বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় চুক্তি করলো বাংলাদেশ ও ডেনমার্ক | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 26.01.2012
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

সমাজ সংস্কৃতি

বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় চুক্তি করলো বাংলাদেশ ও ডেনমার্ক

জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় সহায়তা হিসেবে সম্প্রতি বাংলাদেশ ও ডেনমার্কের মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে৷ ফলে সার ও বায়োগ্যাস তৈরির প্রকল্পে কারিগরি সহায়তা দেবে ডেনমার্ক সরকার৷

বর্জ্য ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে সামাজিক উন্নয়নও সম্ভব

বর্জ্য ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে সামাজিক উন্নয়নও সম্ভব

ক্লিন ডেভেলপমেন্ট মেকানিজম (সিডিএম)'এর আওতায় প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হবে৷ কিন্তু কী এই সিডিএম? জলবায়ু বিশেষজ্ঞ ড. আতিক রহমান বলছেন, সিডিএম হচ্ছে গ্রিনহাউস গ্যাস নির্গমন কমানোর একটা উপায়৷ এর আওতায় উন্নত দেশগুলো অনুন্নত দেশের গ্রিনহাউস গ্যাস কমানো বিষয়ক প্রকল্পে সহায়তা দিয়ে থাকে৷ যেমন বাংলাদেশ ও ডেনমার্কের মধ্যে যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হলো তার আওতায় বাংলাদেশের বিভিন্ন অঞ্চলের গৃহস্থালির বর্জ্য ব্যবস্থাপনার কাজ করা হবে৷ ঠিকভাবে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা করা গেলে তা থেকে কম গ্রিনহাউস গ্যাস নিঃসৃত হবে৷ প্রথম পর্যায়ে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন, গাজীপুর, ময়মনসিংহ ও কক্সবাজার পৌরসভায় প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হবে৷

কিন্তু কেন একটা উন্নত দেশ এ ধরণের প্রকল্পের জন্য অর্থ দেবে? উত্তরে ড. রহমান বলেন, অনুন্নত দেশে বিনিয়োগের মাধ্যমে উন্নত দেশগুলো যে পরিমাণ গ্রিনহাউস গ্যাস নির্গমন কমাতে পারবে, নিজেদের দেশে সেটা করতে গেলে তার চেয়ে বেশি খরচ হবে৷

তিনি বলেন, সিডিএম পদ্ধতির কিছু অসুবিধা আছে৷ যেমন বাংলাদেশের মতো দেশগুলো কম গ্রিনহাউস গ্যাস নির্গমন করে৷ ফলে সিডিএম'এর মাধ্যমে টাকা পাওয়ার মতো প্রকল্প দাঁড় করানো যায় না৷ কিন্তু চীন ও ভারতের মতো দেশগুলো যেহেতু অনেক বেশি গ্রিনহাউস গ্যাস নির্গমন করে, তাই তারা সিডিএম'এর মাধ্যমে বেশি টাকা পেয়ে থাকে৷

প্রতিবেদন: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

সংশ্লিষ্ট বিষয়