প্রকাশ ঝায়ের উপর বজরং দলের আক্রমণ | বিশ্ব | DW | 25.10.2021

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

ভারত

প্রকাশ ঝায়ের উপর বজরং দলের আক্রমণ

তার ওয়েব সিরিজ হিন্দু সংস্কৃতি-বিরোধী। এই অভিযোগে প্রকাশ ঝায়ের সেটে ঢুকে তাণ্ডব চালালো বজরং দল।

মধ্যপ্রদেশের ভোপালে ওয়েব সিরিজের শুটিং করছেন পরিচালক প্রকাশ ঝা। তার ওয়েব সিরিজের নাম 'আশ্রম'। তৃতীয় সিজনের শুটিং চলছে এখন। রোববার শুটিং সেটে পৌঁছে যায় বজরং দলের কর্মীরা। সেটের বাইরে দাঁড়িয়ে থাকা একাধিক গাড়ি ভাঙচুর করে তারা। দুই-একজনকে মারধরও করা হয়। এরপর সরাসরি সেটে ঢুকে পড়ে পরিচালকের মুখে কালি লাগিয়ে দেয় তারা। ওয়েব সিরিজের অন্যতম প্রধান চরিত্র ববি দেওলকেও খুঁজছিল বজরং দল কর্মীরা। কিন্তু তাকে পাওয়া যায়নি।

ঘটনার পরে বজরং দল জানায়, ওয়েব সিরিজটি নিয়ে তাদের আপত্তি নেই। কিন্তু সিরিজের নাম নিয়ে তাদের আপত্তি আছে। প্রকাশ ঝাকে ওই নাম বদলাতে হবে।

মূলত ভণ্ড বাবাজিদের নিয়ে তৈরি ওই সিরিজ। একটি আশ্রমে সেই ভণ্ডামি হয়। ফলে ছবির নামও আশ্রম। বজরং দলের কর্মীদের বক্তব্য, আশ্রম শব্দটির সঙ্গে প্রাচীন ভারতের সংস্কৃতি জড়িয়ে। মুনিঋষিরা আশ্রমে থাকতেন। সেই থেকে এদেশের সংস্কৃতির সঙ্গে আশ্রমের যোগ। বিষয়টিকে পবিত্র মনে করেন হিন্দু জনমানস। আশ্রমের সঙ্গে ভণ্ডামি, দুর্নীতি জড়িয়ে সেই সংস্কৃতির অপমান এবং অবমাননা করছেন প্রকাশ। বজরং দলের দাবি, ঘটনার পরে প্রকাশ তাদের সঙ্গে কথা বলেছেন। সিরিজের নাম বদলাতেও রাজি হয়েছেন। যদিও প্রকাশ ঝা এ বিষয়ে সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে রাজি হননি। বজরং দলের দাবি ঠিক কি না, তা জানা যায়নি।

ভারতের একাধিক আশ্রম নিয়ে বহু বিতর্ক হয়েছে। ওশো-র আশ্রম, বাবা রামরহিমের আশ্রমের অপকীর্তি প্রকাশ্যে এসেছে। আরো বহু আশ্রমে অনৈতিক কাজকর্ম হয় বলে অভিযোগ শোনা গেছে। এ নিয়ে এর আগেও নানা লেখালেখি হয়েছে। ছবি এবং ওয়েব সিরিজও তৈরি হয়েছে। সেক্রেড গেমস একই ধরনের বিষয় নিয়ে তৈরি হয়েছিল। যা রীতিমতো আলোড়ন ফেলে দিয়েছিল। সেক্রেড গেমস নিয়েও সরব হয়েছিল বজরং দল। এবার প্রকাশ ঝায়ের মতো বিশিষ্ট পরিচালকের মুখে তারা কালি লাগিয়ে দিল।

প্রশ্ন উঠছে, কী করে সেট পর্যন্ত পৌঁছাতে পারল ওই কর্মীরা? কেন পুলিশ দ্রুত ব্যবস্থা নিল না? কেন প্রকাশের সেটে যথেষ্ট নিরাপত্তা ছিল না? রোববারের ঘটনা নিয়ে ভারতীয় সংস্কৃতি জগতে সমালোচনার ঝড় উঠেছে।

এসজি/জিএইচ (পিটিআই)