পুরুষ ও নারীর মস্তিষ্কে কি পার্থক্য আছে? | অন্বেষণ | DW | 19.01.2022

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

অন্বেষণ

পুরুষ ও নারীর মস্তিষ্কে কি পার্থক্য আছে?

জার্মানির এক গবেষণা কেন্দ্রে মস্তিষ্কের গঠন নিয়ে গবেষণা চলছে৷ তারা একটি থ্রিডি ম্যাপ তৈরি করেছেন যেখানে মস্তিষ্কের ভেতরের স্নায়ু ও অন্যান্য গঠন খুব ভালোভাবে দেখা যায়৷

দুই লিঙ্গের মস্তিষ্কের মধ্যে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য যে পার্থক্য দেখা গেছে সেটা হচ্ছে, পুরুষদের মস্তিষ্ক নারীদের চেয়ে আকারে বড়৷ কিন্তু তাই বলে পুরুষদের মস্তিষ্ক ভালো ও দ্রুত কাজ করে, এমন মনে করার কারণ নেই বলে জানিয়েছেন জার্মানির হেল্মহলৎস গবেষণা কেন্দ্রের নিউরোসায়েন্টিস্ট সুজানে ভাইস৷

২০১৩ সালের এক বিতর্কিত গবেষণায় দুই লিঙ্গের মধ্যে আরেকটি পার্থক্য খুঁজে পাওয়ার দাবি করা হয়েছিল৷ এতে বলা হয়েছিল, নারী মস্তিষ্কের দুই অংশের একে অন্যের সঙ্গে যোগাযোগ পুরুষদের চেয়ে ভালো৷ আর পুরুষদের ক্ষেত্রে মস্তিষ্কের প্রতিটি অংশের অভ্যন্তরে যোগাযোগ ভালো৷ 

মানুষ যে মনে করে পুরুষ ও নারীর কিছু বৈশিষ্ট্য আলাদা, ঐ গবেষণার তথ্য সেটাই প্রমাণ করে৷ যেমন মানুষ মনে করে, মেয়েরা পুরুষদের চেয়ে বেশি সহানুভূতিশীল৷

ভিডিও দেখুন 03:42

পুরুষের মস্তিষ্ক নারীর চেয়ে বড়

তবে নতুন গবেষণায় দেখা গেছে পুরুষ ও নারীর মস্তিষ্কে ততটা পার্থক্য নেই৷ বরং অনেকের ধারনার চেয়েও দুই লিঙ্গের মস্তিষ্কে অনেক মিল আছে৷

সুজানে ভাইস বলেন, ‘‘পুরুষ ও নারীর মস্তিষ্কের চেয়ে সমলিঙ্গের, অর্থাৎ দুজন পুরুষ কিংবা দুজন নারীর মস্তিষ্কের মধ্যে বেশি পার্থক্য দেখা গেছে৷ গবেষণায় দেখা গেছে, মেয়েরা ভাষা শিক্ষায় ভালো, আর ছেলেরা ভালো বিজ্ঞানে৷ কিন্তু এসব গবেষণায় খুব কম নমুনা নেয়া হয়েছে৷ আপনি যদি মাত্র ২০, ৫০ কিংবা ১০০ মানুষের উপর গবেষণা করেন তাহলে আসলে পুরো ছবিটা উঠে আসে না৷''

কিন্তু পুরো ছবিটা আসলে কী? পুরুষ ও নারীর দক্ষতার পার্থক্য খুঁজতে হাজার হাজার গবেষণা হয়েছে৷ ফলাফল? আসলে তেমন নেই৷ বরং পার্থক্যের চেয়ে মিলই বেশি পাওয়া গেছে৷

ফ্রাঙ্ক বয়মার/জেডএইচ

সংশ্লিষ্ট বিষয়