ মেয়র নিজে তরুণকে ফোন করে ধন্যবাদও জানান৷

সব শেষে গাসামার বীরত্বের কথা পৌঁছায় ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাক্রোঁর কানে৷ তারপর কী হয়? জানা যায়, প্যারিসে একজন অভিবাসীর পরিচয়ে আর থাকতে হবে না গাসামাকে৷ কারণ ঘটনার দু'দিন পর, অর্থাৎ সোমবারই গাসামাকে ডেকে পাঠান প্রেসিডেন্ট৷ তিনি ফ্রান্সের নাগরিকত্ব দিয়েছেন গাসামাকে৷ শোনা যাচ্ছে, তাঁকে দমকলে কাজের প্রস্তাবও দেওয়া হয়েছে৷

আপাতত ভাইরাল ভিডিওর দৌলতে শহরে দারুণ সেলিব্রিটি মামুদু গাসামা৷ খবরের কাগজ সহ টিভি চ্যানেলেও তাঁকে দেখা যাচ্ছে৷

পিএস/ডিজি

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন