ফ্রান্সের পার্লামেন্টে প্রথম নারী স্পিকার | বিশ্ব | DW | 29.06.2022

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ফ্রান্স

ফ্রান্সের পার্লামেন্টে প্রথম নারী স্পিকার

ইয়েল ব্রন-পিভেট ফ্রান্সে ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলির স্পিকার হলেন। ফ্রান্সের ইতিহাসে তিনিই প্রথম নারী স্পিকার। ২০১৭ থেকে তিনি পার্লামেন্ট সদস্য।

ফ্রান্সের প্রথম নারী স্পিকার।

ফ্রান্সের প্রথম নারী স্পিকার।

স্পিকার নির্বাচিত হওয়ার পর প্রথম ভাষণে ইয়েল গর্ভপাতের অধিকারের প্রসঙ্গ তুললেন। মেয়েদের প্রজননের ক্ষমতার কথা তুললেন।

ফ্রান্সের পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলিতে সবনির্বাচিত স্পিকার বলেন, ''গত শুক্রবার মার্কিন সুপ্রিম কোর্ট নিষ্ঠুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর ফলে আমরা ধাক্কা খেয়েছি। ওই রায় আমাদের মনে করিয়ে দিচ্ছে, আমাদের আরো সতর্ক হতে হবে।''

তিনি বলেছেন, ''কোনো কিছুই ধরে নেয়া ঠিক হবে না। ইতিহাস বলছে, আমরা অনেক উন্নতি করেছি। কিন্তু সেই উন্নতিকে আবার পিছনের দিকে নিয়ে যাওয়া হতে পারে। লড়াই করে মেয়েরা অধিকার পেয়েছে। মেয়েদের সজাগ থাকতে হবে। সেই অধিকার যাতে বজায় থাকে তার জন্য লড়তে হবে।''

স্পিকার নির্বাচিত হওয়ার পর প্রথম ভাষণ দি়চ্ছেন ইয়েল।

স্পিকার নির্বাচিত হওয়ার পর প্রথম ভাষণ দি়চ্ছেন ইয়েল।

নতুন স্পিকার

ইয়েল ব্রন-পিভেট দীর্ঘদিন তাইওয়ান ও জাপানে ছিলেন। তিনি সাবেক আইনজীবী। ফ্রান্স২৪ জানাচ্ছে, তার ঠাকুরদা ছিলেন পূর্ব ইউরোপের ইহুদি। ১৯৩০ নাগাদ তিনি নিপীড়নের হাত থেকে বাঁচতে ফ্রান্সে আসেন।

রাজনীতিতে তিনি খুব বেশিদিন আসেননি। আগে তিনি সোশ্যালিস্ট পার্টিতে ছিলেন। ২০১৭-র পার্লামেন্ট নির্বাচনের আগে তিনি

মাক্রোঁর জোটে যোগ দেন। তিনি এক মাস মন্ত্রীর দায়িত্বও পালন করেছেন।

জিএইচ/এসজি (এএফপি, এপি)