বাংলাদেশ ও রাশিয়ার মধ্যে পরমাণু বিদ্যুৎ চুক্তি সই | বিশ্ব | DW | 03.11.2011
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

বাংলাদেশ ও রাশিয়ার মধ্যে পরমাণু বিদ্যুৎ চুক্তি সই

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনে বাংলাদেশ ও রাশিয়ার মধ্যে চুক্তি সই হয়েছে৷ বর্তমান সরকারের আমলেই বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের কাজ শুরু হবে৷ আর এতে বাংলাদেশের বিদ্যুৎ সমস্যা সমাধানে বড় রকমের অগ্রগতির আশা করা হচ্ছে৷

Workers at Russia's first new nuclear plant since the Soviet era leave after their shift at the Rostov Atomic Energy Station near Volgodonsk, Russia, Tuesday, Feb. 20, 2001. More than 20 years after construction began, the plant's first reactor was formally launched Friday by top officials who hailed it as a breakthrough for the nuclear energy industry after years of funding troubles and public opposition prompted by the Chernobyl nuclear accident. (AP Photo/Maxim Marmur)

রাশিয়ার একটি পরমাণু কেন্দ্র

বাংলাদেশে বিদ্যুতের চাহিদা সাড়ে ৫ হাজার মেগাওয়াট ৷ নতুন নতুন বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের পরও এখনো ঘাটতি আছে ১ হাজার মেগাওয়াট৷ তাই বিকল্প বিদ্যুতের জন্য বাংলাদেশে পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের স্বপ্ন বহুদিনের৷ সেই স্বপ্ন পুরণের পথেই এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ৷ বুধবার বাংলাদেশের রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের জন্য বাংলাদেশ ও রাশিয়ার মধ্যে চুক্তি সই হয়েছে৷ চুক্তি অনুযায়ী রাশিয়া বাংলাদেশে পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনে কারিগরি এবং আর্থিক সহায়তা দেবে৷ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতে এই চুক্তিতে বাংলাদেশের পক্ষে সই করেন বিজ্ঞান ও তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী ইয়াফেজ ওসমান৷ আর রাশিয়ার পক্ষে চুক্তিতে সই করেন সেদেশের অ্যাটমিক এনার্জি কর্পোরেশনের মহাপরিচালক সের্গেই কিরিয়েংকো৷

পরে বঙ্গবন্ধু নভোথিয়াটারে এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে কিরিয়েংকো বলেন, এই বিদ্যুৎ কেন্দ্রে ৫ স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে৷তিনি জানান, নির্মাণ শুরুর আগে কেন্দ্র স্থাপনের জায়গা পরীক্ষা করা হবে৷ এটি নিরাপত্তার জন্য জরুরি৷ আর নির্মাণকাজ শেষ করতে তাদের সময় লাগবে ৫ বছর৷

বাংলাদেশের বিজ্ঞান ও তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী ইয়াফেজ ওসমান জানান, পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের কাজ ঠিক কবে শুরু হচ্ছে তা সুনির্দষ্ট করে বলা না গেলেও এই সরকারের আমলেই যে নির্মাণকাজ শুরু হবে তা নিশ্চিত৷

রূপপুর পারমণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের পর এখান থেকে ২ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ পাওয়া যাবে৷ আর রাশিয়া এই কেন্দ্রের বাইরেও আরো দু'টি বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনে বাংলাদেশকে আর্থিক ও কারিগরি সহায়তা দেবে৷

প্রতিবেদন: হারুন উর রশীদ স্বপন, ঢাকা

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক