ফল্কসভাগেনের সাবেক প্রধান নির্বাহীর বিরুদ্ধে মামলা | বিশ্ব | DW | 04.05.2018
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ডিজেলগেট

ফল্কসভাগেনের সাবেক প্রধান নির্বাহীর বিরুদ্ধে মামলা

জার্মান গাড়ি নির্মাতা ফল্কসভাগেন-এর (বাংলাদেশে ভক্স ওয়াগেন নামে পরিচিত) সাবেক প্রধান নির্বাহী মার্টিন ভিন্টারকর্নের বিরুদ্ধে মার্কিন নিয়ন্ত্রকদের ভাঁওতা দেবার ষড়যন্ত্রের অভিযোগে মামলা দায়ের করেছেন মার্কিন কৌঁসুলিরা৷

ফল্কসভাগেন কোম্পানির ডিজেল গাড়িগুলি থেকে বাস্তবিক কি পরিমাণ বায়ুদূষণকারী গ্যাস নির্গত হয়, তা নিয়ে কেলেঙ্কারির সূত্র হলো একটি সফটওয়্যার, যা নিয়ন্ত্রকদের মাপার সময় এই গ্যাস নির্গমনের পরিমাণ কমিয়ে দেয় বটে, কিন্তু বাস্তবে সেই গাড়ি যখন রাস্তায় চলে, তখন দূষণ তার অনেক বেশি হয়৷ ২০১৪ সালে এই কেলেঙ্কারি প্রথম ফাঁস হয়৷ ‘ডিজেলগেটের’ ফলশ্রুতি হিসেবে ভিন্টারকর্ন ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বর মাসে পদত্যাগ করেন৷ তবে পদত্যাগের সময় তিনি বলেন যে, জ্ঞাতসারে তিনি কোনো অন্যায় করেননি৷

ঘটনাচক্র

- গত মার্চ মাসে সরকারি কৌঁসুলিরা গোপনে যে অভিযোগ দায়ের করেছিলেন, সেই অভিযোগপত্রটি  বৃহস্পতিবার ডেট্রয়েটের একটি জেলা আদালতে খোলা হয়;

- অভিযোগপত্রে বলা হয়েছে যে, ফল্কসভাগেন যে যুক্তরাষ্ট্রে ফল্কসভাগেন নির্মিত ডিজেল গাড়ি থেকে গ্যাস নির্গমন সংক্রান্ত সরকারি পরীক্ষায় কারচুপি করেছে, সে বিষয়ে ভিন্টারকর্নকে দু'বার অবহিত করা হয়েছিল: একবার ২০১৪ সালের মে মাসে, একবার ২০১৫ সালের জুলাই মাসে, অর্থাৎ ডিজেল কেলেংকারি ফাঁস হবার বেশ কিছু আগে;

- সব মিলিয়ে ভিন্টারকর্নের বিরুদ্ধে তিনবার ‘ওয়্যার ফ্রড’ বা আইটি প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে জোচ্চুরি, ও একবার ‘ক্লিন এয়ার অ্যাক্ট’ নামধারী বায়ুদূষণ সংক্রান্ত আইন ভঙ্গ করার অভিযোগ আনা হয়েছে;

- আদালতের এক মুখপাত্র বলেছেন যে, দোষী সাব্যস্ত হলে ভিন্টারকর্নের ২৫ বছর অবধি কারাদণ্ড এবং ২,৭৫,০০০ ডলার (২,৩০,০০০ ইউরো) অবধি জরিমানা হতে পারে;

- ডেট্রয়েটে মার্কিন অ্যাটর্নির (সরকারি কৌঁসুলির) অফিস থেকে জানানো হয়েছে যে, ভিন্টারকর্নকে গ্রেপ্তার করা হয়নি৷

‘একেবারে ওপর মহল পর্যন্ত’

মার্কিন অ্যাটর্নি জেনারেল (সর্বোচ্চ সরকারি কৌঁসুলি) জেফ সেসন্স একটি বিবৃতিতে বলেছেন যে, এই অভিযোগ প্রমাণ করে যে, ‘‘ফল্কসভাগেনের আইনগত শর্তাবলী ফাঁকি দেওয়ার প্রচেষ্টা সংস্থাটির একেবারে ওপর মহল পর্যন্ত গেছে৷’’

ফল্কসভাগেন বলেছে যে, তারা ব্যক্তিগত আইনগত মামলা সম্পর্কে কোনো মন্তব্য করবে না এবং ফল্কসভাগেন পূর্বাপর মার্কিন আইন মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে সহযোগিতা অব্যাহত রেখেছে৷

আদালতে হাজির হতে হবে না: মার্কিন প্রশাসন বলেছে যে, ভিন্টারকর্ন জার্মানিতে অবস্থান করছেন, বলে তাদের ধারণা৷ ৭০ বছর বয়সি ভিন্টারকর্ন যদি সত্যিই জার্মানিতে থাকেন, তবে তাঁর একটি মার্কিন আদালতে আসামি হিসেবে হাজির হওয়ার সম্ভাবনা কম, কেননা জার্মান সরকার অতি বিরল উপলক্ষ্যে একজন জার্মান নাগরিককে হস্তান্তরের অনুরোধ গ্রাহ্য করেন৷

শুধু ভিন্টারকর্ন নন: মার্কিন কৌঁসুলিরা ডিজেল কেলেংকারির ব্যাপারে ইতিমধ্যেই ফল্কসভাগেন কোম্পানির আটজন ম্যানেজারের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন৷ ইতিমধ্যে তাদের মধ্যে দু'জন দোষ স্বীকার করেছেন, বাকি ছ'জন জার্মানিতে রয়েছেন, কাজেই তাদের যুক্তরাষ্ট্রে হস্তান্তরের কোনো সম্ভাবনা নেই৷

জার্মান তদন্ত চলেছে: ডিজেল গাড়ি থেকে গ্যাস নির্গমনের পরিমাণ সংক্রান্ত কেলেংকারিতে ভিন্টারকর্ন সহ ফল্কসভাগেন কোম্পানির অপরাপর নির্বাহীদের ভূমিকার ব্যাপারে জার্মান কর্তৃপক্ষ তাদের নিজস্ব তদন্ত চালাচ্ছেন৷ জার্মানিতেও সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে জুয়াচুরি ও ফাটকাবাজির অভিযোগ আনা হয়েছে৷

এসি/ডিজি (রয়টার্স, ডিপিএ, এপি, এএফপি)

গতবছরের জুলাই মাসের ছবিঘরটি দেখুন...

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন