1. কন্টেন্টে যান
  2. মূল মেন্যুতে যান
  3. আরো ডয়চে ভেলে সাইটে যান
Bangladesch Tiger
ছবি: AP

টাইগার

১১ জুলাই ২০১৫

এ কথা বলেছেন জার্মানি রাজধানী বার্লিনের লাইবনিৎস চিড়িযাখানা ও বন্যপ্রাণী গবেষণা প্রতিষ্ঠানের আন্তর্জাতিক গবেষকরা৷ তাঁরা সকলেই চান, বাঘেদের উপপ্রজাতি বর্তমানের নয়টি থেকে কমিয়ে মাত্র দু'টি করা হোক৷

https://p.dw.com/p/1Fw71

প্রস্তাবটা তাত্ত্বিক হলেও ব্যাঘ্র সংরক্ষণের ক্ষেত্রে তার প্রভাব হবে ব্যাপক ও সুদূরপ্রসারী, এই হলো বিজ্ঞানীদের আশা৷ তাঁরা চান ‘সুন্দা' টাইগার – অর্থাৎ ইন্দোনেশিয়ার সুমাত্রা, জাভা ও বালি দ্বীপে যে ধরনের বাঘ পাওয়া যায় – আর কন্টিনেন্টাল টাইগার, মাত্র এই দু'টি স্বতন্ত্র উপপ্রজাতি বজায় রেখে বাকিগুলো (পুঁথিপত্র এবং হিসেব থেকে) তুলে দেওয়া হোক৷

গবেষণাটি করা হয় বার্লিনের লাইবনিৎস চিড়িয়াখানা ও বন্যপ্রাণী গবেষণা কেন্দ্রের তরফ থেকে৷ আন্তর্জাতিক গবেষকরা প্রকল্পটিতে অংশগ্রহণ করেন৷ গবেষণার ফলাফল প্রকাশিত হয় মার্কিন ‘সায়েন্স অ্যাডভান্সেস' জার্নালে৷ গবেষকরা বাঘের ন'টি চলতি উপপ্রজাতি বিশ্লেষণ করেছেন: যার মধ্যে তিনটি উপপ্রজাতি ইতিমধ্যেই বিলুপ্ত হয়েছে এবং চতুর্থ একটি উপপ্রজাতি শুধুমাত্র চিড়িয়াখানায় বেঁচে রয়েছে৷

প্রায় ২০০টি বাঘের মাথার খুলি, ১০০টির বেশি বাঘের চামড়া, এছাড়া রসায়ন ও পরিবেশগত নানান তথ্য বিচার করে গবেষকরা এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছেন যে, ‘প্যানথেরা টাইগ্রিস সনডাইকা' এবং ‘প্যানথেরা টাইগ্রিস টাইগ্রিস' ছাড়া আর কোনো উপপ্রজাতিকে স্বীকৃতি দেবার প্রয়োজন নেই৷ তার মধ্যে দ্বিতীয়, অর্থাৎ কন্টিনেন্টাল টাইগার উপপ্রজাতিটিকে দুটি ‘কনজারভেশন ম্যানেজমেন্ট ইউনিট' বা সংরক্ষণ সংক্রান্ত কর্মক্ষেত্রে ভাগ করা চলবে: যেমন উত্তরে সাইবেরিয়ার আমুর টাইগার ও দক্ষিণে রয়াল বেঙ্গল টাইগার৷

এশিয়ার জঙ্গলগুলোতে আজ মাত্র ৩,২০০ থেকে ৩,৬০০ বাঘ বেঁচে রয়েছে, বলে বিজ্ঞানীদের অনুমান৷ বাঘেদের আদত হ্যাবিট্যাট বা বাসস্থান কমে মাত্র সাত শতাংশে এসে দাঁড়িয়েছে৷ এমন অবস্থায় ব্যাঘ্র সংরক্ষণের ক্ষেত্রে নানা ধরনের উপপ্রজাতির উপর নজর রাখতে গেলে কাজের ক্ষতি হবে, বলে বার্লিনের গবেষকদের ধারণা৷ তাঁরা চান, বিভিন্ন দেশের টাইগার পপুলেশন বা ব্যাঘ্র গোষ্ঠীকে এক করে দেখা হোক, এমনকি ‘হাইব্রিড' বা মিশ্র উপপ্রজাতির বাঘেও তাঁদের আপত্তি নেই – যেহেতু তাতে ‘জিন পুল' বা বংশগত সংমিশ্রণ বাড়বে৷ এক্ষেত্রে মুখ্য গবেষক টোমাস ভিল্টিং দক্ষিণ চীন তথা ইন্দোচীনের প্রায় অবলুপ্ত ব্যাঘ্র গোষ্ঠীগুলির উদাহরণ দিলেন: মালয় এবং বেঙ্গলের ‘‘সাদার্ন কন্টিনেন্টাল'' টাইগারদের সঙ্গে তাদের যোগ করলে সংরক্ষণের কাজ অনেক সহজ হবে, বলে বিজ্ঞানীদের ধারণা৷

টাইগার কনজারভেশন বা ব্যাঘ্র সংরক্ষণের কাজও সর্বত্র একহারে এগোচ্ছে না৷ নেপাল, ভারত অথবা রাশিয়ার মতো দেশে বাঘের সংখ্যা বাড়ছে – যেমন ভারতে বিগত তিন বছরে বাঘের সংখ্যা প্রায় ৩০ শতাংশ বেড়ে ২০১৪ সালের শেষে দাঁড়িয়েছে ২,২২৬-এ৷ অপরদিকে ইন্দোনেশিয়া কিংবা মালয়েশিয়ার মতো দেশে বাঘেদের আদমশুমারি পর্যন্ত করা হয় না৷ কাম্বোডিয়া, লাওস ও ভিয়েতনাম-এ বাঘেরা প্রায় নিশ্চিহ্ন হয়েছে৷ অপরদিকে থাইল্যান্ড এবং মিয়ানমারে স্বল্প মেয়াদে বাঘের সংখ্যা বাড়ানো সম্ভব৷

এসি/ডিজি (ডিপিএ, এএফপি)

স্কিপ নেক্সট সেকশন এই বিষয়ে আরো তথ্য

এই বিষয়ে আরো তথ্য

আরো সংবাদ দেখান
স্কিপ নেক্সট সেকশন সম্পর্কিত বিষয়
স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

Bangladesch Dhaka Luftverschmutzung

জানুয়ারিতে একদিনও স্বাস্থ্যকর বায়ু পায়নি ঢাকার মানুষ

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ
প্রথম পাতায় যান