বন্যায় প্রাণহানি ‘অবহেলাজনিত হত্যাকাণ্ড’ কিনা তদন্ত করবে জার্মানি | জার্মানি ইউরোপ | DW | 03.08.2021

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

জার্মানি

বন্যায় প্রাণহানি ‘অবহেলাজনিত হত্যাকাণ্ড’ কিনা তদন্ত করবে জার্মানি

জার্মানিতে বন্যায় ১৮০ জনেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে৷ এই প্রাণহানি কোনোভাবে এড়ানো যেতো কিনা, সতর্কতা জারি বা মানুষকে সরিয়ে নেয়ার ক্ষেত্রে কোনো গাফিলতি ছিল কিনা, তা তদন্ত করার কথা ভাবছে জার্মানি৷

জার্মান তদন্তকারীরা সোমবার জানিয়েছেন, সাম্প্রতিক বন্যায় গাফিলতির তদন্ত করার সুযোগ আছে কিনা খতিয়ে দেখা হবে৷ জুলাই মাসে জার্মানির পশ্চিমাঞ্চলে বন্যায় অন্তত ১৮০ জনের মৃত্যু হয়৷ এরপর থেকেই প্রশ্ন উঠছে, কর্তৃপক্ষ বন্যার আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার জনগণকে সতর্ক করে দেয়ার জন্য যথেষ্ট ব্যবস্থা নিয়েছিল কিনা৷ 

জার্মান পাবলিক প্রসিকিউটর অফিস এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ‘সতর্কতা জারিতে দেরি করা বা ব্যর্থ হওয়ার কারণে অবহেলাজনিত হত্যা বা ক্ষতি হয়েছে কিনা' তা নিয়ে প্রাথমিক তদন্তের বিষয়ে ভাবা হচ্ছে৷ 

বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, প্রাথমিক তদন্তে জিনসিশ শহরে একটি সেবাকেন্দ্রে ১২ জনের মৃত্যুর বিষয়ে পুলিশের প্রতিবেদন এবং দুর্যোগের বিভিন্ন সংবাদ প্রমাণ হিসেবে ব্যবহার করা হতে পারে৷

দায় কার?

বন্যায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার বাসিন্দাদের সতর্ক করা হয়নি, ফেডারেল ও রাজ্য কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ অনেক আগেই উঠেছে৷

জার্মান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হোর্স্ট সেহোফার জানিয়েছেন ‘এমন বিপর্যয় কোনো একক স্থান থেকে কেন্দ্রীয়ভাবে ব্যবস্থাপনা করা একেবেরেই অকল্পনীয়'৷ এটা যে রাজ্য কর্তৃপক্ষের দায়িত্ব সেটিও তিনি উল্লেখ করেন৷

জার্মান আবহাওয়া দপ্তর ডিডব্লিউডিও নিজেদের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনার সক্ষমতার পক্ষেই সাফাই গেয়ে বলেছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ সময়মতো তাদের দেয়া সতর্কতা জনগণকে জানায়নি৷ কোনো কোনো রাজ্য কর্মকর্তা স্বীকার করেছেন যে, তাদের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা আরো ভালো হতে পারতো৷ কিন্তু যা করা সম্ভব তার সবটাই করা হয়েছে বলেও তারা দাবি করেছেন৷

এডিকে/এসিবি (এএফপি, কেএনএ)