ফ্রান্সে রেলকর্মীদের ধর্মঘট | বিশ্ব | DW | 03.04.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ফ্রান্স

ফ্রান্সে রেলকর্মীদের ধর্মঘট

শ্রমক্ষেত্রে প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাক্রোঁর সংস্কার পরিকল্পনার বিরুদ্ধে প্রতিবাদে ফরাসি রেলকর্মীরা দু'দিন অন্তর তিনদিন করে ধর্মঘট করতে চলেছেন৷ এর ফলে আগামী তিন মাসে ফরাসি রেল ব্যবস্থায় ব্যাপক ব্যাঘাত ঘটতে পারে৷

ফ্রান্সের রাষ্ট্রীয় রেল প্রতিষ্ঠান এসএনসিএফ-এর কর্মীরা সোমবার রাত্রে তাঁদের তিন মাসব্যাপী ধর্মঘট শুরু করেন৷ জ্বালানি ও আবর্জনা পরিষ্কার বিভাগের কর্মীরাও এই ধর্মঘটে অংশগ্রহণ করবেন বলে প্রকাশ৷  

ফরাসি প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাক্রোঁ সাধারণ উপযোগিতামূলক সেবাগুলিতে অধিকতর প্রতিযোগিতার ব্যবস্থা করতে চান৷ মাক্রোঁর অপরাপর অর্থনৈতিক সংস্কার সংক্রান্ত উদ্যোগগুলি এ পর্যন্ত বিশেষ বাধার সম্মুখীন হয়নি৷ অপরদিকে ফ্রান্সের শক্তিশালী শ্রমিক সংগঠনগুলিকেও এবার তাদের শক্তির পরিচয় দিতে হবে৷

ধর্মঘট

-    আগামী জুন মাস অবধি এসএনএফসি রেলকর্মীরা প্রতি পাঁচ দিনের মধ্যে দু'দিন করে কাজ করবেন৷ ফ্রান্সে প্রায় ৪৫ লাখ মানুষ প্রতিদিন রেল ব্যবহার করে থাকেন৷

ভিডিও দেখুন 01:16
এখন লাইভ
01:16 মিনিট

Macron talks reform with union bosses

-    ৮৫ শতাংশ এক্সপ্রেস ট্রেন ও ৭৫ শতাংশ লোকাল ট্রেন চলবে না বলে এসএনএফসি জানিয়েছে৷

-    লন্ডন ও বেলজিয়াম অভিমুখে ইউরোস্টার ট্রেনগুলির তিন-চতুর্থাংশ চালু থাকবে বলে প্রত্যাশা করা হচ্ছে; বেলজিয়াম ও নেদারল্যান্ডস অভিমুখে অধিকাংশ ‘থালিস' ট্রেনও চালু থাকবে – কিন্তু স্পেন, ইটালি ও সুইজারল্যান্ডগামী প্রায় সব ট্রেন বন্ধ থাকার আশঙ্কা রয়েছে৷

-    ময়লা ফেলা বিভাগের কর্মী ও জ্বালানি বিভাগের কর্মীরাও এই রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত কর্মক্ষেত্রগুলির সংস্কারের পরিকল্পনার বিরুদ্ধে প্রতিবাদে ধর্মঘট করবেন৷

-    পৃথকভাবে এয়ার ফ্রান্স সংস্থার কর্মীরাও বেতনবৃদ্ধির দাবিতে ধর্মঘট করবেন, যার ফলে বিমান পরিবহণও ব্যাহত হবে৷

‘তিন মাস ধরে বিশৃঙ্খলা'

-    এসএসসিএফ-এর প্রধান গিলোম পেপি জানেন যে,  এই ব্যাপক ধর্মঘটের ফলে ফ্রান্সে বহু মানুষ বিপাকে পড়বেন৷ ‘‘আমি খুব স্পষ্ট করে বলতে চাই যে, ...ধর্মঘটে বহু কর্মী অংশ নেবেন, যার ফলে বেশ কিছু মানুষের দুর্ভোগ হবে,'' বলেছেন পেপি৷

-    ‘‘ফ্রান্সের মানুষ অযৌক্তিক কারণে তিন মাসের বিশৃঙ্খলা সহ্য করতে চান না,'' একটি সাপ্তাহিক পত্রিকাকে দেয়া সাক্ষাৎকারে বলেছেন ফরাসি পরিবহণ মন্ত্রী এলিসাবেথ বর্ন৷

-    ফ্রান্সের মুখ্য জাতীয় শ্রমিক সংগঠনগুলির অন্যতম সিজিটি-র প্রধান ফিলিপ মার্তিনে ফরাসি বেতারকে দেয়া সাক্ষাৎকারে বলেছেন যে, ‘‘(রেল) একটি সাধারণ সেবা; কাজেই আমরা বেসরকারি প্রতিযোগিতার বিরুদ্ধে৷''

শক্তির পরীক্ষা

-    মাক্রোঁ যে রেলকর্মীদের সুযোগ-সুবিধা হ্রাসের প্রস্তাব দিয়েছেন, তা ফ্রান্সের জাতীয় রেল ব্যবস্থাকে বেসরকারি মালিকানায় প্রদান করার পথে প্রথম পদক্ষেপ বলে এসএনএফসি-র আশঙ্কা৷

-    এ ধরনের একটি ব্যাপক শিল্পধর্মঘটের ফলে মাক্রোঁ তাঁর প্রস্তাবাবলী সংশোধন করতে বাধ্য হতে পারেন, অতীতে অপরাপর ফরাসি প্রেসিডেন্টকে যা করতে হয়েছে৷

-    অপরদিকে ফরাসি শ্রমিক সংগঠনগুলির আর আগের মতো ব্যাপক জনসমর্থন নেই, যার ফলে এবারের ধর্মঘট সাধারণের সহানুভূতির পরিবর্তে রোষের সৃষ্টি করতে পারে৷

ফ্রান্সের অর্থনৈতিক রূপান্তরের প্রতিশ্রুতি দিয়ে মাক্রোঁ গতবছর নির্বাচিত হন এবং গত অক্টোবর মাসে নির্বাহী আদেশের মাধ্যমে শ্রমবাজারের সংস্কারের ব্যবস্থা করেন, যা বিশেষ কোনো প্রতিবাদের সম্মুখীন হয়নি৷ কিন্তু ঋণগ্রস্ত সরকারি রেল ব্যবস্থাকে আন্তর্জাতিক দৃষ্টিকোণ থেকে আরো প্রতিযোগিতামূলক করার উদ্দেশ্যে মাক্রোঁ এসএনএফসি কর্মীদের ভাতা ও অপরাপর সুযোগ-সুবিধা কর্তনের যে প্রস্তাব দিয়েছেন, তা রেলকর্মীদের কাছে জনপ্রিয় নয় – যেমন জ্বালানি বা আবর্জনা অপসারণ বিভাগের কর্মীরাও মাক্রোঁর অনুরূপ সব পরিকল্পনা গ্রহণযোগ্য বলে মনে করেন না৷

কাজেই আগামী তিন মাসে ফ্রান্সে বা ফ্রান্স অভিমুখে রেলযাত্রায় বিলম্ব ঘটা বা শহরের পথেঘাটে জঞ্জাল পড়ে থাকায় আশ্চর্য কিছু থাকবে না৷

এসি/এসিবি (এএফপি, এপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

বিজ্ঞাপন