প্রতিবন্ধী ফিলিস্তিনির মৃত্যুর ভিডিও ভাইরাল | বিশ্ব | DW | 25.12.2017
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ভাইরাল ভিডিও

প্রতিবন্ধী ফিলিস্তিনির মৃত্যুর ভিডিও ভাইরাল

আবু থুরাইহে ফিলিস্তিনের একটি প্রতিবাদী কণ্ঠ৷ ইসরায়েলি আগ্রাসনের বিরুদ্ধে বরাবরই সোচ্চার ছিলেন তিনি৷ হুইল চেয়ারে বসেই জানাতেন প্রতিবাদ৷ ইসরায়েলি সেনাদের গুলিতে ১৫ ডিসেম্বর প্রাণ হারান এই অ্যাকটিভিস্ট৷

‘জেরুসালেম হবে ইসরায়েলের রাজধানী' – মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানাতে ১৫ই ডিসেম্বর গাজা সীমান্তে অন্য আরো অনেকের সঙ্গে বিক্ষোভে নেমেছিলেন অ্যাকটিভিস্ট আবু থুরাইহে৷ কিন্তু ইসরায়েলি বাহিনীর হাতে সেদিন প্রাণ হারান তিনি৷ গাজার চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ঐ একই দিনে আরও চারজনকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে৷ আবু থুরাইহে তাঁদের মধ্যে একজন৷ গুলিতে আহত হয়েছিল অন্তত দেড়শ জন ফিলিস্তিনি৷ সেদিন গাজা সীমান্তে আড়াই হাজার ফিলিস্তিনি বিক্ষোভে অংশ নিয়েছিল৷

২৯ বছর বয়সি প্রতিবন্ধী থুরাইহে ইসরায়েলের বিরুদ্ধে প্রতিটি বিক্ষোভেই অংশ নিতেন৷ গণমাধ্যমকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি একবার জানিয়েছিলেন, ২০০৮ সালে গাজায় ইসরায়েলি ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় দু'টি পা হারান তিনি৷

থুরাইহের মৃত্যুর পর তাঁকে নিয়ে ‘মিডল ইস্ট আই'-এর একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায়, যেখানে তাঁকে কেবল প্রতিবাদ জানাতে দেখা গেছে৷ আর এ সব ভিডিও দেখে জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক দূত জাইদ রা'দ আল-হুসেইন বলেছেন, ‘‘থুরাইহে এমন কোনো আচরণ করেননি যার কারণে তাঁকে আক্রমণাত্মক বা ঝুঁকিপূর্ণ মনে হয়েছে৷ তারঁ মাথায় খুব কাছ থেকে গুলি করেছে ইসরায়েলি বাহিনী৷ অথচ তারা একবারও ভাবেনি থুরাইহে একজন প্রতিবন্ধী৷ এটা কী পরিমাণ অমানবিক!'' তবে ইসরায়েল যথারীতি এর বিরোধিতা করে বলেছে যে তারা থুরাইহেকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়নি৷

এপিবি/ডিজি

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন