বাংলাদেশ ক্রিকেট টিম’এর নতুন ক্যাপ্টেন মুশফিক | খেলাধুলা | DW | 21.09.2011
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

বাংলাদেশ ক্রিকেট টিম’এর নতুন ক্যাপ্টেন মুশফিক

নব-নির্বাচিত অধিনায়কের পুরো নাম – মুশফিকুর রহিম৷ আর নতুন সহ-অধিনায়ক নির্বাচিত হয়েছেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ৷ মঙ্গলবার বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বা বিসিবি তাদের এই সিদ্ধান্তের কথায় জানায়৷

default

উইকেটের পেছনের রহিম সামনে থেকে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিতে চান

শের-এ-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে একটি সংক্ষিপ্ত সংবাদ সম্মেলনে এই তথ্য জানান বিসিবি'র মিডিয়া ও যোগাযোগ কমিটির সভাপতি জালাল ইউনুস৷ সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘‘ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির সভাপতি এনায়েত হোসেন সিরাজের প্রস্তাবে সায় দিয়েই, বোর্ড সর্বসম্মতিক্রমে মুশফিক ও মাহমুদুল্লাহকে জাতীয় দলের দায়িত্ব দিয়েছে৷''

আগামী অক্টোবর মাসে ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং এরপর ডিসেম্বরে পাকিস্তানের সঙ্গে দু'টি ঘরোয়া সিরিজের জন্য এই দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে উইকেট কিপার ও ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম আর অলরাউন্ডার মাহমুদুল্লাহকে৷

জালাল ইউনুস আরো বলেন, ‘‘এই দায়িত্ব দেওয়ার আগে মুশফিক ও মাহমুদুল্লাহর সঙ্গে বোর্ড সভাপতি আ হ ম মোস্তফা কামাল নিজে কথা বলেন৷'' শুধু তাই নয়, মঙ্গলবারও উভয় খেলোয়াড়ের সঙ্গে বোর্ড সভাপতি কথা বলেছেন বলে জানা গেছে৷

বিসিবি'র মিডিয়া ও যোগাযোগ কমিটির সভাপতি জালাল ইউনুসের কথায়, ‘‘মুশফিক ও মাহমুদুল্লাহকে জাতীয় দলের দায়িত্ব দেওয়া ছাড়া এদিন আর কোনো প্রস্তাব বোর্ডের ছিল না৷ কারণ অভিজ্ঞতা, পারফরম্যান্স – সব দিক বিবেচনা করে মুশফিক ও মাহমুদুল্লাহকেই যোগ্য বলে মনে হয়েছে বোর্ডের৷ আর সে জন্যই এই সিদ্ধান্ত৷''

উল্লেখ্য, ২৪টি টেস্টে একটি সেঞ্চুরিসহ ২৭.১৫ গড়ে মোট ১১৯৫ রান করেছেন মুশফিকুর রহিম৷ ২০০৫ সালের ২৬শে মে লর্ডসে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথমবারের মতো জাতীয় দলের হয়ে টেস্ট খেলেছিলেন তিনি৷ এছাড়া ৯৮টি একদিনের খেলায় একটি শতরানসহ ২৫.৬৮ গড়ে মোট ১৮৭৫ রান করেন মুশফিক৷ একদিনের খেলায় তার অভিষেক হয় ২০০৬ সালের ৬ই অগাস্ট জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে, হারারেতে৷

একদিনের ক্রিকেটে বাংলাদেশের ত্রয়োদশ এবং টেস্টে অষ্টম অধিনায়ক হলেন মুশফিক৷ আর উইকেটরক্ষক হিসেবে তিনি দেশের দ্বিতীয় অধিনায়ক৷

অন্যদিকে, মাহমুদুল্লাহ ১০টি টেস্ট খেলে একটি শতকসহ ৩৪.১১ গড়ে মোট ৬১৪ রান করেছেন৷ নিয়েছেন ২৩টি উইকেট৷ ২০০৯ সালের ৯ই জুলাই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে কিংসটাউনে তাঁর টেস্ট-অভিষেক হয়৷ আর ৭৩টি একদিনের খেলায় ৩০.৬৫ গড়ে মাহমুদুল্লার স্কোর মোট ১৩১৮ রান৷ ২০০৭ সালের ২৫শে জুলাই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে কলম্বোতে তিনি প্রথমবারের মতো ওয়ান-ডে ম্যাচ খেলেছিলেন৷

প্রতিবেদন: দেবারতি গুহ / বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক

বিজ্ঞাপন