বার্লুসকোনির যৌন মামলার বিচার শুরু হবার পরপরই স্থগিত | বিশ্ব | DW | 06.04.2011
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

বার্লুসকোনির যৌন মামলার বিচার শুরু হবার পরপরই স্থগিত

একজন অপ্রাপ্তবয়স্ক পতিতার সঙ্গে যৌন সম্পর্ক স্থাপন এবং ক্ষমতা অপব্যবহারের অভিযোগে, ইটালির প্রধানমন্ত্রী সিলভিও বার্লুসকোনির বিচারকার্য বুধবার মিলানের একটি আদালতে শুরু হবার পরপরই তা আবার স্থগিত করা হয়েছে৷

default

সিলভিও বার্লুসকোনি

ইটালির ইতিহাসে সবচেয়ে স্পর্শকাতর একটি মামলার বিচার শুরু করেন ইটালির বিচারকরা৷ কিন্তু বিচার শুরুর পরপরই তা স্থগিত করা হয় ৩১শে মে পর্যন্ত৷ অভিযোগ রয়েছে, গত বছর স্থানীয় একটি নাইটক্লাবের ঐ ‘টিনএজ' ড্যান্সার রুবির সঙ্গে যৌন সম্পর্ক স্থাপনের জন্য ইটালির প্রধানমন্ত্রী প্রচুর অর্থও ব্যয় করেছেন৷

বার্লুসকোনি বুধবার রোমে মন্ত্রীসভার একটি বৈঠকে যোগ দেন৷ এবং তার পরপরই, যৌন কেলেঙ্কারির ঐ বিচারের শুরুতে যোগ না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন৷ তাই বুধবার বিচার শুরুর পর, তার স্থায়িত্বকাল ছিল মাত্র দশ মিনিট৷

এই তথাকথিত ‘‘রুবিগেট'' মামলা গণমাধ্যমের মনোযোগ কেড়েছে ব্যাপকভাবে৷ আর গত কয়েকমাস ধরে ইটালির রাজনীতিতে এই ঘটনা এক কালো ছায়া ফেলেছে৷ বুধবার গ্রিনিচ মান সময় সকাল ৭টা ৩০ মিনিটে শুনানি শুরু হয়৷ বার্লুসকোনি বা তাঁর প্রধান আইনজিবীরা আশা না করলেও, মিলানে আদালতের বাইরে শতশত সাংবাদিক এবং ক্যামেরা ভোর থেকেই অপেক্ষা করে ছিল অধীর আগ্রহে৷ প্রায় ১শ টেলিভিশন ক্রু উপস্থিত ছিলেন৷ এমনকি অস্ট্রেলিয়া থেকেও টেলিভিশন ক্রুও এসেছিলেন৷ এছাড়া, প্রায় ১শ সাংবাদিক আদালত কক্ষের ভেতরে প্রবেশের অপেক্ষায় ছিলেন বলে শোনা গেছে৷

Silvio Berlusconi

বার্লুসকোনি অবশ্য তাঁর বিরুদ্ধে আনিত সব অভিযোগই অস্বীকার করেছেন

মরক্কোতে জন্মগ্রহণকারী কারিমা এল মাহরোগ ওরফে রুবির সঙ্গে যৌন সম্পর্ক স্থাপনের বিনিময়ে রুবিকে নগদ অর্থ এবং রত্ন দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে বার্লুসকোনির বিরুদ্ধে৷ জানা গেছে, তখন রুবির বয়স ছিল মাত্র ১৭ বছর৷ এবং এই বয়সের কাউকে পতিতাবৃত্তির জন্য অর্থ প্রদান করা ইটালীয় আইনের পরিপন্থী৷

এছাড়া, একটি অ্যাপার্টমেন্ট থেকে চুরির অভিযোগে রুবি পুলিশ হেফাজতে থাকার সময়, বার্লুসকোনি তাঁকে মুক্ত করে এনে ক্ষমতার অপব্যবহার করেছেন বলেও অভিযোগ রয়েছে৷

তবে ইটালির প্রধানমন্ত্রী সিলভিও বার্লুসকোনি তাঁর বিরুদ্ধে আনিত সব অভিযোগই এখনও পর্যন্ত অস্বীকার করেছেন৷ পুরো বিষয়টি সম্পর্কে তিনি বলেন, বামপন্থী ম্যাজিস্ট্রেটরা তাঁকে রাজনৈতিকভাবে ধ্বংস করার জন্যই এসব কিছুর অবতারণা করেছেন৷

প্রতিবেদন: ফাহমিদা সুলতানা

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ    

বিজ্ঞাপন