পোষা হরিণের আক্রমণে মৃত্যু! | বিশ্ব | DW | 17.04.2019
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

পোষা হরিণের আক্রমণে মৃত্যু!

পোষা হরিণের আক্রমণে অষ্ট্রেলিয়ায় এক ব্যক্তি মারা গেছেন, মারাত্মক আহত হয়েছেন তাঁর স্ত্রী৷

স্থানীয় পুলিশ জানায়, অষ্ট্রেলিয়ার উত্তর ভিক্টোরিয়া অঞ্চলে ৪৭ বছর বয়সি পল ম্যাকডোনাল্ড বুধবার সকালে নিজের পোষা হরিণটিকে খাবার দিতে খামারে প্রবেশ করেন৷ এ সময় হরিণটি তাঁকে মারাত্মকভাবে আঘাত করে৷

খামারে ধস্তাধস্তির আওয়াজ শুনে এগিয়ে যান পলের স্ত্রী ম্যান্ডি৷ স্বামীকে রক্ষা করতে এগিয়ে গেলে হরিণটি তাঁকেও মারাত্মকভাবে আহত করে৷ এ অবস্থা দেখে আক্রান্ত দম্পতির ছেলে স্থানীয় পুলিশ ও চিকিৎসকদের খবর দেয়৷ খবর পেয়ে ছুটে এসে স্থানীয় একজন চিকিৎসক ম্যাকডোনাল্ড ও তাঁর স্ত্রীকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেন৷ কিন্তু পল ম্যাকডোনাল্ড ঘটনাস্থলে নিহত হয়৷ এদিকে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে এসে আহত অবস্থায় ম্যান্ডিকে উদ্ধার করে৷ পরে তাঁকে হাসপাতালে পাঠানো হয়৷

এ সময় পুলিশ হরিণটিকে চেতনানাশক ঔষধ দিয়ে অচেতন করে৷ প্রায় ছয় বছর ধরে হরিণটি পুষছিলেন ম্যাকডোনাল্ড দম্পতি৷

হরিণের উৎপাত বাড়ছে

অষ্ট্রেলিয়ার একটি গবেষণা সংস্থার বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যম জানায়, গত ২০০০ সাল থেকে ২০১৩ সালের মধ্যে অষ্ট্রেলিয়াতে বিভিন্ন প্রাণীর আক্রমণে নিহতের ঘটনা ঘটলেও হরিণের  আক্রমনে নিহতের কোনো ঘটনা ঘটেনি৷ তবে দেশটিতে ফেরাল প্রজাতির হরিণের সংখ্যা ভিক্টোরিয়া রাজ্যে বাড়ছে বলে সতর্ক করেছে কর্তৃপক্ষ৷ গতবছর এক সরকারি প্রতিবেদনে বলা হয়, বন্য হরিণের কারণে দেশটিতে সড়ক দুর্ঘটনার সংখ্যা বাড়ছে৷ 

দেশটির বিভিন্ন রাজ্যে হরিণের উৎপাতের বিষয়ে গত কয়েকবছর ধরেই সতর্ক করে আসছিল বিভিন্ন সংস্থা৷ হরিণের উৎপাতের বিষয়ে দেশটির ভিক্টোরিয়া রাজ্যের ন্যাশনাল পার্ক অ্যাসোসিয়েশন কর্তৃপক্ষ গত বছর এক বিবৃতিতে জানায়, হরিণের উৎপাতে রাজ্যটির রেইনফরেস্ট ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে৷ শুধু তাই নয়, হরিণগুলো রাস্তাঘাটেরও ক্ষতিসাধন করছে৷

আরআর/এসিবি (বিবিসি, নিউজডটকমডটএউ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

বিজ্ঞাপন