ফ্রান্সে ‘চরমপন্থিদের সন্ধানে′ মসজিদে তল্লাশি | মুকালামা | DW | 03.12.2020
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ফ্রান্স

ফ্রান্সে ‘চরমপন্থিদের সন্ধানে' মসজিদে তল্লাশি

কয়েক ডজন মসজিদে বৃহস্পতিবার তল্লাশি চালাচ্ছে ফরাসি কর্তৃপক্ষ৷ দেশের বিভিন্ন স্থানে হামলার পর এসব মসজিদে ‘চরমপন্থার প্রচার' করা হয় সন্দেহ করছে দেশটির সরকার৷

ফ্রান্সের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মনে করেন, দেশটির প্রায় সব মুসলিমই প্রজাতন্ত্রের আইনকে শ্রদ্ধা করেন৷

ফ্রান্সের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মনে করেন, দেশটির প্রায় সব মুসলিমই প্রজাতন্ত্রের আইনকে শ্রদ্ধা করেন৷

আরটিএল রেডিওকে ফরাসি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জেরাল্ড ডারমানিন জানিয়েছেন, কোনো মসজিদকে উগ্রবাদ ছড়ানোর কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে, এমন সন্দেহ হলে সেটি বন্ধ করে দেয়া হবে৷

কোনো কোনো অঞ্চলের মসজিদে এমন তল্লাশি চালানো হবে, তা প্রকাশ করেননি মন্ত্রী৷ তবে স্থানীয় বিভিন্ন নিরাপত্তা প্রধানদের পাঠানো চিঠিতে প্যারিস এলাকার ১৬টি এবং দেশজুড়ে আরো ৬০টি মসজিদের কথা উল্লেখ রয়েছে বলে জানিয়েছে ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি৷

গত কয়েক সপ্তাহের মধ্যে পরপর দুটি হামলার ঘটনা ঘটে৷ এক শিক্ষককে গলা কেটে হত্যা এবং নিস শহরে গির্জায় ঠুকে তিনজনকে হত্যার পরিপ্রেক্ষিতে এমন তল্লাশির সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে৷

আরটিএলকে মন্ত্রী জানান, দেশটির আড়াই হাজারের বেশি মসজিদের মধ্যে মাত্র কয়েকটিকেই উগ্রবাদের প্রচার চালানোর বিষয়ে সন্দেহ করা হচ্ছে৷ তবে দেশজুড়ে উগ্রবাদ ছড়িয়েছে, এমন আশঙ্কা ফ্রান্স সরকার করছে না বলেও জানিয়েছেন তিনি৷ ডারমানিন বলেন, ‘‘ফ্রান্সের প্রায় সব মুসলিমই প্রজাতন্ত্রের আইনকে শ্রদ্ধা করেন এবং এ নিয়ে (উগ্রবাদ) তারাও ব্যথিত৷

শিক্ষক স্যামুয়ের প্যাটিকে হত্যার পর ‘উগ্রবাদের প্রচার' চালানোর সন্দেহে বেশ কিছু ইসলামিক স্পোর্টস গ্রুপ, দাতব্য প্রতিষ্ঠান ও সংস্থার দপ্তরে অভিযান চালায় ফরাসি পুলিশ৷ প্যাটির বিরুদ্ধে ঘৃণা প্রকাশ করা একটি ভিডিও ছড়ানোর অভিযোগে প্যারিসের পাশেই একটি মসজিদ বন্ধও করে দেয়া হয়৷

এডিকে (এএফপি)

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন