বাবরি মসজিদ ভাঙতে ইন্ধন জোগানোয় অভিযুক্ত মন্ত্রী | বিশ্ব | DW | 31.05.2017
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ভারত

বাবরি মসজিদ ভাঙতে ইন্ধন জোগানোয় অভিযুক্ত মন্ত্রী

ভারত সরকারের একজন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ও শাসক দল বিজেপির দুই শীর্ষস্থানীয় নেতার বিরুদ্ধে মঙ্গলবার দেশটির একটি আদালত বাবরি মসজিদ ভাঙায় ইন্ধন জোগানোর অভিযোগ এনেছে৷

বাবরি মসজিদে হামলা চালাচ্ছে হিন্দু মৌলবাদিরা

১৯৯২ সালের ৬ ডিসেম্বর বাবরি মসজিদে হামলা চালায় হিন্দু মৌলবাদিরা

১৯৯২ সালে উত্তর প্রদেশে অবস্থিত ষোড়শ শতকের এই মসজিদ ধ্বংস করতে হিন্দু জনতাকে উসকে দেয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে তাঁদের বিরুদ্ধে৷ এই তিন জন হলেন পানিসম্পদমন্ত্রী উমা ভারতী, বিজেপি নেতা এলকে আদভানি এবং এম এম যোশি৷ তাঁরা জামিনে আছেন৷

বাবরি মসজিদ ভাঙার ঘটনায় ভারতজুড়ে দাঙ্গা ছড়িয়ে পড়লে প্রায় দুই হাজার মানুষ প্রাণ হারান৷

অভিযুক্ত এই তিন জন ছাড়াও রায় ঘোষণার সময় ১২ জন আদালতে উপস্থিত ছিলেন৷

তবে তাঁরা এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন৷ রায় ঘোষণার আগে মন্ত্রী উমা ভারতী সাংবাদিকদের বলেন, তিনি নিজেকে অপরাধী মনে করেন না এবং মসজিদ ভাঙার ঘটনায় কোনো ষড়যন্ত্রও দেখতে পাননা৷ ‘‘ওটা একটি ওপেন মুভমেন্ট ছিল৷ সেখানে কোনো ষড়যন্ত্র ছিল না,’’ সাংবাদিকদের বলেন তিনি৷

তবে আদালত বলেছে, তাঁদের বিরুদ্ধে অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রের অভিযোগ আনার মতো ‘পর্যাপ্ত প্রমাণ’ আছে৷

এই তিন শীর্ষ ব্যক্তির বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছিল ভারতের কেন্দ্রীয় তদন্ত ব্যুরো৷ নিম্ন আদালত সেই অভিযোগ খারিজ করে দেয়৷ কিন্তু গত মাসে দেশটির সুপ্রিম কোর্ট আবারও বিচার শুরুর আদেশ দেন৷ এরপর এই বিশেষ আদালত গঠন করা হয়৷

হিন্দু সম্প্রদায়ের অনেকে মনে করেন, রামের জন্মস্থানে একটি মন্দির ভেঙে সেখানে বাবরি মসজিদ প্রতিষ্ঠা করা হয়েছিল৷ বর্তমানে উমা ভারতীসহ বিজেপির অনেক নেতা বাবরি মসজিদের স্থানে আবারও মন্দির তৈরির কথা বলছেন৷

জেডএইচ/এসিবি (এএফপি, রয়টার্স)

প্রিয় পাঠক, আপনি কিছু বলতে চাইলে লিখুন নীচে মন্তব্যের ঘরে...

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন