প্রত্যর্পণ বিলের বিরুদ্ধে হংকংয়ে বিক্ষোভ, সংঘর্ষ | বিশ্ব | DW | 12.06.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

হংকং

প্রত্যর্পণ বিলের বিরুদ্ধে হংকংয়ে বিক্ষোভ, সংঘর্ষ

প্রত্যর্পণ বিল পাস না করার দাবিতে হংকংয়ে বিক্ষোভ আরো প্রবল হয়েছে৷ রাস্তায় নেমে আসা কয়েক হাজার মানুষ সংসদের দিকে যাওয়ার চেষ্টা করলে পুলিশের সঙ্গে তাদের সংঘর্ষ শুরু হয়৷ 

৯ জুন বন্দি প্রত্যর্পণ বিল প্রস্তাব করার পর থেকেই হংকংয়ে বিক্ষোভ শুরু হয়৷ চীনের প্রস্তাব করা এ বিলটি নিয়ে বুধবার সকালে সংসদে বিতর্ক হওয়ার কথা৷ এ কারণে মঙ্গলবার রাতেই বিক্ষোভকারীরা আবার রাস্তায় নেমে আসে৷ বুধবার সকাল থেকে তারা সরকারি অফিসে যাওয়ার প্রধান সড়কগুলো কার্যত বন্ধ করে দেয়৷

পরে সংসদের দিকে যাওয়ার চেষ্টা করলে পুলিশ তাদের বাধা দেয়৷বিক্ষোভকারীরা পুলিশের দিকে প্লাস্টিকের বোতল ছুড়তে শুরু করে৷ পুলিশ রাবার বুলেট ও কাঁদানে গ্যাস ছুড়লে বিক্ষোভকারীরা ছুটোছুটি শুরু করে৷ এ সময় আশপাশের দোকানপাটের শাটার দ্রুত নামিয়ে দিতে দেখা যায়৷

হংকংয়ের পুলিশ প্রধান স্টিফেন লো বলেছেন, ‘‘বিক্ষোভকারীদের সহিংসতা থামাতেই হবে৷'' এ সময় সাধারণ মানুষের প্রতি ‘দাঙ্গা পরিস্থিতি' থেকে দূরে থাকার আহ্বানও জানান তিনি৷

চীনের প্রস্তাব করা বিলটি নিয়ে বুধবার দ্বিতীয় দফা বিতর্কের জন্য সংসদ অধিবেশন বসার কথা থাকলেও হংকংয়ের আইন পরিষদ (লেগকো) এক বিবৃতির মাধ্যমে তা অনির্দিষ্ট কালের জন্য পিছিয়ে দিয়েছে৷ বিবৃতিতে বলা হয়, অধিবেশনটি পরে কোনো এক সময় অনুষ্ঠিত হবে৷

গতবছর হংকংয়ের এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে তাইওয়ানে ছুটি কাটানোর সময় অন্তঃসত্ত্বা বান্ধবীকে হত্যার অভিয়োগ ওঠে৷ কিন্তু তাইওয়ানের সঙ্গে হংকংয়ের কোনো চুক্তি না থাকায় সেই ব্যক্তিকে এখন তাইপেতে বিচারের জন্য পাঠানো যাচ্ছে না৷ প্রস্তাবিত বিলে এমন সন্দেহভাজনদের ফেরত পাঠানোর পথ সুগম করা হয়েছে৷

চীন জানিয়েছে, বিলটি পাশ করার ব্যাপারে হংকং সরকারের প্রতি তাদের সমর্থন বজায় থাকবে৷ বুধবার চীনের মুখপাত্র গেং শুয়াং সংবাদ মাধ্যমকে এ কথা জানান৷ এ সময় হংকংয়ের চলমান পরিস্থিতি নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রকে সতর্কভাবে কথা বলা এবং কাজ করার আহ্বানও জানান তিনি৷

এসিবি/এমকে (এএফপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন