পুনের বিস্ফোরনের পর দেশজুড়ে নিরাপত্তা তুঙ্গে ভারতে | বিশ্ব | DW | 14.02.2010
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

পুনের বিস্ফোরনের পর দেশজুড়ে নিরাপত্তা তুঙ্গে ভারতে

মহারাষ্ট্রের পুনে শহরের একটি রেস্তোঁরায় বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে নয়৷ ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর মতে, এই হামলা সন্ত্রাসীদের কাজ৷ দেশের সর্বত্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে৷

default

মুম্বই হামলার পর রক্তাক্ত দৃশ্য (ফাইল ছবি)

পুনে শহরের জার্মান বেকারিতে শনিবারের বিস্ফোরণ সন্ত্রাসী সংগঠনের পরিকল্পিত হামলা বলে ব্যাখ্যা করেছে ভারত সরকার৷ বিস্ফোরণে এ পর্যন্ত নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে নয়৷ পুলিশ জানিয়েছে নিহতদের মধ্যে পাঁচজন মহিলা এবং এক বিদেশি নাগরিক রয়েছেন৷ নিহত ওই বিদেশি তাইওয়ানের নাগরিক বলে জানাচ্ছে পুনের পুলিশ বিভাগ৷

মুম্বই শহরে ২০০৮ সালের ২৬ নভেম্বর বড় ধরণের জঙ্গি হামলা চালায় পাকিস্তান ভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন লশকর এ তৈয়বা৷ সেই ঘটনার চোদ্দো মাস পরে আবার মহারাষ্ট্রেই ঘটল জঙ্গি হামলা৷ শনিবার সন্ধ্যায় শহরের অভিজাত অঞ্চলে জার্মান বেকারি নামের যে রেস্তোঁরায় এই বিস্ফোরণ ঘটেছে, সেটিতে সচরাচর বিদেশিরাই বেশি আসতেন বলে জানান পুনের পুলিশ কমিশনার সত্যপাল সিংহ৷ তিনি আরও জানান, বিস্ফোরণে আহতদের মধ্যে স্থানীয় একটি ইহুদি উপাসনালয়ের ধর্মযাজকের স্ত্রীও রয়েছেন৷ যেহেতু বিদেশিরাই বেশি সংখ্যায় ওই রেস্তোঁরায় আসতেন, সেক্ষেত্রে আহতদের মধ্যে আরও কিছু বিদেশি নাগরিক থাকার সম্ভাবনাও উড়িয়ে দিচ্ছে না পুলিশ৷ আহতের মোট সংখ্যা ৫৩ বলে জানান মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আর আর পাটিল৷ তাঁদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে ব্যাখ্যা করা হয়েছে৷

Indischer Innenminister P. Chidambaram

দেশজুড়ে নিরাপত্তা জোরদার করার ঘোষণা করেছেন ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী চিদাম্বরম

বিস্ফোরণের পর দেশজুড়ে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করার ঘোষণা করেছে ভারতের কেন্দ্র সরকার৷ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, দেশের গুরুত্বপূর্ণ অঞ্চলগুলিতে নিরাপত্তার মাত্রা বাড়ানো হয়েছে৷ কোনরকম সন্দেহজনক এবং বেওয়ারিশ ব্যাগ বা সুটকেস দেখতে পেলেই পুলিশকে খবর দেওয়ার জন্য নির্দেশ জারি করা হয়েছে৷

বিস্ফোরণের ঘটনা বিষয়ে এ পর্যন্ত যা খবর মিলেছে তাতে বলা হয়েছে, রেস্তোঁরার মধ্যে একটি বেওয়ারিশ প্যকেট দেখতে পেয়ে রেস্তোঁরার কর্মী একজন ওয়েটার সেটি খুলতে যান৷ প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই তীব্র বিস্ফোরণ ঘটে যায়৷ বিস্ফোরণের তীব্রতা এতটাই বেশি ছিল যে মানবদেহের ছিন্নভিন্ন অঙ্গপ্রত্যঙ্গ বেশ খানিকটা জায়গা জুড়ে ছড়িয়ে পড়ে৷

এই বিস্ফোরণের ঘটনার প্রেক্ষিতে ভারত সরকার আদৌ পাকিস্তানের সঙ্গে আলোচনা আবার শুরু করবে কিনা সে বিষয়টি খতিয়ে দেখার কথা বলতে শুরু করেছে ভারতের প্রধান বিরোধী দল বিজেপি৷ বিজেপি মুখপাত্র প্রকাশ জাওদেকর শনিবার রাতে পুনের বিস্ফোরণস্থল পরিদর্শন করে সাংবাদিকদের বলেন, আগামী ২৫ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের সঙ্গে পররাষ্ট্রসচিব পর্যায়ে দ্বিপাক্ষিক আলোচনা শুরু করবে বলে ভারত যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে তা খতিয়ে দেখা উচিত৷ কারণ সন্ত্রাস আর দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক হাতে হাত মিলিয়ে চলতে পারে না৷

প্রতিবেদন- সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়

সম্পাদনা - রিয়াজুল ইসলাম

সংশ্লিষ্ট বিষয়

বিজ্ঞাপন