পুলিশের বিরুদ্ধে প্যারিসে বিক্ষোভ | বিশ্ব | DW | 09.02.2017
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ইউরোপ

পুলিশের বিরুদ্ধে প্যারিসে বিক্ষোভ

এক কৃষ্ণাঙ্গ তরুণকে গ্রেপ্তার করার সময় তার পশ্চাদ্দেশে ‘এক্স্প্যান্ডেবল ব্যাটন’ ঢোকানোর অভিযোগকে কেন্দ্র করে ফ্রান্সের রাজধানীতে শুরু হয়েছে প্রতিবাদ-বিক্ষোভ৷

শুধু রাজধানী প্যারিসই নয়, প্যরিসের কাছাকাছি শহরগুলিতেও পুলিশি নিপীড়নের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ মিছিল হয়েছে৷ থিও নামের এক কৃষ্ণাঙ্গ তরুণকে গ্রেপ্তার করার সময় তার পশ্চাদ্দেশে ব্যাটন ঢোকানোর অভিযোগই সবচেয়ে বেশি উত্তেজনার সৃষ্টি করেছে৷ এই অভিযোগ এনেছেন থিও’র আইনজীবী স্বয়ং৷

থিও’র আইনজীবীর বিবৃতি অনুযায়ী, পুলিশ থিওকে গ্রেপ্তার করার সময় কাঁদানে গ্যাস ব্যবহার করে ও ‘ড্রাগ বেচার সময় মাদক ব্যবসায়ীদের চররা যে ধরনের ডাক দেয়’, সে ধরনের ডাক শুনতে পেয়ে ‘পুলিশকর্মীদের একজন একটি এক্স্প্যান্ডেবল ব্যাটন ব্যবহার করেন৷’ ঘটনাটি ঘটে গত বৃহস্পতিবার প্যারিসের উত্তরে অলনে-সু-বোয়া হাউজিং এস্টেটে৷

রবিবার সংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে ও আরো চারজন পুলিশ কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে৷ থিও এখ হাসপাতালে৷ তার পায়ুপথ, মাথা ও মুখের চিকিৎসা চলছে৷ আগামী দু'মাসের জন্য তার কাজ করার অবস্থা থাকবে না বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন৷

মঙ্গলবার ফরাসি প্রেসিডেন্ট ফঁসোয়া ওলঁদ হাসপাতালে গিয়ে থিও’র সঙ্গে দেখা করেন৷ থিও এবং ফরাসি প্রধানমন্ত্রী ব্যার্না কাজন্যোভ, উভয়েই জনসাধারণের প্রতি শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন৷

বিভিন্ন প্রশ্ন

অলনে-সু-বোয়া হাউজিং এস্টেট সেইন-সঁ-দেনি এলাকার অংশ৷ সেইন-সঁ-দেনি সাধারণ পরিষদের প্রধান স্তেফান ত্রুসের মতে, থিও’র ঘটনা থেকে বিভিন্ন প্রশ্ন উঠে আসে৷ ‘‘যদিও হাজার হাজার পুলিশকর্মী সঠিকভাবে তাদের কাজ করছেন... বড় বেশি ক্ষেত্রে গ্রেপ্তারের ঘটনা শেষ হয় সংশ্লিষ্ট তরুণটির পক্ষে একটি দুঃস্বপে,’’ বিবৃতিতে বলেছেন ত্রুসে৷

দরিদ্রদের এলাকার সন্দেহভাজন ব্যক্তিদের, বিশেষ করে সেই ব্যক্তিরা যদি আফ্রিকান বংশোদ্ভূত হন, তাহলে তাদের বিরুদ্ধে ফরাসি পুলিশ মাত্রাধিক বলপ্রয়োগ করে বলে অভিযোগ রয়েছে৷

প্রতিবাদ, দাঙ্গা

গত পাঁচ দিন ধরে প্যারিস ও তার আশপাশের এলাকায় থিও’র ঘটনা নিয়ে প্রতিবাদ ও দাঙ্গা চলেছে৷ হাজার হাজার মানুষ পথে নেমেছেন ও ফ্রান্সের পাঁচটি শহরে বেশ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে৷

বুধবার পুলিশ সেইন-সঁ-দেনি এলাকায় ১৭ জনকে আটক করে৷ অলনে-সু-বোয়ায় একদল তরুণ একটি সিত্রোয়েন গাড়ির শো-রুমের গাড়ির ক্ষতি করে৷ সেখানে মোট ক্ষতির পরিমাণ দু’লাখ ইউরো বলে প্রকাশ৷

অশান্তির আগুন ২০০৫ সালের মতো হলে ফ্রান্সব্যাপী দাবানলে পরিণত হতে পারে৷ সেবার দাঙ্গা সারাদেশে, বিশেষ করে দরিদ্র, অভিবাসী এলাকাগুলিতে ছড়িয়ে পড়েছিল৷

কেবিডি/এসি/এসিবি (এএফপি, এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন