বার্লিন চলচ্চিত্র উৎসবে ‘কুছ কুছ হোতা হ্যায়′ | বিশ্ব | DW | 20.02.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

বার্লিন চলচ্চিত্র উৎসবে ‘কুছ কুছ হোতা হ্যায়'

জমে উঠেছে বিশ্বের অন্যতম সম্মানজনক  চলচ্চিত্র উৎসব বার্লিনালে৷ উৎসবের ৬৮তম আয়োজনেও বিশ্বসেরা নির্মাতা ও শিল্পী-কুশলীরা এক হয়েছেন৷ এতে প্রাধান্য পাচ্ছে যৌন হয়রানিবিরোধী #মিটু প্রচারণা৷ আসরের পর্দা নামবে ২৫শে ফেব্রুয়ারি৷

১৫ই ফেব্রুয়ারি থেকে জার্মানির রাজধানী বার্লিনে শুরু হয়েছে বার্লিন চলচ্চিত্র উৎসব বার্লিনালে'র ৬৮তম আসর৷ উৎসবের পরিচালক ডিটের কসলিক বলেছেন, এ বছরের আয়োজনে অন্য বছরের তুলনায় কিছুটা ভিন্নতা রয়েছে৷

এ বছরই প্রথম উৎসবের উদ্বোধনী হয়েছে অ্যানিমেশন চলচ্চিত্রের মাধ্যমে৷ ‘আইল অফ ডগস-'এ কুকুরই চলচ্চিত্রের মুখ্য ভূমিকায় রয়েছে৷ তারা আপনাকে নিয়ে যাবে জাপানে একটি অনবদ্য কাহিনির মধ্যে৷ এটি কেবল মজার একটি চলচ্চিত্রই নয়, বেশ গভীরতা লুকিয়ে রয়েছে এর মধ্যে৷

এবারের প্রতিযোগিতায় চারটি জার্মান চলচ্চিত্র স্থান পেয়েছে৷ এর মধ্যে ‘ট্রানজিট' এবং ‘মাই ব্রাদারস নেম ইজ রবার্ট' চলচ্চিত্র দু'টি রয়েছে আলোচনায়৷ এবারের চলচ্চিত্র প্রতিযোগিতায় জুরিদের নেতৃত্ব দিচ্ছেন জার্মান চলচ্চিত্র পরিচালক টম টিকভের৷

প্রতিযোগিতায় নেই ভারত, তবে আছে অন্যভাবে

এবারের প্রতিযোগিতায় ভারতীয় কোনো চলচ্চিত্র মনোনয়ন পায়নি৷ তবে ‘প্যানোরামায়' আছে দু'টি চলচ্চিত্র৷ উৎসবের দ্বিতীয় সম্মানজনক এই বিভাগে জায়গা পেয়েছে কলকাতার কিউ (কৌশিক) পরিচালিত ছবি ‘গার্বেজ'৷ উৎসবের দ্বিতীয় ছবিটি দেবেশ চট্টোপাধ্যায়ের ‘ইয়ে দ্য আদার্স'৷

এদিকে, আয়োজকদের আমন্ত্রণে উৎসবে যোগ দিয়েছেন খ্যাতনামা বলিউড পরিচালক করণ জোহর৷ উৎসবে ভারতের প্রতিনিধিত্ব করছেন তিনি৷ আলোচনায় করণ তুলে ধরেছেন ভারতের চলচ্চিত্র বাণিজ্য এবং ইন্দো-ইউরোপীয় চলচ্চিত্র বাণিজ্যের কথা৷ এই চলচ্চিত্র পরিচালকের সম্মানে উৎসবে জার্মান চেম্বার অর্কেস্ট্রা তাঁর ছবি ‘কুছ কুছ হোতা হ্যায়-'এর ‘টাইটেল সং' বাজিয়ে শোনায়৷ ১৯৯৮ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত চলচ্চিত্রটি করণের প্রথম চলচ্চিত্র৷

যৌন হয়রানিবিরোধী #মিটু প্রচারণা

এ বছরের বড় বড় পুরস্কার আসরের মতো বার্লিনালেতেও চলচ্চিত্রের পাশাপাশি প্রাধান্য পাচ্ছে যৌন হয়রানিবিরোধী কর্মসূচি৷ এ প্রসঙ্গে উৎসবের পরিচালক কসলিক বলেন, ‘‘এবারের উৎসবে আমরা যৌন হয়রানি বিরোধী বেশ কিছু উদ্যোগ ও প্রচারণা চালাচ্ছি৷ একটা বিশেষ কাউন্সেলিং কর্নার রাখা হয়েছে, যেখানে অতিথিরা যৌন হয়রানি সম্পর্কে নিজেদের অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে পারেন৷ এছাড়া চলচ্চিত্রে লিঙ্গ বৈষম্য নিয়ে বিভিন্ন প্যানেল ও সেমিনারের আয়োজন আছে এবারের উৎসবে৷''

গত অক্টোবরে হলিউড প্রযোজক হার্ভি ওয়াইনস্টাইনের  যৌন হয়রানির কাণ্ডফাঁস হওয়ার পর থেকে চলচ্চিত্র ও সংগীত দুনিয়ায় রীতিমতো ঝড় ওঠে৷ বিনোদন মাধ্যমের সঙ্গে জড়িত শিল্পী ও কলাকুশলীরা নিজেদের সঙ্গে ঘটে যাওয়া হয়রানির কথা প্রকাশ করতে শুরু করেন৷ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সেই অভিজ্ঞতার কথা প্রকাশ করে তাতে অনেকে জুড়ে দেন হ্যাশট্যাগ ‘মি টু'৷

সেই ‘মি টু' হ্যাশট্যাগ এ বছর গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার, গ্র্যামি এবং বাফটাতেও আধিপত্য বিস্তার করেছিল৷ বার্লিন চলচ্চিত্র উৎসবেও এর ব্যতিক্রম হয়নি৷ উৎসবের উদ্বোধনী ছবি ‘আইল অব ডগস'-এর প্রদর্শনী থেকে শুরু হয়ে প্রতিটি সংবাদ সম্মেলন ও প্রদর্শনীতে ঘুরেফিরে এসেছে কর্মক্ষেত্রে নারীর ওপর  যৌন হয়রানির বিষয়টি

গত শুক্রবার ড্যামসেল ছবির সংবাদ সম্মেলনে টোয়াইলাইট ছবির অভিনেতা রবার্ট প্যাটিনসনও ‘মি টু' প্রসঙ্গে বলেছেন, ‘‘চলচ্চিত্র জগতের নারী কলাকুশলীদের এই সচেতন হয়ে ওঠা ‘অসাধারণ বিপ্লব'৷''

এবারের উৎসবে আজীবন সম্মাননা হিসেবে সোনার ভাল্লুক পাচ্ছেন মার্কিন অভিনেতা উইলেম ডেফো৷

এপিবি/এসিবি (ডয়চে ভেলে)

নির্বাচিত প্রতিবেদন