পুরুষের পোশাকের ডিজাইনার | অন্বেষণ | DW | 28.04.2022

ডয়চে ভেলের নতুন ওয়েবসাইট ভিজিট করুন

dw.com এর বেটা সংস্করণ ভিজিট করুন৷ আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি! আপনার মতামত সাইটটিকে আরো সমৃদ্ধ করতে পারে৷

  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages
বিজ্ঞাপন

অন্বেষণ

পুরুষের পোশাকের ডিজাইনার

পুরুষদের জন্য সাধারণ ধারণার বাইরে গিয়ে পোশাক ডিজাইন করে বেশ সাড়া ফেলেছেন তুরস্কের এক ডিজাইনার৷ পুরোনো ঐতিহ্য ধরে রাখার পাশাপাশি টেকসই উপাদান ব্যবহার করে পরিবেশসম্মত পোশাক তৈরিও তার লক্ষ্য৷

ইস্তাম্বুল৷ পুরুষদের জন্যও একটা ফ্যাশন নগরী৷ হাতিজে গ্যোকচে তাদের জন্য এনেছেন ভিন্ন রকমের ডিজাইন৷

২০০৯ সালে ‘ব্ল্যাক ক্রো' নামের নকশা নিয়ে শুরু করেন এই তুর্কি ডিজাইনার৷ সেখানে ছিল প্রচুর চামড়ার ব্যবহার, কালো ও কাকের মতো৷ কাক এমন একটি প্রাণী যাকে অনেকেই ভয় পান৷ সেভাবেই নিজেকে ফ্যাশন দুনিয়ায় প্রতিষ্ঠিত করতে চান হাতিজে৷ কাক হলো তার প্রতীক৷

ইস্তাম্বুলের নিশানতশে এলাকায় এই ডিজাইনারের স্টুডিও৷ তুরস্কের অনেক ডিজাইনারের শোরুম আছে এখানে৷

হাতিজে বলেন, ‘‘সাধারণত ফ্যাশন দুনিয়া নারীদের ঘিরেই আবর্তিত৷ পুরুষরা নিজেদের সামাজিক ইমেজ রক্ষায় ড্রেসকোডের শৃঙ্খলে বন্দি৷ তাদের পোশাকের রঙ, আকার ও উপাদান সামাজিক প্রত্যাশায় সীমাবদ্ধ৷ আমি সেটা ভাঙতে চাই৷ এখানটায় খুবই শূন্যতা, কোন ডিজাইনার নেই৷ পুরুষদের ফ্যাশনের জন্য কোনো ডিজাইনার ছিল না৷''

গেল ২২ বছর ধরে ফ্যাশন শিল্পে কাজ করছেন হাতিজে৷ ফ্যাশন দুনিয়ায় নিজের নামও প্রতিষ্ঠা করেছেন৷ তিনি জানান, শুরুর দশ বছর খুবই কঠিন ছিল৷ তুরস্কে পুরুষদের ফ্যাশন ডিজাইনিংয়ের পথিকৃৎ বলা হয় তাকে৷ ইস্তাম্বুলে মিমার সিনান ইউনিভার্সিটি অফ ফাইন আর্টসে পড়াশোনা করেছেন তিনি৷ তার নকশা আন্তর্জাতিক পুরস্কার পেয়েছে৷

তুরস্কে পুরুষদের পোশাকের এক নারী ডিজাইনার

অন্য কাজের পাশাপাশি তিনি মিউজিশিয়ানদের জন্যও পোশাক নকশা করেন৷ যেমন তার গ্রাহক তুর্কি পপস্টার তারকান৷

তার সবশেষ কালেকশন ‘নিউবর্ন'-ও বিশেষ গুরুত্ব বহন করে৷ কাপড়গুলো তৈরি করা হয়েছে টেকসই উপাদান দিয়ে৷ প্রকৃতির প্রতি সচেতনতা দিন দিন গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠছে তার কাজে৷

‘‘মহামারির পর আমাদের সবার জীবন বদলে গেছে৷ মহামারির আগেই ফ্যাশনে একটা বিপ্লব আসছিল৷ টেকসই ফ্যাশন নিয়ে খুব জরুরি উদ্যোগ নেয়া হয়েছে৷ তবে মহামারি এর গতি বাড়িয়ে দিয়েছে৷ তাই আপনি আজ বলতে পারেন, টেকসই ফ্যাশনই আজকের মূল ভিত্তি,'' বলেন হাতিজে৷ 

হাতিজে গ্যোকচে তার নকশা দিয়ে পুরোনো ঐতিহ্য সংরক্ষণ করেন৷ নিউবর্ন কালেকশনের জন্য তিনি হাতে বোনা উলের ফ্যাব্রিক নিয়ে কাজ করেছেন, যাকে এহরাম বলা হয়৷ তুরস্কের দক্ষিণপূর্বে বাটমান প্রদেশে এই ফেব্রিকটি প্রচলিত৷ যেহেতু টেক্সটাইল সেক্টর পরিবেশ দূষণের জন্য অনেকাংশে দায়ী, হাতিজে তাই পরিবেশবান্ধব নকশা নিয়ে কাজ করেন৷ তাই তিনি প্রায়ই পুনর্ব্যবহারযোগ্য অ্যাক্রিলিক ফাইবার নিয়ে কাজ করেন৷

এই ফ্যাশন ডিজাইনারের ভাষায়, ‘‘যেমন অ্যাক্রিসাইকেল৷ এই ফ্যাব্রিকটি পুরোপুরি পুনর্ব্যবহারযোগ্য উপাদান থেকে তৈরি৷ এই উপাদানগুলো খুঁজে পাওয়া সম্ভব এবং এই ফ্যাব্রিকটি বার বার ব্যবহারযোগ্য৷ যেমন, আমি লম্বা সময় ধরে এটি ব্যবহার করে আসছি৷ যখন আমরা এসব উপাদান ব্যবহার করি আমরা চেষ্টা করি যতটা সম্ভব কম বর্জ্য তৈরি করতে৷''

শুধু দেখতে কেমন তা আর এখন বড় বিষয় নয়৷ হাতিজে গ্যোকচে মতো ডিজাইনারের জন্য পরিবেশ বান্ধব উপাদান কতটা ব্যবহার করা হয়েছে, তা গুরুত্বপূর্ণ৷ একইসঙ্গে গুরুত্বপূর্ণ এসব তৈরিতে কতটা পানির ব্যবহার হচ্ছে এবং কার্বন নিঃসরণ করছে৷

পুরুষের ফ্যাশন জগতে নতুন রূপ, ঐতিহ্যকে আধুনিকতার ছোঁয়ায় সুরক্ষা এবং টেকসই উপায়ে তৈরি- সবমিলিয়ে হাতিজে গ্যোকচে তুরস্কের ফ্যাশনে নতুন দিগন্ত উন্মোচন করেছেন৷

সিমোনে লাউয়েনস্টাইন/জেডএ

ইন্টারনেট লিংক