বার্সেলোনায় সন্ত্রাসী হামলার পর বিশ্বনেতাদের সংহতি | বিশ্ব | DW | 18.08.2017
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

স্পেন

বার্সেলোনায় সন্ত্রাসী হামলার পর বিশ্বনেতাদের সংহতি

স্পেনের বার্সেলোনার একটি জনপ্রিয় রাস্তায় বৃহস্পতিবার ভ্যান হামলায় ১৪ জন নিহত হওয়ার ঘটনার তীব্র সমালোচনা করে সংহতি বার্তা পাঠিয়েছেন বিশ্বনেতারা৷ তাঁরা সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াই অব্যাহত রাখার কথা জানিয়েছেন৷

বৃহস্পতিবার বিকেলের ঐ হামলার পর কাটালুনিয়ার রাজ্য সরকার জরুরি বৈঠকে বসে৷ এরপর রাজ্যের প্রেসিডেন্ট কার্লেস পুজেমন বলেন, ‘‘শান্তি ও স্বাধীনতা রক্ষায় জেগে উঠবে কাটালুনিয়া৷ নৃশংসতাকে পরাজিত করবে গণতন্ত্র৷’’

স্পেনের প্রধানমন্ত্রী মারিয়ানো রাখই এক টুইট বার্তায় বলেন, ‘‘সন্ত্রাসবাদ ও নৃশংসতা কখনও একটি ঐক্যবদ্ধ দেশকে পরাজিত করতে পারবে না৷’’

স্পেনের রাজপরিবারও টুইটারে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে৷ এতে হামলাকারীদের গুপ্তঘাতক ও অপরাধী বলে আখ্যায়িত করা হয়৷

‘ইসলামিক কমিশন অফ স্পেন’ বা ইউআইডিই বার্সেলোনায় হামলার ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছে৷ ‘সবধরণের সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে’-র অঙ্গীকার পুনরায় ব্যক্ত করেছে সংস্থাটি৷ কমিশন আশা করছে, হামলাকারীরা শিগগিরই ধরা পড়বে৷

স্পেনের বাইরে থেকে প্রতিক্রিয়া

জার্মান চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল বলেছেন, জার্মানিতে নির্বাচনি প্রচারণার সময় এক মিনিট নীরবতা পালনের মাধ্যমে স্পেনে হামলায় হতাহতের স্মরণ করা হবে৷ এছাড়া সেই সময় উচ্চস্বরে কোনো মিউজিক বাজানো হবে না৷ তিনি বলেন, বার্সেলোনায় হামলার পরও প্রচারণা থেমে থাকবেনা৷ কারণ নির্বাচন ও প্রচারণা হচ্ছে গণতন্ত্রের উৎসব, সন্ত্রাসীরা যা কখনও বুঝবে না৷ ম্যার্কেল বলেন, ‘‘সন্ত্রাসবাদ সাময়িক ব্যথা ও গভীর শোক তৈরি করতে পারে, কিন্তু কখনও আমাদের হারাতে পারে না৷’’

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুটিন সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে লড়তে বিশ্বকে এক হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন৷ স্পেনের রাজা ষষ্ঠ ফেলিপের কাছে পাঠানো এক টেলিগ্রাম বার্তায় তিনি বলেন, ‘‘আমরা এই বর্বর হামলার তীব্র নিন্দা জানাই৷’’

জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী সিগমার গাব্রিয়েল ও সরকারের মুখপাত্র স্টেফেন সাইবার্ট হতাহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন৷

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাক্রোঁও মর্মান্তিক এই হামলায় হতাহতদের প্রতি সংহতি জানিয়েছেন৷ স্প্যানিশ ভাষায় লেখা এক টুইটে তিনি বলেছেন, ‘‘আমরা আপনাদের সঙ্গে আছি৷’’

এদিকে, ভ্যাটিকানের মুখপাত্র গ্রেগ বুর্কে জানিয়েছেন, পোপ ফ্রান্সিস হামলার ঘটনা ‘গভীর উদ্বেগ' প্রকাশ করেছেন এবং তিনি হতাহতদের জন্য প্রার্থনা করছেন৷

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প টুইট করে হামলার নিন্দা জানিয়েছেন৷ পরিস্থিতি সামলাতে স্পেনকে সাহায্যের প্রস্তাবও দেন তিনি৷

ওদিকে, সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা টুইটে লিখেছেন, ‘‘আমি ও মিশেল হতাহত ও তাদের পরিবারের কথা ভাবছি৷ অ্যামেরিকানরা সবসময় স্পেনের বন্ধুদের সঙ্গে থাকবে৷’’ এরপর দু'টি স্প্যানিশ শব্দ ব্যবহার করেন তিনি, যার অর্থ ‘আলিঙ্গন’৷

এছাড়া ক্যানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো, ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী টেরেসা মে, মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন, জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শাহিদ আব্বাসি, ইউরোপীয় কমিশনের প্রধান ইয়ুংকার সহ দক্ষিণ ও মধ্য অ্যামেরিকার কয়েকটি দেশ শোকবার্তা পাঠিয়েছে৷

জেডএইচ/ডিজি (ডিপিএ, রয়টার্স, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়