বরফঝড় থেকে ছোট্ট খরগোশকে বাঁচালো পুলিশ | বিশ্ব | DW | 06.03.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ভাইরাল ভিডিও

বরফঝড় থেকে ছোট্ট খরগোশকে বাঁচালো পুলিশ

দোসরা মার্চের ঘটনা৷ আয়ারল্যান্ড জুড়ে বরফের ঝড় চলেছে৷ বিমানবন্দরের এক পুলিশকর্মী বরফে ঢাকা প্রাঙ্গণ থেকে উদ্ধার করলেন এক কচি খরগোশকে৷ সেই খরগোশ এখন যেন স্টার!

ছোট্ট ভিডিও৷ রাস্তায় বরফের উপর গাড়ির টায়ারের দাগ৷ পাশের বরফ ঢাকা প্রান্তরে টর্চের আলো ফেলতে ছোট্ট একটি জীব লাফাতে লাফাতে গাড়ির দিকে এগিয়ে এলো – এক বাচ্চা খরগোশ৷ ‘কে-নাইন' টিমের সদস্য পুলিশ অফিসারের নীল দস্তানা পরা হাত খরগোশটিকে তুলে নিয়ে গাড়ির দিকে এলো৷ এইটুকুই ভিডিও – কিন্তু লাখ লাখ বার দেখা হয়েছে৷

গত শুক্রবার ব্রিটেন আর আয়ারল্যান্ডে যে বরফঝড় চলছিল, আবহাওয়া অফিসের নথিপত্রে তার নাম হলো ‘এমা'৷ কাজেই এক বছরের কম বয়সের খুকি খরগোশটির নাম রাখা হয়েছে ‘এমা'৷  প্রথমে তাকে এয়ারপোর্টের অফিসে নিয়ে গিয়ে তোয়ালে দিয়ে মুড়ে গরম করা হয়েছে, তারপর খেতে দেওয়া হয়েছে৷ এরপর এমাকে নিয়ে যাওয়া হয়েছে উদ্ধারকর্তা পুলিশ অফিসারের বাড়িতে৷ সেখান থেকে ঐ পুলিশ অফিসারের মেয়ে এমার ছবি আর তার হাল-হকিকত টুইট করে চলেছে৷ পোস্ট করা হয়েছে জানালার কাছে একটি গোলটেবিলের ওপর বসা এমার ছবি৷ জানালার বাইরে কান খাড়া করে এমাকে দেখছে বিমানবন্দররক্ষী পুলিশ অফিসারটির সরকারি সহকারী এক কালো কুকুর, যার নাম লু৷

মনে রাখা দরকার, এমার খবর প্রথম টুইট করে ডাবলিন এয়ারপোর্ট কর্তৃপক্ষ৷ বরফে, অন্ধকারে পথ হারানো, আতঙ্কিত এক খুদে জীবের কাহিনি এভাবেই একটি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরকে যে পরিমাণ প্রচার এনে দেয়, তাতে এমাকে সোনার খাঁচায় রাখা উচিত৷

না, ভুল বললাম৷ পুলিশ অফিসারের কন্যা টুইট করেছে: সুস্থ হলে আর বরফ কমলে এমাকে আবার মুক্ত প্রকৃতিতে ছেড়ে দেওয়া হবে, সম্ভবত সেই রানওয়ের পাশের মাঠে, যেখানে তাকে পাওয়া গিয়েছিল৷

এসি/এসিবি

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক

বিজ্ঞাপন