1. কন্টেন্টে যান
  2. মূল মেন্যুতে যান
  3. আরো ডয়চে ভেলে সাইটে যান
ছবি: Harpo Productions/Joe Pugliese/REUTERS

বর্ণবাদের অভিযোগে উদ্বিগ্ন ব্রিটেনের রানি

১০ মার্চ ২০২১

প্রিন্স হ্যারি ও মেঘানের বক্তব্যের প্রতিক্রিয়া দিল বাকিংহাম প্যালেস। প্রতিক্রিয়ায় বলা হয়েছে, রানি উদ্বিগ্ন। বিষয়টি ব্যক্তিগত স্তরে মেটানো হবে। 

https://www.dw.com/bn/%E0%A6%AC%E0%A6%B0%E0%A7%8D%E0%A6%A3%E0%A6%AC%E0%A6%BE%E0%A6%A6%E0%A7%87%E0%A6%B0-%E0%A6%85%E0%A6%AD%E0%A6%BF%E0%A6%AF%E0%A7%8B%E0%A6%97%E0%A7%87-%E0%A6%89%E0%A6%A6%E0%A7%8D%E0%A6%AC%E0%A6%BF%E0%A6%97%E0%A7%8D%E0%A6%A8-%E0%A6%AC%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%BF%E0%A6%9F%E0%A7%87%E0%A6%A8%E0%A7%87%E0%A6%B0-%E0%A6%B0%E0%A6%BE%E0%A6%A8%E0%A6%BF/a-56822101

ব্রিটিশ রাজপরিবারেও বর্ণবাদ। অভিযোগ করেছেন প্রিন্স হ্যারির স্ত্রী ডাচেস অফ সাসেক্স মেঘান। সম্প্রতি অ্যামেরিকায় হ্যারি ও মেঘান একটি সাক্ষাৎকার দিয়েছেন। সেখানে তারা সোজাসাপটা অনেক কথা বলেছেন। মেঘান যেমন টেনে এনেছেন বর্ণবাদের প্রসঙ্গ। তিনি বলেছেন, রাজপরিবারের এক সদস্য প্রিন্স হ্যারির কাছে জানতে চেয়েছিলেন, তাদের সন্তান কতটা কালো হবে।

বাকিংহাম প্যালেস সাধারণত রাজপরিবারের ঘরোয়া বিষয় নিয়ে খুবই কম প্রতিক্রিয়া জানায়। কিন্তু মেঘানের অভিযোগ নিয়ে জানিয়েছে। রানির তরফে একটি বিবৃতি দিয়ে বলা হয়েছে, এই অভিযোগকে তিনি খুবই গুরুত্ব দিচ্ছেন। তবে বিষয়টি ব্যক্তিগত স্তরে মিটিয়ে নেয়া হবে।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, গত কয়েক বছর হ্যারি ও মেঘান খুবই চ্যালেঞ্জিং সময় কাটিয়েছেন জেনে তিনি দুঃখবোধ করছেন। ২০১৮ সালে বিয়ের পর হ্যারি ও মেঘানকে খুবই ভালো বেসেছেন রাজপরিবারের সদস্যরা।

বর্ণবাদ নিয়ে মেঘানের অভিযোগের পরই রাজপরিবার যাতে প্রতিক্রিয়া জানায় তার জন্য চাপ তৈরি হয়েছিল। পরিবারের প্রবীণ সদস্যরা বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করে ঠিক করেন, প্রতিক্রিয়া দেয়া হবে। তারপরই রানির তরফে এই বিবৃতি জারি করা হয়েছে।

হ্যারি ও মেঘানের সাক্ষাৎকার ব্রিটেনে এক কোটি ২৪ লাখ এবং অ্যামেরিকায় এক কোটি ৭১ লাখ মানুষ দেখেছেন। হ্যারি ও মেঘান বর্ণবাদ, মানসিক স্বাস্থ্য, ব্রিটিশ মিডিয়া, রাজপরিবারের অন্য সদস্যদের সম্পর্কে নানা প্রশ্নের জবাব দিয়েছেন।

টিভি শো ছাড়তে হলো

প্রিন্স হ্যারি ও মেঘানের সাক্ষাৎকার ব্রিটেনের মানুষকে দুই ভাবে বিভক্ত করে দিয়েছে। এক অংশের মতে, তারা যা বলেছেন, তা ঠিক। অন্য অংশ মনে করেন, রানি এলিজাবেথ ও রাজপরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে এই ধরনের সমালোচনা অনুচিত।

যুক্তরাজ্যে টিভি শো-র হোস্ট পিয়ার্স মর্গান বলেছেন, তিনি মেঘানের একটা কথাও বিশ্বাস করেন না। তার এই কথার তীব্র প্রতিক্রিয়া হয়েছে। তার শো গুড মর্নিং ব্রিটেনের প্রচুর দর্শক তো বটেই, সহ-সঞ্চালকরাও তার এই মন্তব্যের প্রতিবাদ করেছেন। তার বিরুদ্ধে ৪০ হাজার অভিযোগ রেগুলেটরের কাছে জমা পড়েছে। পরে পিয়ার্স জানিয়েছেন, তিনি আর ওই শো করবেন না।

জিএইচ/এসজি(এএফপি, রয়টার্স)

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

ডয়চে ভেলের শীর্ষ সংবাদ

Russland | Zeremonie zur Annexion ukrainischer Gebiete | Putin mit den Besatzungschefs

ইউক্রেনে রাশিয়ার দখলদারিত্বে বিশ্বব্যাপী নিন্দা

স্কিপ নেক্সট সেকশন ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

ডয়চে ভেলে থেকে আরো সংবাদ

প্রথম পাতায় যান