ফ্রান্সে আন্তর্জাতিক উদ্যান উৎসবে নানা চমক | অন্বেষণ | DW | 10.10.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

অন্বেষণ

ফ্রান্সে আন্তর্জাতিক উদ্যান উৎসবে নানা চমক

বাগানের মনোরম পরিবেশে একটু জিরিয়ে নিলে ক্লান্তি, মানসিক চাপ, অবসাদ দূর হতে পারে৷ ফ্রান্সে আন্তর্জাতিক উদ্যান উৎসবে অসাধারণ সব বাগান তুলে ধরা হয়েছে, যেগুলি স্বর্গোদ্যানের সঙ্গে তুলনীয়৷

স্বর্গোদ্যানের খোঁজ করছেন? পৃথিবীর বুকেই তা পাওয়া যেতে পারে৷ এ বছর ফ্রান্সের শোমঁ-সুয়র-লোয়ার শহরে আন্তর্জাতিক উদ্যান উৎসবের বিষয় ‘গার্ডেন অফ প্যারাডাইস'৷ ১১টি দেশের শিল্পী তাঁদের রঙিন, কাব্যময় ও কল্পনানির্ভর ডিজাইন তুলে ধরেছেন৷

একটি বাগানের উপর যেন সাদা ফুল ভেসে বেড়াচ্ছে৷ শুধু দেখতেই সুন্দর নয়, সেগুলি সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি ও শীতের প্রকোপ থেকে সুরক্ষাও দেয়৷ ইটালির ৩ নারী ল্যান্ডস্কেপ মালি হিসেবে ‘বার্ড অফ প্যারাডাইস' ও আকাশের প্রতীক হিসেবে নীচের অংশ ডিজাইন করেছেন৷ বাগান ডিজাইনার স্টেফানিয়া নারেটো বলেন, ‘‘আমাদের কাছে স্বর্গ হলো প্রকৃতির এমন এক স্থান, যেখান দিয়ে হেঁটে গেলে চমকপ্রদ গাছপালা দেখা যায়৷'' আরেক বাগান ডিজাইনার ফ্রানচেস্কা কসমাই-এর মতে, ‘‘এখানে মেঘের আকার আটকোণা দেখায়, যা ‘ফ্লোর পাজল' বা মেঝের ধাঁধা হিসেবেও আমরা ব্যবহার করেছি৷''

এক ফরাসি-থাই শিল্পীর স্বর্গোদ্যানও বেশ কাব্যময় হয়ে উঠেছে৷ সোফি কাও আর্য গোল অ্যাক্রিলিক প্যানেল রং করে পুকুরের উপর ধাতুর ডান্ডায় লাগিয়ে দিয়েছেন৷ সোফি বলেন, ‘‘পুকুর আসলে আকাশের আয়নার মতো৷ তাছাড়া এটি ফুলের বেদির মাঝে গহ্বরের মতো কাজ করে, পানিতেও যার প্রতিফলন ঘটে৷ ফলে এখানে যেন জাগতিক ও আধ্যাত্মিক সত্তার মিলন ঘটে৷ কারণ, বিষয়টাই তো স্বর্গ৷ এটি বাস্তব ও শিল্পের মধ্যে সম্পর্ক নিয়েও প্রশ্ন তোলে৷''

ভিডিও দেখুন 04:12

ফ্রান্সে পৃথিবীর স্বর্গোদ্যান!

তাঁর এই স্বর্গরাজ্যে বেশি পানির প্রয়োজন হয় না৷ পানি ছড়ানোর দামী প্রণালীর বদলে সরাসরি মাটি থেকেই গাছপালার জন্য পানি সংগ্রহ করা হয়৷ সোফি কাও আর্য বলেন, ‘‘আমরা ফ্রান্সের দক্ষিণের এই পোড়ামাটির ফুলদানি ব্যবহার করি৷ পানি ভরে সেগুলি মাটিতে পুঁতে দেওয়া হয়৷ গাছপালা সেগুলি থেকে প্রয়োজনমতো পানি গ্রহণ করে৷''

তাঁরা বেগুনি, নীল ও সাদা ফুল বেছে নিয়েছেন৷ ল্যান্ডস্কেপ মালি হিসেবে ফ্লোরিয়ান ফানডেরডংক্ট বলেন, ‘‘আমরা ফ্রান্সের দক্ষিণে এক নার্সারির সঙ্গে কাজ করি৷ তারা আমাদের সেরা ফুল খুঁজতে সাহায্য করে৷ যেমন, আমাদের সুন্দর পেটুনিয়া ফুল রয়েছে৷ এই ফুলের সাদা ছোপ আকাশের মতো৷ সাদা অ্যালিসাম ফুলও রয়েছে৷''

‘লিভিং বিহাইন্ড ওয়াল্স' এই বাগানের মূল বিষয়৷ সেখানে বাইরের প্রভাবের আড়ালে এক নিভৃত স্বর্গরাজ্য সৃষ্টি করা হয়েছে৷ উৎসবের পরিচালক শঁতাল কোল্যো-দুমঁ বলেন, ‘‘এটির মতো বেশিরভাগ বাগানই পৃথিবীর বুকে স্বর্গরাজ্য সৃষ্টি করে৷ নির্জন পরিবেশে ভাবনাচিন্তা, একাগ্রতা ও অন্তর্দৃষ্টির মাধ্যমে সেই উপলব্ধি হতে পারে৷ এখানে বাইরের দরজা খুলে দেওয়ার বার্তা দেওয়া হচ্ছে৷''

আন্তর্জাতিক উদ্যান উৎসবে ফ্রান্সের কেন্দ্রভাগের স্বর্গীয় পরিবেশে স্বর্গোদ্যান তুলে ধরা হচ্ছে৷

সুসানে ডাউস/এসবি

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন