ফিরলেন, জিতলেন মাহাথির | বিশ্ব | DW | 10.05.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

মালয়েশিয়া

ফিরলেন, জিতলেন মাহাথির

বয়স এখন ৯২৷ মোটের উপর একসময় যে দলের হয়ে মালয়েশিয়া শাসন করেছেন, সেদলের বিরুদ্ধেই দাঁড়িয়েছিলেন তিনি৷ উদ্দেশ্য দুর্নীতি দূর করা৷ রাজনীতিতে ফিরে এসে আবারো জিতলেন তিনি৷

বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক প্রধানমন্ত্রী হতে চলেছেন মাহাথির মোহাম্মদ৷ তাঁর নেতৃত্বাধীন বিরোধী জোট মালয়েশিয়ার সাধারণ নির্বাচনে অন্তত ১১২টি আসন জয় করেছে৷ মালয়েশিয়ার সংসদে আসন সংখ্যা ২২২টি৷ ফলে সরকার গঠনে কোনো বাধা নেই তাদের৷

এই জয়ের মাধ্যমে দেশটিতে ৬০ বছর ধরে ক্ষমতায় থাকা বারিসান ন্যাশনালের আধিপত্যের অবসান ঘটলো৷ সর্বশেষ নির্বাচনে দলটি পেয়েছে ৭৯টি আসন৷ দলটির নেতা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নাজিব রেজাকের দুর্নীতির কারণে মূলত রাজনীতিতে ফেরেন মাহাথির৷ তিনি চেয়েছেন এমন এক দুর্নীতিবাজের কাছ থেকে মালয়েশিয়াকে মুক্ত করতে৷ অথচ নাজিব যে দলের নেতা মাহাথিরও সেই দলেরই রাজনীতিবিদ ছিলেন৷

 

ফলে নাজিব-মাহাথিরের মধ্যকার লড়াই ছিল এবারের নির্বাচনের মূল আকর্ষণ৷ আধুনিক মালয়েশিয়ার রূপকার হিসেবে পরিচিত মাহাথির সেই লড়াইয়ে আবারো জয়ী হয়েছেন৷ এশিয়ার মধ্যে মালয়েশিয়া এখন যে অবস্থানে রয়েছে সেটা মাহাথিরই গড়ে দিয়েছিলেন৷ তাঁর জনপ্রিয়তাতে যে বিন্দুমাত্র ভাটা পড়েনি তা প্রমাণ হলো আবারো৷

নির্বাচনে জয়ের পর মাহাথির বলেছেন, ‘‘আমরা প্রতিশোধ নিতে চাই না, আইনের শাসন পুর্নপ্রতিষ্ঠা করতে চাই৷''

মাহাথিরের পক্ষে এই জয় অবশ্য সহজ ছিল না৷ বরং বুধবার নির্বাচনের দিনও তাঁর জোট পাকাতুন হারাপান দেশটির নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ আনে৷ অনেকে ভোটার লাইনে দাঁড়িয়ে থেকেও শেষমেষ ভোট দিতে পারেননি বলে অভিযোগ করেছে জোটটি৷ আর বিদেশে বসবাসরত ভোটারদের ভোট দিতে পর্যাপ্ত সময় দেয়া হয়নি বলেও অভিযোগ রয়েছে৷ মোটের উপর কমিশন নির্বাচনের ফলাফল ঘোষণায় ইচ্ছাকৃতভাবে দেরি করছিল বলে অভিযোগ করেছেন খোদ মাহাথির মোহাম্মদ৷

উল্লেখ্য, ১৯৮১ থেকে ২০০৩ সাল অবধি মালয়েশিয়ার শাসন করেছিলেন মাহাথির মোহাম্মদ৷ দেশটির অর্থনীতিকে সমৃদ্ধ করতে ব্যাপক অবদান রাখেন তিনি৷ পাশাপাশি ক্ষমতায় থাকাকালে বিরোধী মতের উপর দমনপীড়ন চালানোর অভিযোগও উঠেছিল তাঁর বিরুদ্ধে৷ তা সত্ত্বেও দেশটির সবচেয়ে জনপ্রিয় রাজনীতিবিদ মাহাথির মোহাম্মদ৷ ৯২ বছর বয়সে পুনরায় প্রধানমন্ত্রী হলেও বেশিদিন এই পদে থাকবেন না বলেও ইঙ্গিত দিয়েছেন তিনি৷

এআই/ডিজি (এএফপি, এপি, ডিপিএ, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন