প্রধানমন্ত্রীকে আনতে যাওয়া পাইলট কাতারে আটক | বিশ্ব | DW | 06.06.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ

প্রধানমন্ত্রীকে আনতে যাওয়া পাইলট কাতারে আটক

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের উড়োজাহাজ নিয়ে পাইলট ঢাকা ছেড়েছিলেন৷ গিয়েছিলেন ফিনল্যান্ড থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আনতে৷ কিন্তু সঙ্গে পাসপোর্ট না থাকায় কাতারে আটকে দেয়া হয়েছে তাঁকে৷

Biman Bangladesh Airlines Flugzeug (picture-alliance/NurPhoto/S. Ramany)

ফাইল ফটো

ডয়চে ভেলের কন্টেন্ট পার্টনার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের খবর অনুযায়ী, পাইলট ফজল মাহমুদকে সঙ্গে পাসপোর্ট নিয়ে না যাওয়ায় কাতারে আটকে দেয়া হয়েছে৷ খবর পেয়ে আরেকটি ফ্লাইটে তাঁর পাসপোর্ট কাতারে পাঠানো হয়েছে৷ এ খবন নিশ্চিত করেছেন বিমান সচিব মহীবুল হক৷

বৃহস্পতিবার রাতে তিনি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান ওই পা্ইলট পাসপোর্ট ছাড়া কীভাবে হযরত শাহজালাল বিমানবন্দর পার হয়ে গেলেন তা গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করে দেখা হবে৷

পাসপোর্ট সঙ্গে না থাকায় পাইলট ফজল মাহমুদকে বুধবার দোহা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইমিগ্রেশন আটকে দেয়৷ এ খবর সোশাল মিডিয়ায় উঠে আসার পর বিষয়টি সম্পর্কে সচিবের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ‘‘বুধবার রাতের ওই ঘটনায় কাতারে ওই পাইলটকে আটক করা হয়নি। তাঁকে একটি হোটেলে থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছিল। পরে রিজেন্ট এয়ারওয়েজের ফ্লাইটে তার পাসপোর্ট পাঠানো হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীকে ওই পাইলটই দেশে ফিরিয়ে আনবেন৷''

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তিন দেশে সরকারি সফরের এ পর্যায়ে ফিনল্যান্ডে রয়েছেন। শনিবার তাঁর দেশে ফেরার কথা৷

প্রধানমন্ত্রীকে ফিনল্যান্ড থেকে আনতে বুধবার রাতে ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে উড়াল দেয় বিমানের বোয়িং ৭৮৭ মডেলের ড্রিমলাইনার উড়োজাহাজ৷ সেই ফ্লাইটের পাইলট ছিলেন ক্যাপ্টেন ফজল মাহমুদ৷

এসিবি/কেএম (বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন