1. কন্টেন্টে যান
  2. মূল মেন্যুতে যান
  3. আরো ডয়চে ভেলে সাইটে যান
DW Khaled Muhiuddin Asks talkshow | Khaled Muhiuddin Asks 037
ছবি: DW

বাংলাদেশের সাংবাদিকদের কাছে সত্য বলাই চ্যালেঞ্জ: জুলহাস আলম

৬ নভেম্বর ২০২০

ডয়চে ভেলে বাংলার সাপ্তাহিক ইউটিউব টকশো ‘খালেদ মুহিউদ্দীন জানতে চায়'-এর এবারের পর্বে এমন মন্তব্য করেন অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসের (এপি) ঢাকার ব্যুরোপ্রধান জুলহাস আলম৷

https://p.dw.com/p/3kyP4

তার সঙ্গে আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কলকাতার লেখক, গীতিকার ও বক্তা চন্দ্রিল ভট্টাচার্য৷ এবারের বিষয় ছিল ‘ফ্যাক্ট ট্রাম্প: মিডিয়া যার, নির্বাচনও তার?'

কথায় কথায় উঠে আসে মিডিয়ার নৈতিকতা ও সাংবাদিকতার চ্যালেঞ্জের মতো বিষয়৷ এবিষয়ে চন্দ্রিল ভট্টাচার্য বলেন যে, কাউকে সমালোচনার পরিসর মিডিয়ার কাছে রয়েছে কিন্তু সেটা যদি যুক্তিবহির্ভূত আক্রমণ হয়, তাহলে তা সমর্থনযোগ্য নয়৷ অন্যদিকে, ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের সামনে নিরপেক্ষতার বিষয়ে চন্দ্রিল বলেন, ‘‘ভারতীয় গণমাধ্যমে বহু টিভি চ্যানেল বা পত্রপত্রিকা আছে, যারা আজকাল নিরপেক্ষতার ভানটুকুও করেনা৷ তারা কোনো না কোনো দলের হয়েই কথা বলে৷ ফলে যেখানে আগে আমরা গণমাধ্যমকে প্রশ্ন করতাম যে সে নিরপেক্ষ কি না, এখন তার বদলে আমরা তার পক্ষপাতদুষ্ট না হওয়াকে প্রশ্ন করি৷ এটা আমি মানছি যে, ইদানিং তা (গণমাধ্যমের নিরপেক্ষতা) দেখা যায়না কিন্তু দেখা যায় না মানেই তা যে হতে পারে না, তা কিন্তু নয়৷ কিছুদিন আগে পর্যন্তও দেখা যেত৷'' চন্দ্রিলের মত, ‘‘কোনো গণমাধ্যম পুরোপুরি নিরপেক্ষ না হতে পারলেও অনেকটা নিরপেক্ষ হওয়া যায়৷ অমুক ইস্যুতে না হওয়া গেলেও তমুক ইস্যুতে হওয়া যায়৷''

অতিথি জুলহাস আলমকে প্রশ্ন করা হয় যে, বাংলাদেশের সাংবাদিকদের সামনে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ এই মুহূর্তে কী৷ উত্তরে তিনি বলেন, ‘‘বাংলাদেশের সাংবাদিকতার কাছে এখন সত্য বলাই চ্যালেঞ্জ৷ আন্তর্জাতিক মিডিয়ার নিয়মাবলী আমাদের বলে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে কিন্তু আমরা সাংবাদিকরা দেশে সব সময় তা নিশ্চিত করতে পারিনা৷ অনেকে সেই দায়িত্ব নিতে চাই না৷ কারণ আমাদের আশেপাশে আতঙ্কের পরিবেশ আছে, অনেক রকমের হুমকির সম্ভাবনা আছে৷ তাই আমরা অনেকেই সেলফ-সেন্সরড হয়ে যাই৷ বেসিক জায়গায় কথা বলার পরিধি অনেক কমে এসেছে৷ কর্তৃপক্ষের জবাবদিহিতার জায়গাও কমে গেছে৷ শক্তিশালীদের বিরুদ্ধে কথা বলার সুযোগ নেই৷ এটাই বাস্তবতা৷ রাজনীতির বাস্তবতা না বদলালে, তারা উদারতা না দেখালে আমাদের বাস্তবতা বদলাবে না৷''

আজকের পর্বে এসব ছাড়াও আলোচিত হয় সংবাদমাধ্যমেরসাথে গণরুচির সম্পর্ক, ভারত-বাংলাদেশের নির্বাচনে মিডিয়ার ভূমিকার মতো আরো বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয়৷

এসএস/জেডএইচ

স্কিপ নেক্সট সেকশন সম্পর্কিত বিষয়
স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের এক জরিপে এই তথ্য উঠে এসেছে। বাংলাদেশ সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ (সিপিডি) তাদের পার্টনার হিসেবে বাংলাদেশে এই জরিপ পরিচালনা ও ফলাফল প্রকাশ করেছে।

ব্যবসা-বাণিজ্যের ঘাটে ঘাটে দুর্নীতি

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

প্রথম পাতায় যান