প্রকৃতির সঙ্গে মানিয়ে অভিনব বাড়ি | বিশ্ব | DW | 20.04.2017
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

অন্বেষণ

প্রকৃতির সঙ্গে মানিয়ে অভিনব বাড়ি

নিজের হাতে নিজেরই বসতবাড়ি বানানোর কাজ সহজ নয়৷ সুইডেনের এক মিস্ত্রী প্রকৃতির কোলেই এমন অসাধ্য সাধন করেছেন৷ তবে এত পরিশ্রমের ফলে তাঁর ওজন কমে গেছে৷ নির্মাণের সময় ঘটেছে আরও অনেক কিছু৷

ভিডিও দেখুন 03:55
এখন লাইভ
03:55 মিনিট

প্রকৃতির কোলে অভিনব বাড়ি

স্টকহোম শহরের উপকণ্ঠে প্রায় ২০ কিলোমিটার উত্তরে বসতি এলাকায় আলান স্পিগেল-এর বাড়ি৷ স্ত্রী ও দুই সন্তান নিয়ে তিনি সেখানে থাকেন৷ তুষার যুগের এক টিলার উপর কাঠের বাড়িটি শোভা পাচ্ছে৷ অন্যান্য অনেক প্রতিবেশীর মতো তিনি কিন্তু টিলায় কোনো পরিবর্তন করেন নি৷ আলান বলেন, ‘‘বাড়িকে প্রকৃতির সঙ্গে মানিয়ে তৈরি করা প্রকৃতিকে বাড়ির সঙ্গে খাপ খাওয়ানোর প্রচেষ্টার তুলনায় অনেক বেশি স্বাভাবিক৷ ডিনামাইট দিয়ে টিলা ভাঙলে আবার তা ভরাট করে প্রকৃতিকে নতুন করে তৈরি করার চেষ্টা করতে হতো৷ প্রথমত সেটি অত্যন্ত ব্যয়বহুল, দ্বিতীয়ত অত্যন্ত কুশ্রী হতো৷''

পেশায় ছুতোর মিস্ত্রী তাঁর এক স্থপতি বন্ধুর সঙ্গে তিনি বাড়ির নক্সা তৈরি করেন৷ অনেকগুলি কন্টেনার পরস্পরের সঙ্গে জুড়লে যেমন দেখায়, বাড়িটি অনেকটা সে রকম দেখতে৷ আলান স্পিগেল বলেন, ‘‘আমি নতুন জিনিস তৈরি করতে ভালোবাসি৷ যেমন দৈনন্দিন কাজের অংশ হিসেবে আসবাবপত্র তৈরি করি৷ সবসময়ে কিছু উন্নতির চেষ্টা করি, আরও পাতলা বা শক্তিশালী করে গড়ি৷ আপনি সুইডেনে সাধারণ কাঠের বাড়ি চাইলে আমি চোখ বুজে তা গড়ে দিতে পারি৷ হাতুড়ি আর করাতের ব্যবহার জানলে অনেকের কাছেই কাজটি বেশ সহজ হয়ে উঠবে৷''

এই দুই তলা বাড়িটিও তিনি নিজে তৈরি করেছেন৷ নীচের তলায় একটাই বড় ঘর৷ আলান ঠিক এমনটাই চেয়েছিলেন৷ তিনি ও তাঁর পরিবার চান, বাড়িটি যেন এক এক মিলনক্ষেত্র হয়ে উঠুক৷ সেইজন্যে ঘরের মাঝেই রয়েছে রান্নাঘর৷ আলান বলেন, ‘‘সুইডেনে বছরের ৬ মাসই শীত থাকে৷ তাই বাসায়ই বন্ধু-বান্ধবদের সঙ্গে দেখা করতে হয়৷ স্পেনের সঙ্গে তুলনা করলে দেখবেন, সবাই বন্ধুবান্ধবদের সঙ্গে বাইরে গিয়ে ডিনার সারে৷ কিন্তু সুইডেনে সেটা হয় না৷ লোকে রেস্তোরাঁয় যায় ঠিকই, কিন্তু সপ্তাহে ৩-৪ দিন নয়৷ তাই সুইডেনে এমন বাড়ি থাকা জরুরি, যেখানে বন্ধু-বান্ধবদের ডাকা যায়৷''

নিজের হাতে বাড়িটি তৈরি করেছেন আলান স্পিগেল৷ কঠোর পরিশ্রমের ফলে ১০ কিলো ওজন কমে গেছে৷ কারণ মিস্ত্রী হিসেবেও তিনি প্রথমবার অনেক কিছু করেছেন৷ কিছু বিঘ্নও ঘটেছে৷ আলান স্পিগেল বলেন, ‘‘আমি আবার রং চিনতে পারি না৷ সঙ্গে সবসময় একজন সহকারী ছিল৷ বাড়ি তৈরির সময় দু'জন মিলে কাজ করতাম, কারণ একা সব কাজ করা যায় না৷ এবং বাড়িটির চারটি রং রয়েছে৷ একটা গোটা দিন ধরে আমরা রং করছিলাম৷ একটি দেয়ালে রং করার পর দুপুরে আমার স্ত্রী এসে বললেন, ভুল রং করা হয়েছে৷ বন্ধুর উপর রাগ হয়ে গেল, কারণ আমি তো তাকে বলেইছিলাম যে আমি রং চিনি না৷ তখন সে বললো, সেও রং চেনে না!''

তবে তা সত্ত্বেও সুইডেনের ভিলা আলটোনা তৈরির কাজ শেষ হয়েছে৷

আক্সেল প্রিমাভেসি/এসবি

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন